2022 E-Shramik Registration, E-Shram Card, apply online- ই-শ্রম কার্ড আবেদন 2022

4.2
(675)

শ্রম কার্ড অনলাইন এপ্লাই 2022: আজ আপনাদের জানাতে চলেছি E-Shram Card কি? এবং E-Shramik Registration 2022 পোর্টালে (Online E-Shram Card Registration 2022) ই শ্রম কার্ড অনলাইন আবেদন 2022 পদ্ধতি ধাপে ধাপে। ই-শ্রম কার্ডের জন্য মাত্র ৫ মিনিটে রেজিস্ট্রেশন করে নিতে পারবেন (e shram card online apply 2022)।

আমাদের চারপাশে শ্রমিকের সংখ্যা নেহাত কম নয়। তাদের সুবিধার কথা ভেবেই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি শ্রমিকদের জন্য ই-শ্রম পোর্টাল চালু করেছেন। এই পোর্টালে আবেদন (শ্রমিক কার্ড আবেদন 2022) করলে সমস্ত শ্রমিকরা ভীষণ ভাবে উপকৃত হবেন, এমনটাই জানা যাচ্ছে।

অনেক রকমের শ্রমিক হয়ে থাকেন, যেমন ধরুন, কৃষক, শ্রমিক, টোটো-অটো চালক, লেবার, ড্রাইভার, নির্মাণ কর্মী, কন্ট্রাক্টর, প্রাইভেট টিচার, আশা কর্মী, অঙ্গনওয়াড়ি কর্মীী, রিকশাচালক, ফুটপাতের বিক্রেতা, মিড ডে মিলের কর্মীরা, ইটভাটার শ্রমীক, মুচি, গৃহভিত্তিক কর্মী, বিড়ি শ্রমিক, তাঁত শ্রমিক, চামড়া শ্রমিক, audio-visual শ্রমিক, অথবা অন্যান্য পেশায় যুক্ত শমিক থেকে শুরু করে প্রায় সমস্ত অসংগঠিত শ্রমিক, এরা এখানে আবেদন করতে পারবেন অনায়াসেই।

E Shramik Registration, E-Shram Card, apply online
E Shramik Registration, E-Shram Card, apply online

ই-শ্রম কার্ডের (শ্রমিক কার্ড 2022) জন্য আবেদন করতে হবে আপনাকে অনলাইনে। তবে গুরুত্বপূর্ণ কথা হল, আপনি সম্পূর্ণ বিনামূল্যে কার্ডের জন্য আবেদন (ই শ্রম কার্ড অনলাইন আবেদন) করতে পারবেন।

আগে থেকে যদি আপনার আধার কার্ডের সাথে আপনার মোবাইল নাম্বার লিঙ্ক করা থাকে, তাহলে তো আর কথাই নেই। আপনি ঘরে বসেই মোবাইল এর মাধ্যমে একেবারে ফ্রী তে আবেদন করতে পারবেন ই-শ্রম কার্ডের জন্য।

তাছাড়া কোনরকম ভাবে যদি আপনার আধার কার্ডের সাথে মোবাইল নাম্বার লিঙ্ক করা না থাকে তাহলে আপনাকে নিকটবর্তি তথ্য মিত্র (CSC) কেন্দ্রে যেতে হবে।

আধার কার্ড, ব্যাংক অ্যাকাউন্ট নাম্বার ও মোবাইল নাম্বার নিয়ে যেতে হবে এই কেন্দ্রে। তারপর খুশির খবর হলো, তারা আপনাকে সম্পূর্ণ বিনামূল্যে ই-শ্রম কার্ড (শ্রমিক কার্ড) বানিয়ে দেবে সাথে সাথেই। আপনি এই কার্ডের জন্য নিজের বারিতে বসেই আবেদন করতে পারেন।

ই-শ্রম কার্ডের জন্য আবেদন করার শর্ত :

১) সর্বপ্রথম অসংগঠিত শ্রমিকদের বয়স ১৬ থেকে ৫৯ বছরের মধ্যে থাকতে হবে। এই কার্ডের জন্য ছেলে মেয়ে উভয়ই আবেদন করতে পারবেন।

২) অসংগঠিত শ্রমিক রা যদি কোন রকম ইনকাম ট্যাক্স না দিয়ে থাকেন তাহলেও আবেদন করতে পারবেন।

