2022 চক বানানোর ব্যবসা কিভাবে শুরু করবেন | 2022 Chalk Making Business Idea in Bengali

Chalk Making Business Idea 2022 (চক বানানোর ব্যবসা 2022): How to Start Chalk Making Business in India | Chalk Making Business Idea in Bengali | Chalk Making Business Plan 2022 in Bengali.

Chalk Making Business in Bengali 2022: ভারতের বেশিরভাগ স্কুল কলেজে বিশেষ করে পশ্চিমবঙ্গে ব্ল্যাকবোর্ডে লেখার জন্য চক ব্যবহার করা হয়ে থাকে। স্কুল এবং কলেজের ক্লাস নেওয়ার জন্য এবং তার সাথে সাথে ছাত্র-ছাত্রীদের বোঝানোর জন্য ব্ল্যাকবোর্ডে শিক্ষকেরা চক দিয়ে বিভিন্ন রকমের শিক্ষাদান দিয়ে থাকেন।

ব্ল্যাকবোর্ডের চক এর ব্যবহার এর সুবিধা হল, লেখার পর খুব সহজেই লেখাগুলি মুছে ফেলা যায়। তার সাথে সাথে স্কুল কলেজের সংখ্যা দিন দিন বেড়েই চলেছে, সে ক্ষেত্রে আপনি এই চক বানানোর ব্যবসাটাকে ছোট আকারে শুরু করতে পারেন।

Best Ways to Start Chalk Making Business in Bengali
Best Ways to Start Chalk Making Business in Bengali

আর এই ব্যবসার মধ্যে দিয়ে আপনি একটি ভাল রকমের রোজগার তৈরি করতে পারবেন। চলুন এই ব্যবসা সম্পর্কে একটু জানা যাক:

ব্ল্যাকবোর্ডের চক বানানোর ক্ষেত্রে র মেটিরিয়ালস অথবা কাঁচামাল:

চক বানানোর ব্যবসাতে যে কাঁচামাল গুলি প্রয়োজনীয়তা হবে সেগুলি হল:

#১) প্লাস্টার অফ প্যারিস: ৬-১০ টাকা প্রতি কিলোগ্রাম

#২) কেরোসিন ৩৫-৪৫ টাকা প্রতি লিটার।

#৩) জল

#৪) বিভিন্ন রকমের রং।

এই চক বানাতে গেলে যে মেশিন এর প্রয়োজন হবে:

চক বানানোর জন্য বিশেষ ধরনের একরকমের মেশিন পাওয়া যায়, এই মেশিনের সাহায্যে যে কোন ব্যক্তি খুব সহজেই চক বানাতে পারবেন। যদি আপনি খুব ছোট আকারে এই ব্যবসাটি শুরু করতে চান, তাহলে আপনার কোন রকম মেশিন এর প্রয়োজনীয়তা পড়বে না।

আর যদি বড় আকারে এই ব্যবসা শুরু করতে চান সে ক্ষেত্রে বিভিন্ন রকমের মেশিন পাওয়া যায়, সেগুলি নিতে পারেন। এবং মেশিন গুলো খুব সস্তায় পেয়ে যেতে পারেন।

চক বানানোর মেশিনের দাম:

চক বানানোর মেশিন এর দাম কম করে ৬০-৮০ হাজার টাকা হতে পারে। তাছাড়া এর থেকেও বেশি দামের মেশিন পাওয়া যায়, সে ক্ষেত্রে আপনি প্রথমে কম দামের মেশিন দিয়ে ব্যবসা শুরু করতে পারেন।

তাছাড়া ডাইস অথবা ছাঁচ ও পাওয়া যায় সেগুলো তেও আপনি চক বানাতে পারবেন। এর দাম ২-৪হাজার টাকা মত পড়বে।

সেক্ষেত্রে ছোট করে ব্যবসা শুরু করতে গেলে প্রথমে ডাইস অথবা ছাঁচ দিয়ে চক বানিয়ে শুরু করতে পারেন।

চক বানানোর মেশিন কোথায় থেকে কিনবেন:

ডাইস অথবা ছাঁচ  ও মেশিন এবং বিভিন্ন রকমের সামগ্রি আপনি এই ওয়েবসাইট থেকেও কিনতে পারেন:-

Chalk Making Moulds Dia Click Here
Chalk Making Machine Click Here

চক বানানোর প্রক্রিয়া:

