Bangla Awas Yojana 2022: বাংলা আবাস যোজনা 2022, আবেদন পক্রিয়া

4.5
(263)

Bangla Awas Yojana 2022: বাংলা আবাস যোজনা 2022 কি? বাংলা আবাস যোজনা আবেদন পক্রিয়া 2022, কারা পাবেন এর সুবিধা? জানুন বাংলা আবাস যোজনা ঘরের লিস্ট ও আবেদন পক্রিয়া এবং আবেদনের জন্য কি কি কাগজপত্র লাগবে সবকিছু।

একের পর এক প্রকল্প মানুষের, বিশেষ করে গরিব মানুষের অনেক সুবিধা করে দিয়েছে। পশ্চিমবঙ্গের মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি তিনি ঘোষণা করেছেন যে, বাংলায় যত গরিব মানুষ রয়েছেন তাদের জন্য একটা নতুন প্রকল্প চালু করা, বাংলা আবাস যোজনা 2022 (Bangla Awas Yojana – BAY 2022)।

এই আবাস যোজনার সুবিধা হয় যারা প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনার বাড়ি পাননি, সেই সফল ব্যক্তিরা এই আবাস যোজনায় নাম নথিভুক্ত করতে পারবেন।

Bangla Awas Yojana: Eligibility, Documents, Application & List
Bangla Awas Yojana: Eligibility, Documents, Application & List

বাংলা আবাস যোজনার জন্য পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কয়েক হাজার কোটি টাকা বরাদ্দ করেছেন। এই প্রকল্পের আওতায় সমস্ত গরিব মানুষ এই সুবিধা পাবেন।

বাংলা আবাস যোজনা 2022-23 কারা আবেদন করতে পারবেন:

এই বাংলা আবাস যোজনা তে নাম নথিভুক্ত করার জন্য যে বিষয়গুলি খুব গুরুত্বপূর্ণ সেগুলি হল:

#১) আবেদনকারীকে পশ্চিমবঙ্গের স্থায়ী বাসিন্দা হতে হবে।

#২) যাদের পাকা বাড়ি নেই, তারাই শুধুমাত্র এই প্রকল্পের জন্য আবেদন করতে পারবেন।

#৩) তাছাড়া যে সমস্ত ব্যক্তির বছরের ইনকাম ১ লক্ষ টাকা বা তার নিচে একমাত্র তারাই আবেদন করতে পারবেন এই প্রকল্পের জন্য।

#৪) এবং আবেদনকারীর বিপিএল, রেশন কার্ড থাকাটা বাধ্যতামূলক।

#৫) আপনার নামে নির্দিষ্ট জমির দলিল বা কম্পিউটার পর্চা বা রেকর্ড থাকতে হবে।

#৬) আবার সরকারি চাকরিজীবীরাও বাংলা আবাস যোজনা তে নাম নথিভুক্ত করতে পারবেন না।

বাংলা আবাস যোজনা কত টাকা পাওয়া যাবে:

প্রকল্পের তথ্য অনুযায়ী জানা গিয়েছে যে, বাংলা আবাস যোজনার আওতায় প্রত্যেক আবেদনকারী পাবে ১ লক্ষ কুড়ি হাজার টাকা, কিন্তু এই বিষয়ে নির্দিষ্ট কোনো তথ্য জানা যায়নি।

কারণ অনেক ওয়েবসাইট আর্টিকেল এ দেখা গিয়েছে যে সেখানে বলা হয়েছে আবেদনকারী ২ লক্ষ ৪০ হাজার টাকা পাবেন এই প্রকল্পের আবেদন করার পর।

বাংলা আবাস যোজনা ঘরের লিস্ট 2022:

বাংলা আবাস যোজনা নামের লিস্ট, নতুন লিস্ট অনুযায়ী জানা গিয়েছে প্রত্যেক আবেদনকারী পাবে ১ লক্ষ কুড়ি হাজার টাকা। এক লক্ষ কুড়ি হাজার টাকা কয়েকটি ইন্সটলমেন্টের মাধ্যমে দেওয়া হবে।

বাংলা আবাস যোজনা প্রথম কিস্তির যে পরিমাণ টাকা আসবে প্রায় ৫০ হাজারের ওপর এবং দ্বিতীয় কিস্তির টাকা আসবে প্রায় ৪০ হাজারের মতো। এরপর তৃতীয় কিস্তির টাকা বরাদ্দ হবে বাড়ি কমপ্লিট এর পর কুড়ি হাজার টাকা। এই টাকা জব কার্ডের মাধ্যমে আপনাকে ১০০ টি মেনটেন এর টাকা ব্যাংক একাউন্টে দেয়া হবে।

প্রধানমন্ত্রীর আবাস যোজনায় এখন থেকে একটি বড় সুবিধা পাওয়া যাবে। সি আই আই এর মধ্যে জীবন বীমার সুবিধা বাধ্যতামূলক করার দাবি জানিয়েছে। সবার জন্য বাড়ি, প্রকৃতপক্ষে সরকার প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনার আওতায় দেশের সকল মানুষের জন্য ঘর দেওয়ার পরিকল্পনা করেছে।

ভারত আবাস যোজনা নামের প্রকল্প টি প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা নামে ২৫ শে জুন ২০১০ সালে চালু হয়েছিল এবং এই প্রকল্পের মাধ্যমে ২০২২ সালের ৩১ শে মার্চের মধ্যে দুই কোটি বাড়ি নির্মাণের লক্ষ্যমাত্রা রয়েছে।

