wbhousing.gov.in 2022 Housing Department of West Bengal

West Bengal Housing Department: সাধারণত মানুষের জীবনধারণের জন্য সংবিধান স্বীকৃত নূন্যতম তিনটি জিনিসের প্রয়োজন এর মধ্যে অন্ন, বস্ত্র, এরপরে যেটি সবচেয়ে বেশি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো, সেটা বাসস্থান।

পশ্চিমবঙ্গ সরকারের আবাসন বিভাগের তাই মূল লক্ষ্যই হলো রাজ্যের প্রতিটি মানুষের জন্য সুনিশ্চিত করা, অন্তত একটি করে মাথার ওপর ছাদ।

রোদ, ঝড়, জল, বৃষ্টিতে মানুষের সবচেয়ে বেশি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো নিরাপদ বাসস্থান। যেখানে পরিবারকে নিয়ে সুস্থভাবে, সামাজিকভাবে, নিশ্চিন্তে বসবাস করা যায়। খাদ্য ও কাপড়ের জোগানের পর বাসস্থানের প্রয়োজন হয়ে পড়ে বিশেষভাবে।

Housing Department Government of West Bengal wbhousing.gov.in
Housing Department Government of West Bengal wbhousing.gov.in

আর সেই উদ্দেশ্য নিয়েই পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সরকার রাজ্যের সমস্ত গৃহহীন ও গরিব কাঁচা বাড়ি আছে এমন মানুষদের মাথার উপরে ছাদ গড়ে তোলার এই সিদ্ধান্ত কে অনেকেই প্রশংসা করেছেন। অনেকের বাড়ি তৈরি হয়ে গিয়ে বাসস্থানের উপযোগী হয়ে উঠেছে, আবার অনেকেই এই বাড়ি তৈরিতে ব্যস্ত।

বাড়ি নির্মাণে এক নম্বরে বাংলা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়:

রাজ্যজুড়ে গরিব মানুষের বাড়ি তৈরীর সার্টিফিকেট তুলে দিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এই কর্মসূচির পোশাকি নাম বাংলার বাড়ি (Banglar Bari Scheme) রাজ্যের ২১ টি জেলার প্রায় ৫ লক্ষ মানুষকে বাংলার আবাস যোজনায় (Bangla Awas Yojana) বাড়ি তৈরি সার্টিফিকেট তুলে দেওয়া হল।

জঙ্গলমহলের পিছিয়ে পড়া মানুষ, বাড়ি বানাতে পাবেন এক লক্ষ কুড়ি হাজার টাকা। রাজ্যের অন্য অংশের মানুষ পাবেন এক লক্ষ কুড়ি হাজার টাকা। কি ধরনের বাড়ি বানাতে হবে তার নকশা তৈরি করে দেওয়া হচ্ছে সরকারের তরফ থেকে।

তাছাড়া পঞ্চায়েত দপ্তর সূত্রে জানা গিয়েছে বর্তমান আর্থিক বছরে তিন লক্ষ বাড়ি তৈরীর লক্ষ্যমাত্রা ছিল। কিন্তু তাকে ছাপিয়ে ৫ লক্ষ ৬৮ হাজার মানুষকে বাড়ি তৈরি করে দেওয়ার পরিকল্পনা নিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি চান সবার মাথায় যেন ছাদ থাকে। গরিব মানুষের আস্থার অভাব যেন না হয়।

আবার মুখ্যমন্ত্রী আনুষ্ঠানিকভাবে কয়েক জনের হাতে সার্টিফিকেট তুলে দেওয়ার পর জেলায় জেলায় তা দেওয়া হবে।

এই বিষয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন:

বাংলার আবাস যোজনা (Bangla Awas Yojana) অনুষ্ঠানে ৫ লক্ষ পরিবারকে, যাদের যাদের মাটির বাড়ি অথবা বাড়ি নেই তাদেরকে বাড়ি দেওয়া হল। পাকা বাড়ি তৈরি করতে এক লক্ষ কুড়ি হাজার টাকা দেওয়া হবে।

আমাদের বেশ কিছু নিয়ম মেনে চলতে হয়। বাস্তব কিছু সমস্যা আছে আমি অফিসারদের অনুরোধ করবো মানুষের সুবিধার জন্য এই টাকাটা দুটো কিস্তিতে দেওয়ার জন্য। প্রতিদিন নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসের দাম বাড়ছে।

রান্নার গ্যাস, পেট্রোল-ডিজেলের দাম আকাশছোঁয়া, অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়াতে হবে এবং তার মাথার উপর একটা ছাদ অর্থাৎ একটা আশ্রয়ের ব্যবস্থা করতে হবে। যাতে সভ্য সমাজে মানবিকভাবে বাঁচতে পারে।”

Housing Department of West Bengal এর কাজ:

পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের প্রতিটি মানুষের যেন থাকার সুব্যবস্থা করা যায়, সেই লক্ষ্যেই এই ডিপার্টমেন্ট কাজ করে চলেছে। তাছাড়া মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বক্তব্য অনুসারে ৬ বছরে বিভিন্ন প্রকল্পের আওতায় ৫ লক্ষ বাড়ি নির্মাণ করেছে।

এই ডিপার্টমেন্ট গরিব মানুষদের দেওয়ার জন্য বাড়ি তৈরীর ক্ষেত্রে সারা ভারতের মধ্যে পশ্চিমবঙ্গ প্রথম স্থান অধিকার করেছে।

