wbphed.gov.in 2022 Water Resources Investigation and Development Department of West Bengal

West Bengal Water Resources Investigation and Development Department: মানুষের বেঁচে থাকার জন্য জল একটি অপরিহার্য জিনিস। স্বাস্থ্য, চাষবাস থেকে সমস্ত কাজে জল ব্যাপকভাবে ব্যবহার করা হয়। সেই কারণেই জলের সংরক্ষণ এবং তার উৎস এবং জলের সংরক্ষণের দিকে খেয়াল রাখাটা বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ।

Water Resources Investigation and Development Department:

আমাদের দেশে জলের বিভিন্ন উৎস নিয়ে, বিশেষ করে বৃষ্টির জল সংরক্ষণ নিয়ে যেমন কাজ চলছে একইভাবে আজকের দিনের সময় এসেছে যখন আমাদের ভাবতে হবে যে জলের গুণগত মান ঠিক থাকছে কি না। পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যে বর্তমানে ১২০ টি জল পরীক্ষাগার  আছে।

Water Resources Investigation and Development Department of West Bengal - wbphed.gov.in
Water Resources Investigation and Development Department of West Bengal – wbphed.gov.in

পরীক্ষাগার তিনটি ব্লগ পিছু একটি করে এছাড়া আরও দুটি কেন্দ্রীয় জল পরীক্ষাগার আছে। ল্যাবরেটরীতে সুযোগ থাকছে জলের বিভিন্ন গুণগত মান সম্পর্কে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করানোর কিন্তু শুধু সুযোগ বা পরিকাঠামো থাকলেই তো হবে না তাকে ব্যবহার করতে হবে।

Water Resources Investigation and Development Department এর কাজ:

জল সংরক্ষণ ও ক্ষুদ্র সেচ ব্যবস্থার উন্নতি করার জন্য বিভিন্ন প্রকল্প উদ্যোগ নিয়েছে জলসম্পদ অনুসন্ধান ও উন্নয়ন দপ্তরএই দপ্তরের কিছু উল্লেখযোগ্য সাফল্য:

জল ধরো জল ভরো প্রকল্প:

২০১৭- ২০১৮ অর্থবর্ষে ৩১ শে ডিসেম্বর পর্যন্ত ৩১, ১৬৫ টি জলাশয় তৈরি করা হয়েছে। যার মধ্যে ৫৯৩৭ টি ৪০ মিটার × 30 মিটার, আয়তনের তৈরি করেছে। জল সম্পদ অনুসন্ধান ও উন্নয়ন দপ্তর। ২৫, ২২৮ টি জলাশয় নির্মাণ ও সংস্কার করা হয়েছে।

পঞ্চায়েত ও গ্রামোন্নয়ন দফতরের সহযোগিতায়। ২০১১ থেকে ২০১২ সাল থেকে ২২,৭ ১০১ টি জল সংরক্ষণ করার জন্য জলাশয় খনন ও সংস্কার করা হয়েছে।

ক্ষুদ্র সেচ এর সুবিধা বাড়ানো:

ক্ষুদ্র সেচ ব্যবস্থার ওপর জোর দেওয়া হয়েছে। এক  বিশেষ ব্যবস্থা যেমন গভীর ও অগভীর নলকূপ, নদীর মাধ্যমে জলসেচ, এস এফ এম আই এস, চেক ড্যাম, সৌর বিদ্যুৎ চালিত ক্ষুদ্র সেচ ব্যবস্থা, ইত্যাদি গ্রহণের ফলে ৩৬৩৫১ হেক্টর জমিতে সেচের সম্ভাবনা বাড়ানো হয়েছে।

রুক্ষ জেলা গুলিকে সেচের আওতায় আনা:

বীরভূম, বাঁকুড়া, পুরুলিয়া, ঝারগ্রাম, ও পশ্চিম মেদিনীপুরের মতো রুক্ষ এলাকায় ২০১৭ থেকে ২০১৮ অর্থবর্ষে ৩১ শে ডিসেম্বর ২০১৭ পর্যন্ত ৩৫১ টি বিশেষ প্রকল্প নেওয়া হয়েছে। যার ফলে ১১০৮৮  হেক্টর জমিকে সেচের উপযুক্ত করা সম্ভব হয়েছে। এর মধ্যে আছে ৪৮ টি চেক ড্যাম ও অন্যান্য ১০৪ টি জলাশয় নির্মাণ করা হয়েছে, যার ক্ষমতা ৬৯৩২ হেক্টর জমিতে সেচ সম্ভব করে তোলা।

ক্ষুদ্র সেচ ব্যবস্থায় সৌর শক্তির ব্যবহার:

৯৯ টি সৌরবিদ্যুৎ চালিত সেচ প্রকল্প চালু হয়েছে যেমন স্প্রিংকলস, টিউব অয়েল, পাম অয়েল।

দেশের মানুষের দৈনন্দিন জীবনযাত্রার মানোন্নয়নের জন্য কেন্দ্র জল জীবন মিশন প্রকল্প চালু করে। গ্রামাঞ্চলের বাড়িতে পর্যাপ্ত পরিমাণ বিশুদ্ধ জল সরবরাহ করাই এর উদ্দেশ্য।

রাজ্যগুলির সহযোগিতামূলক যুক্তরাষ্ট্রীয় কাঠামোর আওতায় এই কর্মসূচি চালু করা হয়েছে। গ্রামাঞ্চলে মানুষের জীবনযাত্রা সহজ করা ছাড়াও মহিলাদের বিশেষ করে ছোট ছোট মেয়েদের দুর্দশা কম করাই এই প্রকল্পের উদ্দেশ্য।