দুঃস্থ মানুষদের জন্য প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা প্রকল্পে (বাংলা আবাস যোজনা 2022 – Bangla Awas Yojana 2022) বাড়ি তৈরি করে দেওয়া হয়। গত আর্থিক বছরে এই প্রকল্পের বাড়ি তৈরির কাজ শেষ করার নিরিখে সমগ্র দেশে পশ্চিমবঙ্গের মুর্শিদাবাদ জেলা প্রথম স্থান অধিকার করেছে আর এই প্রকল্পের সার্বিক কাজের নিরিখে রাজ্য হিসাবে পশ্চিমবঙ্গ দেশে দ্বিতীয় স্থান অধিকার করেছে।

বাড়ি কেনার জন্য লোন এর সুবিধা:

এই প্রকল্পের আওতায় যদি কেউ প্রথমবারের জন্য একটি বাড়ি কিনে থাকেন, তবে তাদের সংযুক্ত লোনে ভর্তুকি দেয়া হবে।

বাড়ি কেনার জন্য হোম লোনের জন্য ভর্তুকি দেয়া হবে। এই ভর্তুকির পরিমাণ ২.৬৭ লক্ষ টাকা পর্যন্ত। এই প্রকল্প টি কেন্দ্রীয় সরকার দ্বারা পরিচালিত।

বাংলা আবাস যোজনার প্রকল্পের সুবিধা:

এই প্রকল্পের আবেদন করার পর আবেদনকারী যে সমস্ত সুবিধা ভোগ করতে পারবেন:-

#১) এই প্রকল্পে আপনি সরাসরি ব্যাঙ্ক অথবা পোস্ট অফিসের একাউন্ট এক বারের জন্য আর্থিক সহায়তা পাবেন।

#২) এই প্রকল্পের অধীনে আপনি যে বাড়িটি করবেন তা নতুন প্রযুক্তিতে তৈরি করা হবে। এবং প্রাকৃতিক দুর্যোগের হাত থেকে আপনার বাড়িটি সুরক্ষিত থাকবে।

#৩) এই প্রকল্পের অধীনে আপনি বাড়ি তৈরি করতে পারবেন প্রায় ২৫ বর্গমিটার জায়গা জুড়ে।

#৪) এই প্রকল্পের অধীনে কেন্দ্র সরকার দরিদ্র সম্প্রদায়ের মানুষদের আর্থিক ১২০০০ টাকা সাহায্য করবে।

এই প্রকল্পের অনলাইন আবেদন করার ওয়েবসাইটটি হল: pmayg.nic.in ওয়েব সাইটে যাওয়া পর সমস্ত রকম তথ্য পূরণ করার পরে আপনার সমস্ত ব্যক্তিগত বিবরণ, ব্যাঙ্কের ডিটেইলস, ডিটেইলস ছাড়পত্র ইত্যাদি তথ্য পূরণ করতে হবে।

আপনি যদি  যেকোনো ধরনের তথ্য বুঝতে না পারেন বা আপনি আরও বিস্তারিত ভাবে অন্য কোন তথ্য যদি জানতে চান, তবে pmayg.nic.in এতে আবেদন জানাতে পারেন। তার সাথে রয়েছে ফোন করার অপশনও আপনি চাইলে 1800-11-6446 এই নাম্বারে কল করতেও পারেন।

বাংলা আবাস যোজনা আবেদন করার জন্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্র:

আপনি যদি বাংলা আবাস যোজনার জন্য অনলাইন অথবা অফলাইনে যেকোনো পদ্ধতিতেই আবেদন করতে চান, তাহলে আপনাকে কিছু ডকুমেন্টস এর দরকার পড়বে সেগুলি হল:-

#১) আবেদনকারীর আধার কার্ড এবং প্যান কার্ড।

#২) বাংলা আবাস যোজনার অ্যাপ্লিকেশন ফর্ম (যদি অনলাইনে এপ্লাই করেন)।

#৩) আপনার ফ্যামিলি রেশন কার্ড।

#৪) বাৎসরিক ইনকাম সার্টিফিকেট।

#৫) স্থায়ী বাসিন্দার পরিচয় পত্র।

#৬) আবেদনকারীর একটি রিসেন্ট পাসপোর্ট সাইজের ফটো।

বাংলা আবাস যোজনার আবেদন পদ্ধতি:

এই আবাস যোজনায় নাম নথিভুক্ত করতে নিকটবর্তী গ্রাম পঞ্চায়েত, অথবা গ্রাম প্রধান অফিসে গিয়ে অ্যাপ্লিকেশন ফর্ম এর জন্য যোগাযোগ করতে হবে। বাংলা আবাস যোজনা অ্যাপ্লিকেশন (Bangla Awas Yojana Application) এর নথিপত্রগুলো গ্রামের পঞ্চায়েত, গ্রাম প্রধান, বিডিও অফিসে গিয়েও জমা করতে পারবেন।

আপনাদের এই তথ্য কেমন লেগেছে?

এই পোস্টে মতামত দিতে একটি স্টারে ক্লিক করুন!

Average rating 4.5 / 5. Vote count: 263

No votes so far! Be the first to rate this post.

যেহেতু আপনি এই পোস্টটি দরকারী বলে মনে করেছেন ...

সোশ্যাল মিডিয়াতে আমাদের অনুসরণ করুন!

আমরা দুঃখিত যে এই পোস্টটি আপনার জন্য দরকারী ছিল না!

চলুন আমাদের এই পোস্ট উন্নত করা যাক!

আমাদের বলুন কিভাবে আমরা এই পোস্ট উন্নত করতে পারি?

Leave a Comment