৫ টি শীর্ষ দক্ষিণ ভারতীয় হাসপাতালঃ কম খরচে উন্নতমানের চিকিৎসা

ভারতের দক্ষিণের ৪ টি রাজ্য তামিল নাডু, কার্ণাটেক, অন্ধ্র প্রদেশ, ও কেরালা। এই ৪ টি রাজ্যেই চিকিৎষা ব্যবস্থার অনেক উন্নতি সাধন হয়েছে। এই রাজ্যগুলিতে অনেক উন্নতমানের হাসপাতাল প্রতিষ্ঠা হয়েছে। এই এলাকায় ভারতের অন্যতম আধুনিক কিছু হাসপাতাল প্রতিষ্ঠা হওয়ায় পুরো ভারতের এবং আশেপাশের দেশ থেকেও চিকিৎষার এক কেন্দ্রে পরিণত হয়েছে। 

এখানকার বিশাল চক্ষু হাসপাতাল ও অনেক কম খরচে উন্নতমানের অনেক জটিল অপারেশন সম্পন্ন হওয়ায় লক্ষ লক্ষ রোগী এই এলাকায় কম খরচে চিকিৎষা নিতে আসে। এতে করে অনেক দরিদ্র রোগী এখানকার উন্নত চিকিৎষা সেবা কম খরচেই লাভ করে থাকে। 

দক্ষিন ভারতের হাসপাতালগুলোর কিছু কিছু চিকিৎষা সেবা ইতিমধ্যে বিশ্বমানের চিকিৎষা সেবা বলে স্বীকৃতি পেয়েছে। এখানকার হাসপাতালগুলির Cardiology, Cardio-thoracic surgery, Pediatric Neurosurgery, In-Vitro Fertilization, Dental Care, Cosmetic Surgery, Orthopedic Treatment, Renal and Bone Marrow Transplants, Ophthalmology and LASIK surgery, Neurology, Shoulder, Hip and Knee Replacement surgery and Hematology ইতিমধ্যে খ্যাতি অর্জন করেছে। 

 

আমাদের বাংলাভূমি সাইটে নিয়মিতভাবে আপনাদের সাথে স্বাস্থ্য সম্পর্কিত বিভিন্ন তথ্য নিয়ে আলোচনা করে থাকি। এতে করে আপনারা সহজেই স্বাস্থ্য সম্পর্কিত বিভিন্ন তথ্য জানতে পারেন। এরই ধারাবাহিকতায় আজ আমরা আপনাদের সাথে দক্ষিন ভারতের ৫ টি হাসপাতালে কথা বর্ণনা করবো, যেখানে কম খরচে উন্নতমানের চিকিৎষা সেবা পাওয়া যায়। আসুন আজ আপনাদের জন্য একে একে ৫ টি হাসপাতালের কথা বর্ণনা করি।

 

Narayana Hrudayalaya, Bangalore

১০০০ শয্যা বিশিষ্ট এই হাসপাতালটি ২০০১ সালে ব্যাঙ্গালোরে প্রতিষ্ঠিত হয়। এখানে প্রতিদিন প্রায় ৮০০ রোগী বিভিন্ন রোগের চিকিৎষা নিতে আসে। এই হাসপাতালটি ভারতের দরিদ্র জনগনের চিকিৎষার জন্য আশ্রয়স্থল হিসেবে বিবেচিত হয়ে থাকে। 

এই হাসপাতালে প্রতিদিন ৩০ টি গুরুত্বপূর্ন হার্টের অপারেশন হয়ে থাকে, যা ভারতের প্রায় ১০%। এই হাসপাতালে মাত্র ১০ রুপিতে চিকিৎষা সেবা নেয়া যায়। 

 

Wockhardt Hospitals, Bangalore

২০০৬ সালে ৪০০ শয্যার এই হাসপাতালটি অত্যাধুনিক চিকিৎষা সেবা নিয়ে প্রতিষ্ঠিত হয়। এখানকার চিকিৎষা সেবার মাঝে Cardiac, Orthopedic, Neurosciences, Minimal Access Surgery and Women and Child এর মত গুরুত্বপূর্ন সেবা দেয়া প্রদান করা হয়ে থাকে। 

এখানকার গুরুত্বপূর্ন অপারেশনগুলি খুবই অল্প টাকায় করা যায় বলে ভারতের দরিদ্র জনগন সহজেই এই সুবিধা নিয়ে উন্নতচিকিৎষা সেবা নিতে পারে। তাই দক্ষিন ভারতের এই হাসপাতালটি ভারতের চিকিৎষা সেবার একটি অন্যতম হাসপাতাল। 