চক বানানোর পদ্ধতিতে ডাইস অথবা মেশিন দিয়ে দু রকম ভাবেই আপনি তৈরি করতে পারেন। তাছাড়া প্রথমে যখন আপনি এই ব্যবসাটি শুরু করছেন, সে ক্ষেত্রে ডাইস ব্যবহার করে চক বানানোর প্রক্রিয়া দিয়ে শুরু করে নেওয়াটাই সবথেকে ভালো। তারপর ব্যবসা বাড়ার সাথে সাথে মেশিনের ব্যবহার করতে পারেন।

ডাইস অথবা ছাঁচের মাধ্যমে চক তৈরি:

১) সবার প্রথমে আপনাকে প্লাস্টার অফ প্যারিস জলের সাথে মিশিয়ে একটি পেস্ট বানাতে হবে।

২) তারপর ডাইস অথবা ছাঁচে কেরোসিন দিয়ে ভালো করে মুছে সেক্ষেত্রে ব্রাশ ব্যবহার করতে পারেন, যাতে চক খুব সহজেই বেরিয়ে আসতে পারে, ডাইস অথবা ছাঁচের গায়ে জড়িয়ে না যায়।

৩) এরপর একটি পাত্রে ওই প্লাস্টার অফ প্যারিসের মিশ্রণটি নিয়ে ডাইস অথবা ছাঁচের মধ্যে ঢালতে হবে, সব ছাঁচের মধ্যে সমানভাবে এই মিশ্রণটি ঢালতে হবে। তারপর কম করে কুড়ি মিনিট এভাবে ছেড়ে দিন, যাতে চকগুলি ভালোভাবে জমে যায়।

৪) যদি আপনি কালারফুল অথবা রংবেরঙের চক বানাতে চান, সেক্ষেত্রে প্লাস্টার অফ প্যারিসের যে মিশ্রণটি বানিয়েছেন তার সাথে রঙ মিলিয়ে নিতে হবে তারপর প্রক্রিয়া একই রকম।

৫) একবারের চক বানানো তে আপনার ডাইস অথবা ছাঁচের আকার অনুযায়ী চকের সংখ্যা হবে। কোন মিডিয়াম আকারের ছাঁচের মাধ্যমে ২০০ থেকে ৩০০ চক বানাতে পারবেন আপনি।

৬) তারপর ডাইস এর ভেতর থেকে চক গুলো বার করে রোদে শুকাতে হবে। একবার রোদে শুকানোর পর আপনি যে চকগুলি বানিয়েছেন সেগুলি প্যাকিং এর জন্যে একেবারে রেডি।

৭) তবে চক বানানোর সময় যে খেয়ালটা আপনাকে রাখতে হবে, সেটা হল প্লাস্টার অফ প্যারিস সব সময় ভালো কোয়ালিটির নিতে হবে, না হলে চক খুব তাড়াতাড়ি ভেঙে যেতে পারে। সে ক্ষেত্রে আপনার ব্যবসার লোকসানও হতে পারে।

৮) ১০০ টি চক বানাতে গেলে আপনার লাগতে পারে ২০০ গ্রাম মত প্লাস্টার অফ প্যারিস।

মেশিনের মাধ্যমে চক তৈরি:

১) মেশিনের মাধ্যমে খুব সহজেই চক বানানো যায়, সে ক্ষেত্রে মেশিনের মাধ্যমে চক বানানো টা সম্পূর্ণ ডাইসের মাধ্যমে চক বানানোর মতই।

২) মেশিনের মাধ্যমে চক বানানোর জন্য বেশি কাজ করার প্রয়োজন হয়না। আর খুব কম সময়ের মধ্যে  অনেকগুলি চক বানানো হয়ে যায়।

চক বানানোর ব্যবসাতে মোট খরচ পড়বে:

ছোট আকারে যদি এই ব্যবসা শুরু করতে চান, সে ক্ষেত্রে ৮-১০ হাজার টাকা আপনার লাগতে পারে। এই টাকা দিয়ে আপনি ভালো কোয়ালিটির  ডাইস, ম্যাটেরিয়ালস গুলি কিনে নিতে পারবেন।

আবার যদি আপনি বড় আকারে এই ব্যবসাটি শুরু করতে চান, সে ক্ষেত্রে আপনার বাজেট অথবা ব্যবসার আকার অনুযায়ী এক লাখ টাকা পর্যন্ত ইনভেস্ট করতে হতে পারে আপনার। সেক্ষেত্রে আপনার এই ব্যবসাটি অনেক বড় ধরনের হবে।