পশ্চিমবঙ্গে ৪১৩৫৭ টি গ্রামে এক কোটি ৬৩ লক্ষ বাড়ি রয়েছে, কিন্তু বর্তমানে মাত্র ২ লক্ষ বাড়িতে পাইপ বাহিত জল পৌঁছে দেওয়া সম্ভব হয়েছে। সব দিক দিয়ে বলা যায়, জল জীবন মিশন কে গণ আন্দোলন এ পরিণত করতে যথাযথ ব্যবস্থা নিতে হবে।

গ্রামের মধ্যে জল সরবরাহের পরিকাঠামো তৈরি করে সেটি পরিচালনা ও রক্ষণাবেক্ষণের জন্য প্রয়োজনীয় মহিলাদের স্বনির্ভর গোষ্ঠী ও স্বেচ্ছাসেবক সংগঠনগুলির সাহায্য নেওয়া যেতে পারে। গ্রামের যেসব বাসিন্দা রাজমিস্ত্রি, কলের মিস্ত্রি এবং বিদ্যুতের মিস্ত্রি তাদের দক্ষতা এই ক্ষেত্রে ব্যবহার করা যেতে পারে।

পশ্চিমবঙ্গে গ্রামের জল সরবরাহ এবং জল সংরক্ষণ প্রকল্পের কাজ দ্রুত বাস্তবায়ন করা প্রয়োজন। এর মাধ্যমে গ্রামাঞ্চলের বাড়িতে পৌঁছে দেওয়ার পাশাপাশি যেসব দক্ষ এবং আধা দক্ষ পরিযায়ী শ্রমিকরা ফিরে এসেছেন, তাদের কাজের সুযোগ করে দেওয়া সম্ভব হবে। যার ফলে গ্রামীণ অর্থনীতিতে আসবে জোয়ার।

Water Resources Investigation and Development Department এর ওয়েবসাইট:

এই ডিপার্টমেন্টের ওয়েবসাইটটি হল: www.wbphed.gov.in এই ওয়েবসাইটের মধ্যে দিয়ে পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সরকারের জল সংরক্ষণ দপ্তর এর কার্যকারিতা সম্পর্কে জানা যায়।

Water Resources Investigation and Development Department এর ওয়েবসাইটের কাজ:

বিভিন্ন রকমের জল সংরক্ষণ প্রকল্প, কর্মসূচি, আর্থিক সহযোগিতা এবং কোন জেলায় কি ধরনের জল সংরক্ষণ প্রকল্প চালু হয়েছে বা হতে চলেছে সে সম্পর্কে এই ডিপার্টমেন্টের www.wbphed.gov.in এই ওয়েবসাইটের মধ্যে দিয়ে বিস্তারিত ভাবে জানা যায়।

পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সরকারের এই জল সংরক্ষণ দপ্তর এর আওতায় খরা প্রবণ জায়গাতেও চাষবাসের জন্য বিশেষ ব্যবস্থা করা গিয়েছে। বিভিন্ন রকমের প্রকল্প, আর্থিক সহযোগিতা, সবকিছুর মধ্যে দিয়ে এই দপ্তর চাষবাস এবং অন্যান্য বিভিন্ন কাজে প্রয়োজনীয় জল সংরক্ষণের জন্য পুকুর কাটা, খাল সংরক্ষণ, খাল সংস্কার এবং জল ধরে রাখার ট্যাংক বসানো হয়েছে বিভিন্ন জায়গায়।

জলের প্রধান উৎস হল সমুদ্র, নদী এবং বৃষ্টির জল। অনেক সময় বৃষ্টির জল পরবর্তী সময়ে অপচয় হয়ে যায়, সেই কারণে বড় কোন জলাশয়, পুকুর, খাল এবং ট্রাঙ্ক এর মাধ্যমে জল সংরক্ষণ করে সেগুলো অনাবৃষ্টির সময়েও চাষের ক্ষেত্রে এবং বিভিন্ন কাজে ব্যবহার করা যায় অনায়াসেই।

সে ক্ষেত্রে জলের অভাব যেমন দেখা যায় না, তেমনি জল সংরক্ষণের মধ্য দিয়ে পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের উন্নতি সাধনে অনেকটাই সহযোগিতা করে এই দপ্তর।

পানীয় জলের জন্য বিভিন্ন জায়গায় পাইপ লাইনের মাধ্যমে বিশুদ্ধ জল ও টিউবয়েলের মাধ্যমে বিশুদ্ধ জল সরবরাহ করা হয় জনসাধারণের সুবিধার্থে।

Water Resources Investigation and Development Department এর কিছু তথ্য:

এই ডিপার্টমেন্টের Minister-in-Charge:

শ্রী মানষ রঞ্জন ভুনিয়া

ঠিকানা: খাদ্য ভবন, Block-A, 5th floor, 11A,  Mirza Galib Street, Kolkata-700087

ফোন নাম্বার: 2252 05582, 252 0038

ইমেইল এড্রেস: [email protected]

এই ডিপার্টমেন্টের প্রিন্সিপাল সেক্রেটারি:

শ্রী প্রভাত কুমার মিশ্রা, I.A.S.

ঠিকানা: খাদ্য ভবন, Block-A, 5th floor, 11A,  Mirza Galib Street, Kolkata-700087

ফোন নাম্বার: 2252 1144

ফ্যাক্স: 2252 1196

ইমেইল এড্রেস: [email protected]

এই ডিপার্টমেন্টের Nodal অফিসার:

NA

ঠিকানা: রাইটার্স বিল্ডিং কোলকাতা 700001

Official Website Click here
Home Click here

Leave a Comment