 

Manipal Hospital, Bangalore

মানিপাল হাসপাতাল ব্যাঙ্গালোরে অবস্থিত আর একটি উন্নতমানের হাসপাতাল। এই হাসপাতালে বর্তমানে ৬০০ টি শয্যা আছে এবং আরো ৩০০ টি শয্যা তৈরি করার কাজ চলছে। এখাকার চিকিৎষা ব্যবস্থা পরিচালনা করার জন্য ২২ টি বিভাগ রয়েছে এবং ৬০ টি উপবিভাগ রয়েছে। 

এই হাসপাতালের রোগীদের সুবিধার্থে অনলাইন চিকিৎষা সেবা, টেলিফোনে ডাক্তারদের সাথে কথা বলার ব্যবস্থা করা আছে। এর ফলে রোগীর ঘরে বসেই অনেক বিষয়ে ডাক্তারদের সাথে আলোচনা করতে পারে। 

KIMS, Thiruvananthapuram

Kerala Institute of Medical Sciences বা সংক্ষেপে (KIMS) নামে পরিচিত এই হাসপাতাল ২০০২ সালে কেরেলায় প্রতিষ্ঠিত হয়। এখানে সর্বমোট ৪৫০ টি শয্যা রয়েছে।

এখানকার চিকিৎষা সেবাগুলির মাঝে Cardiology and Cardiovascular surgery, Orthopaedics and Joint Replacements, Neurology and Neuro surgery, Cosmetic Surgery, Cochlear Implant, Dental Procedures, Keyhole surgery, Cataract Surgery, Sleep Lab facility and Phonosurgery অন্যতম। 

ভারতের রোগীদের উন্নত স্বাস্থ্য সেবাদানে জন্য এই হাসপাতালটি Gandhi Memorial Award ২০০৭ এবং ২০০৮ লাভ করে। 

 

Amrita Institute of Medical Sciences, Kochi

Amrita Institute of Medical Sciences and Research Centre (AIMS) নামের হাসপাতালটি একটি ১২৫০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতাল এবং এই হাসপাতালটি সর্বমোট ৯৪ একর জায়গার উপর প্রতিষ্ঠিত। এই হাসপাতালে বছরে ৪,৬০,০০০ রোগী বহির্বিভাগে চিকিৎষা সেবা লাভ করে সেই সাথে প্রায় ৪০,০০০ রোগী আবাসিক চিকিৎষা সেবা নিয়ে থাকে। এখানকার রোগীদের চিকিৎষার সুবিধার্থে ২৪ ঘন্টাই টেলিফোনের মাধ্যমে ডাক্তাদের সেবা নেয়ার ব্যবস্থা রয়েছে। 

শুধু তাই নয়, এখানকার গবেষনাগারে আরো উন্নত চিকিৎষা সেবা নিশ্চিত করার জন্য নিয়মিত কাজ করে যাচ্ছে। এর ফলে দক্ষিন ভারতের এই হাসপাতাল জনগনের আস্থার প্রতীক হয়ে গড়ে উঠেছে। 

আজ আমরা দক্ষিন ভারতে খুবই কম খরচে উন্নতমানের চিকিৎষা হয় এমন হাসপাতাল সম্পর্কে জানতে পারলাম। এতে করে অনেক দরিদ্র রোগী এই হাসপাতালে চিকিৎষা নিয়ে নানা প্রকার ব্যাধি হতে রক্ষা পেতে পারে। তাই আমাদের উচিত সবাই কে এই লেখাটি শেয়ার করা। 

আমাদের সাইটের পরবর্তী লেখায় আপনাদের জন্য এই বিষয়ের উপর আরো বিস্তারিত লেখা থাকবে। তাই আমাদের বাংলাভূমি সাইটে নিয়মিত চোখ রাখুন। এই লেখাটি অনেকের কাজে লাগতে পারে তাই লেখাটি যতটুকু সম্ভব শেয়ার করুন, যাতে করে অনেকে এই লেখা থেকে শিক্ষা নিয়ে স্বাস্থ্যসেবা সম্পর্কে অনেক কিছু জানতে পারবেন।  

 

স্বাস্থ্যসেবা  নিয়ে আরো অনেক লেখা পেতে আমাদের সাইটের অন্য লেখাগুলি দেখুন। আমাদের লেখা ভালো লাগলে বা যেকোন মন্তব্য আমাদের ফেসবুক পাতায় লিখুন। আমরা আপনার মন্তব্যের সর্বোচ্চ গুরুত্ব দেবো। 

Leave a Comment