চক বানানোর ব্যবসার রেজিস্ট্রেশন:

ব্যবসাটিকে বড় মাপের করতে গেলে আপনাকে এই ব্যবসার রেজিস্ট্রেশন করানো টা অবশ্যই জরুরি। এছাড়াও আপনাকে আর ওসি অর্থাৎ ট্রেড লাইসেন্স ও করিয়ে নিতে হবে।

আপনি আপনার ব্যবসার নাম এর উপর প্যান কার্ড থেকে ব্যাংক একাউন্ট বানিয়ে নেওয়া টা জরুরী। আপনি যদি চান সেক্ষেত্রে এস এস আই ও করে নিতে পারেন।

চক এর প্যাকিং:

চক তৈরি করে নেওয়ার পর সবচেয়ে যে বিষয়টি জরুরি, সেটি হল ভালোভাবে এই চকগুলোকে প্যাকিং করা। কেননা একটু চাপ পড়লে চকগুলি ভেঙে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে।

এগুলো কে এমনভাবে প্যাকিং করতে হবে যে কোন রকম চাপ যেন চকের গায়ে না পড়ে এবং ভেঙে যাওয়ার ভয় না থাকে। এর জন্য আপনার কাঠের বাক্স এর প্রয়োজন হবে।

এক একটি বক্সে অথবা প্যাকেটে ১০০ টা করে চক আপনি প্যাক করতে পারবেন। তাছাড়া আপনি যদি এই প্যাকেটের গায়ে অথবা বাক্সের গায়ে আপনার  ব্যবসার নাম যদি দিয়ে থাকেন সেক্ষেত্রে মার্কেটিং এর সাথে সাথে আপনার এই চকের বিজ্ঞাপন টাও কিন্তু আপনি দিয়ে ফেলবেন।

চক বানানোর ব্যবসার মার্কেটিং:

এই ব্যবসার ক্ষেত্রে আপনাকে মার্কেটিং এর জন্য স্কুল-কলেজ, বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, স্টেশনারি দোকান, ইত্যাদি বিভিন্ন জায়গায় আপনি এর মার্কেটিং করতে পারবেন। যদি আপনার বানানো চকের কোয়ালিটি অথবা গুনাগুন যদি অনেক ভাল হয়।

সে ক্ষেত্রে খুব কম সময়ের মধ্যে আপনার চক গুলো বিক্রি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। তার সাথে সাথে আপনার লাভবান হওয়ার সম্ভাবনা প্রবল থেকে যায়। তার সাথে সাথে আপনার ব্র্যান্ডের লোগো চকের বক্সের গায়ে ছাপিয়ে নিতে পারেন, সে ক্ষেত্রে মার্কেটিং টা বেশ ভালই হয়।

বসে না থেকে বেকারত্ব দূর করার জন্য ছোট ছোট উদ্যোগ নিয়ে ব্যবসা করলে লাভবান হতে পারবেন। সে ক্ষেত্রে চক বানানোর এই ব্যবসাটি লাভ দায়ক।

কেননা দিনবদলের সাথে সাথে চক এবং বিভিন্ন রঙের চক এর চাহিদা বেড়েই চলেছে। এই চাহিদা কখনোই কমবে না। দিন দিন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলির সংখ্যাও যেমন বাড়ছে তার সাথে সাথে ব্ল্যাকবোর্ডে লেখার জন্য এই চক এর চাহিদাও পাল্লা দিয়ে বাড়ছে।

ব্ল্যাকবোর্ড এর চক বানানোর ব্যবসাতে লাভ:

এই ব্যবসাতে প্রতিমাসে প্রায় ১০ থেকে ১২ হাজার টাকা পর্যন্ত আপনি আয় করতে পারবেন। যদি মেশিন বড় আকারের হয় আপনার চক তৈরি টাও অনেক পরিমানে হবে সে ক্ষেত্রে আপনার আয় দ্বিগুণ হতে পারে।

তাছাড়া এই ব্যবসা থেকে লাভ পাওয়ার জন্যে মার্কেটিংয়ের উপরে আপনাকে বিশেষ খেয়াল রাখতে হবে।

[democracy id=”6″]

Leave a Comment