Housing Department Government of West Bengal
Housing Department Government of West Bengal

এছাড়া ১০০ দিনের কাজের সারা ভারতবর্ষের মধ্যে বাংলা এক নম্বরে। এটা একটা বড় কাজ। ইতিমধ্যেই গ্রামাঞ্চলে ২৩ হাজার কিলোমিটার রাস্তা করে দেওয়া হয়েছে।

আগামীতে নদীয়া থেকে আরও ৮ হাজার কিলোমিটার রাস্তা তৈরী হবে। নিচু তলার মানুষ এর গুরুত্ব সবচেয়ে বেশি। গ্রামাঞ্চলে পঞ্চায়েতই হল জনসংযোগের সবচেয়ে বড় জায়গা।

এছাড়াও বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত ৩০ লক্ষ পরিবারকে ১২০০ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ দিয়েছে রাজ্য সরকার।

Housing Development Department এর ওয়েসাইট:

এই ডিপার্টমেন্টের ওয়েবসাইটটি হল: www.wbhousing.gov.in এই ওয়েবসাইটের মধ্যে দিয়ে হাউসিং ডেভেলপমেন্ট ডিপার্টমেন্ট এর বিভিন্ন রকমের কার্যকলাপ সম্পর্কে জানা যায়।

যেহেতু অনলাইনে আজ সবকিছু জানা যায়, সেই কারণে এই ডিপার্টমেন্টের ওয়েবসাইটের মধ্যে দিয়ে বাসস্থান সম্পর্কিত বিভিন্ন তথ্য জানতে পারবেন আপনি।

Housing Development Department এর ওয়েবসাইটের কাজ:

৫ লক্ষ পরিবারের হাতে বাংলার বাড়ি (Banglar Bari) তুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের।

www.wbhousing.gov.in এই ওয়েবসাইটের মধ্যে দিয়ে আপনি পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সরকারের বাসস্থান সম্পর্কিত বিভিন্ন রকমের প্রকল্পের খবরা খবর রাখতে পারবেন।

এছাড়া রাস্তা, পানীয় জল, বিদ্যুৎ, ২ টাকা কেজি চাল, গম, এর সঙ্গে কন্যাশ্রী, সবুজশ্রী, আর সবুজ সাথীর মত একগুচ্ছ উন্নয়ন প্রকল্পের সকল রূপায়নের পর এবার দুস্থ গরিব মানুষের জন্য মাথার উপর ছাদ (Mathar Upor Chad Scheme) এর সংস্থান।

বাংলার আবাস যোজনার অন্তর্গত আবাসন প্রকল্পে ৫ লক্ষ পরিবারের জন্য বাংলার বাড়ি তৈরি করতে চান মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আর্থিকভাবে দুর্বল শ্রেণীর মানুষের জন্য বাড়ি তৈরি করে দিতে রাজ্যের নতুন প্রকল্প গীতাঞ্জলি (Gitanjali Scheme) চালু হয়েছে। এই প্রকল্পের সমতল এলাকায় সুবিধা প্রাপকদের একক প্রতি ৭০ হাজার টাকা দেওয়া হয়।

পাহাড়, সুন্দরবন ও জঙ্গলমহল এলাকায় অতিরিক্ত ৫০০০ টাকা দেওয়া হয় ২০১১ সালের মে মাসে থেকে শুরু করে ২,৯৮,৭৪৫ টি পরিবার উপকৃত হয়েছে। ২০১৭ থেকে ২০১৮ অর্থবর্ষে এই লক্ষ্যমাত্রা রাখা হয়েছে এক লক্ষ ইউনিট।

এই সমস্ত গরিব মানুষদের বাসস্থানের সুযোগ-সুবিধা করার জন্য পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সরকারের হাউসিং ডেভেলপমেন্ট ডিপার্টমন্ট (Housing Development Department) বিশেষ ভূমিকা পালন করে। অভিজ্ঞ ব্যক্তিদের দায়িত্ব ও তৎপরতায় বাংলার গরীব দুঃস্থ মানুষ তাদের মাথার উপরের ছাদ পেয়েছে।

Housing Development Department এর বিশেষ কিছু তথ্য:

এই ডিপার্টমেন্টের Minister-in-charge:

জনাব ফিরহাদ হাকিম

ঠিকানা: New Secretariat building, Block-C, 3rd floor, 1 K.S. Roy Road, Kolkata- 700001

ফোন নাম্বার: 2262 4004 2262 4005

ফ্যাক্স: 2262 4091

ইমেইল এড্রেস: [email protected]

এই ডিপার্টমেন্টের প্রিন্সিপাল সেক্রেটারি (অ্যাডিশনাল চার্জ):

খলিল আহমেদ, IAS

ঠিকানা: N.S. Building, Block-A, 1st floor, Kolkata- 700001

ফোন নাম্বার: 2262 5770

ফ্যাক্স: 2262 5718

ইমেইল এড্রেস: [email protected]

এই ডিপার্টমেন্টের অফিসার:

শ্রী দীপঙ্কর বসু,  ডেপুটি সেক্রেটারি

ঠিকানা: N.S. Building, Block-A, 1st floor, Kolkata-700001

ইমেইল এড্রেস: [email protected]

Official Website Click Here
Home Click Here

Leave a Comment