৩) আবার যদি সেই আবেদনকারীর কোনরকম এমপ্লয়িজ প্রভিডেন্ট ফান্ড অর্গানাইজেশন (EPFO) এবং এম্প্লয়িস স্টেট ইন্সুরেন্স কর্পোরেশন (ESIC) এর সদস্য না হয়ে থাকে তাহলেও কিন্তু আবেদন করতে পারবেন।

ই-শ্রম কার্ড এর সুবিধা গুলি জেনে নিন :

কার্ডের জন্য আবেদন করলে এবং এই কার্ড যদি আপনার থাকে তাহলে কিন্তু আপনি অনেক সুবিধা পেয়ে যাবেন। সেগুলি হল :

প্রথমত বিনামুল্যে ২ লক্ষ টাকার বিমা পেয়ে যাবেন। এছাড়াও Pradhan Mantri Shram Yogi Maan-Dhan (PM-SYM) Yojana-এর অন্তর্গত দেওয়া সুবিধার আওতায় আসতে পারেন এবং সুবিধা পেতে পারেন।

আবেদনের শর্তগুলি :

১) আবেদনকারীর বয়স থাকতে হবে ১৮ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে।

২) মাসিক ইনকাম ১৫০০০ টাকা এবং তার থেকে কম থাকতে হবে।

৩) EPF,NPS অথবা ESIC এর সদস্য হলে আপনি কিন্তু আবেদন করতে পারবেন না।

৪) তাছাড়া আপনি যদি ইনকাম ট্যাক্স দিয়ে থাকেন তাহলেও এর সুবিধা গুলি আপনি পাবেন না।

আবেদন জন্য কাগজপত্র :

আবেদন করার জন্য যে সব বিষয় গুলি দরকার সেগুলি হল –

১. মোবাইল নাম্বার।

২. আধার কার্ড।

৩. ব্যাংক একাউন্ট নাম্বার।

৪. পড়াশোনার সার্টিফিকেট।

৫. ইনকামের সার্টিফিকেট।

সকলের স্কেন করা কপি দরকার হবে যা আবেদনের সময় আপলোড করতে হবে।

আবেদন করার পদ্ধতি :

PM-SYM এর ওয়েবসাইটে গিয়ে আবেদন করতে পারবেন আপনি। এর জন্য আপনাকে কোথাও যাবার প্রয়োজন হবে না। বাড়িতে বসে মোবাইল বা কম্পিউটারের মাধ্যেমে করে নিতে পারেন।

যদি আপনি এসব ব্যবহার করতে না পারেন তাহলে আবেদন করার জন্য তথ্য মিত্র (CSC Center) কেন্দ্রে যেতে হবে।

ই-শ্রম পোর্টালে রেজিস্ট্রেশন করার জন্য প্রথমে https://www.eshram.gov.in এ যেতে হবে। তারপর আধার নম্বর, ব্যাংক অ্যাকাউন্টের তথ্য ও মোবাইল নম্বরসহ গুরুত্বপূর্ণ তথ্য দিয়ে রেজিস্টার করাতে হবে। আসুন পদ্ধতি এববার দেখে নেওয়া যাক…

Step 1. সবার প্রথমে https://www.eshram.gov.in ওয়েবসাইট খুলে নিতে হবে। ওয়েবসাইট খুলে যাবার পর সামনে “REGISTER on e-Shram” সেক্সানে ক্লিক করবেন।

E Shramik Card Registration Portal
E Shramik Card Registration Portal

Step 2. নতুন যেই পেজ খুলবে সেখানে “SELF REGISTRATION” এর নিচে মোবাইল নাম্বার লিখবেন (আধার কার্ডের সঙ্গে লিংক করা মোবাইল নাম্বার দিতে হবে)। মোবাইল নাম্বার দেবার পর মোবাইলে একটি OTP আসবে।

এই OTPটি Enter OTP সেক্সানে লিখবেন (এই কাজ তাড়াতাড়ি করতে হবে কারণ OTP লেখা জন্য সামান্য কিছু সময় দেওয়া হয় যা স্ক্রিনে দেখতে পাবেন)। সঠিক ভাবে OPT দেওয়ার পর Submit বটনে ক্লিক করবেন।

E-Shram Card Registration Portal Login
E-Shram Card Registration Portal Login

Step 3. এই বার আপনাকে Aadhaar Number দিতে হবে। ভালো ভাবে দেখে আধার নাম্বার লিখবেন যেন ভুল না হয়। লেখার পর Submit বটনে ক্লিক করবেন।

E-Shram Card Registration Portal - Enter Aadhaar Number
E-Shram Card Registration Portal – Enter Aadhaar Number

Step 4. আপনার দেওয়া আধার নাম্বার অনুসারে আধার কার্ডের সাথে লিংক করা মোবাইল নাম্বারে একটি OTP আসবে। এই OTP Enter OTP সেক্সানে লিখবেন এবং Validate বটনে ক্লিক করবেন।

E-Shram Card Registration Portal - Verify Aadhaar Number
E-Shram Card Registration Portal – Verify Aadhaar Number

Step 6. আপনার আধার নাম্বার ভেরিফাই হয়ে যাওয়ার পর আপনার আধারের তথ্য সামনে দেখতে পাবেন। নিচে Continue To Enter Other Details বটন দেখতে পাবেন যেখানে ক্লিক করে Next পেজে পৌঁছে যাবেন।

E-Shram Card Registration Portal - Your Aadhaar Information
E-Shram Card Registration Portal – Your Aadhaar Information

Step 7. এই রেজিস্ট্রেশন ফর্ম সম্পূর্ণ করতে আপনাকে কয়েকটি তথ্য ভরতে হবে

i) Personal Information – নিজস্য তথ্য

ii) Address – ঠিকানা

iii) Education Qualification – শিক্ষাগত যোগ্যতা

iv) Occupation and Skills – পেশা এবং দক্ষতা

v) Bank Details – ব্যাংকের তথ্য

একের পর এক তথ্য গুলি ভরতে হবে, এই রেজিস্ট্রেশন ফর্মের বাম দিকে লিস্ট দেখতে পাবেন।

E-Shram Card Registration Portal - Enter Your Information
E-Shram Card Registration Portal – Enter Your Information

Step 8. Personal Information – নিজস্য তথ্য ভরার পর বাকি গুলি একের পর এক ভরে ফেলুন।

Step 9. Education Qualification – শিক্ষাগত যোগ্যতা সেক্সানে আপনাকে ডকুমেন্ট আপলোড করতে হবে যদি প্রয়োজন হয়। তাই নিজের শিক্ষাগত প্রমানপত্র এবং ইনকাম সার্টিফিকেট স্ক্যান করে রাখবেন।

E-Shram Card Registration Portal - Upload Documents
E-Shram Card Registration Portal – Upload Documents

Step 10. Occupation and Skills – পেশা এবং দক্ষতা এবং Bank Details – ব্যাংকের তথ্য দেবার পর ফর্মটি সাবমিট করবেন। (ফর্ম সাবমিট করার পূর্বে অবশ্যই ফর্মের তথ্য যাচাই করে নেবেন)

একবার এই পোর্টালে নাম নথিভুক্ত করলে ই-শ্রম কার্ড দেবে কর্তৃপক্ষ। যেখানে নির্দিষ্ট ১২ টি সংখ্যা দেওয়া থাকবে কার্ডে।

এই ছিল E-Shramik Registration পোর্টালে E-Shram Card Registration পদ্ধতি, আশা করি আপনারা এই পদ্ধতি করে নিজের E-Shram Card পাবার জন্য রেজিস্ট্রেশন করে ফেলেছেন।

Official WebsiteClick Here
HomeClick Here

আপনাদের এই তথ্য কেমন লেগেছে?

এই পোস্টে মতামত দিতে একটি স্টারে ক্লিক করুন!

Average rating 4.2 / 5. Vote count: 675

No votes so far! Be the first to rate this post.

যেহেতু আপনি এই পোস্টটি দরকারী বলে মনে করেছেন ...

সোশ্যাল মিডিয়াতে আমাদের অনুসরণ করুন!

আমরা দুঃখিত যে এই পোস্টটি আপনার জন্য দরকারী ছিল না!

চলুন আমাদের এই পোস্ট উন্নত করা যাক!

আমাদের বলুন কিভাবে আমরা এই পোস্ট উন্নত করতে পারি?

2 thoughts on “2022 E-Shramik Registration, E-Shram Card, apply online- ই-শ্রম কার্ড আবেদন 2022”

Leave a Comment