সবসময় মন ভাল রাখার ৬ টি উপায় | 6 Ways to Always Have a Good Mind

আমাদের মন যা কিনা আবহাওয়ার মতই পরিবর্তনশীল। মন এই ভাল, তো এই খারাপ। কখনো প্রত্যাশায় উজ্জীবিত আবার নিমেষেই হতাশায় শেষ হয়ে যাওয়া আমাদের মনের বৈশিষ্ট্য।

আর মনের যদি এরকমই রকম সকম হয়, তাহলে তো মুশকিল। কারণ মন ভাল না থাকলে কোন কাজেই মন বসেনা, সব কাজেই ভুল হতে থাকে। যত দক্ষ ব্যক্তিই হোন না কেন, যদি তার মন ভাল না থাকে, তাহলে তার পক্ষে সুষ্ঠুভাবে কাজ করা সম্ভব হয়না।

মনের উপর যেহেতু আমাদের শরীর ও কর্মদক্ষতা নির্ভর করে সেহেতু, মন সবসময় ভাল রাখাটা অন্যান্য বৃহৎ স্বার্থেই খুব দরকারী একটি বিষয়।

মন বিভিন্ন কারণে খারাপ হয়, অতিরিক্ত কাজের চাপ, বিরতিহীন কাজ, ক্লান্তি, কোন কাজের ফলাফল সম্পর্কে অনিশ্চয়তা, কারো সাথে মনোমালিন্য, নিজের দক্ষতা সম্পর্কে সন্দেহ ইত্যাদি। এত এত কারণ রয়েছে মন খারাপ হওয়ার, তাহলে মন ভাল রাখা তো খুবই কঠিন একটি কাজ।

কিন্তু আদতে সেটা নয়, মানব মনের ধরন বড়ই অদ্ভুত, যত বড় কারণই থাক, সঠিকভাবে উজ্জীবিত হওয়ার কাজ করলে খুব দ্রুতই মন ভাল করা সম্ভব। এতে হতাশ ও হতোদ্যম অবস্থা থেকে খুব দ্রুত কর্মক্ষম অবস্থায় ফিরে আসা সম্ভব।

সুপ্রিয় পাঠক, আমাদের আজকের লেখার বিষয়বস্তু হচ্ছে সবসময় মন ভাল রাখার ৬ টি চমৎকার উপায়। যা দ্বারা সবসময় হাসি-খুশি কর্মদ্যম থাকা সম্ভব। চলুন প্রিয় পাঠক দেরী না করে মূল আলোচনায় যাওয়া যাক।

সবসময় মন ভাল রাখার ৬ টি চমৎকার উপায়:

১. হাটার অভ্যাস করুন

হাটার অভ্যাস মন ভাল রাখতে সাহায্য করে। এক জায়গায় বসে অথবা শুয়ে থাকলে অনেক ধরনের চিন্তা মাথায় আসে, সারাদিনের পাওয়া, না পাওয়া, ভবিষ্যত ইত্যাদি।

কিন্তু আপনি যদি সুন্দর মনোরম স্থানে বা বাসার ছাদ বা বাগানে কিছুক্ষণ হাটেন তাহলে আপনার এ জাতীয় চিন্তা মাথায় আসবে না। আসলেও চিন্তার প্রভাব আপনার মন খারাপ করতে পারবে না।

যখন মন ভাল করার প্রয়োজন হবে, তখনি সম্ভব হলে বাইরে কোথাও হাটতে যান, সাথে নিন জল ও ইয়ারফোন।

২. মোটিভেশনাল ভিডিও দেখুন

আমাদের সমাজে এখন অনেক স্যোশাল ইনফ্লুয়েন্সার আছেন। যারা একসময় জীবনে অনেক কিছুর মোকাবেলা করেছেন।

মানুষের হাজার কটাক্ষ, টিটকারি অতিক্রম করে জীবনে প্রতিষ্ঠা পেয়েছেন। তারা তাদের অভিজ্ঞতার বর্ননা দিয়ে মানুষকে তাদের খারাপ সময় কাটিয়ে কাজে উৎসাহিত করতে বিভিন্ন ভিডিও শেয়ার করে থাকেন।

সবার ভিডিও অথবা ব্যক্তিত্ব হয়ত আপনার পছন্দ হবেনা। কিন্তু এরমধ্যে যাদেরকে আপনার পছন্দ তাদের ভিডিওগুলো দেখুন। আপনার অবশ্যই ভাল লাগবে।

৩. পোষা প্রানীর সাথে সময় কাটান

পোষা প্রাণীরা আমাদের খুবই প্রিয় হয়। আর তারা আমাদের খুবই ভক্ত হয়। দিনের একটা সময় যদি পোষা প্রানীদের সাথে কাটান, আপনার ভাল লাগার পরিমাণ অনেক বেড়ে যাবে৷

ওদের ছোটাছুটি,খেলাধুলা, আদর, নানান উদ্ভট কর্মকান্ড, ওদের আনুগত্য আপনার মন ভাল রাখবে। চাইলে ওদের কর্মকান্ড, খাবারের নিয়ম, চিকিৎসা নিয়ম নিয়ে ব্লগে লিখতে পারেন অথবা ভিডিও ক্লিপ বানিয়ে নিজের স্যোশাল মিডিয়া একাউন্টে আপলোড করতে পারেন।

এটা আপনার মন ভাল রাখার পাশাপাশি পরিচিতি বাড়াবে, সেই সাথে অর্থ আয় এবং অন্যদেরও পোষা প্রাণী পুষতে বিভিন্ন তথ্য জানায় উপকার হবে।

৪. নতুন কিছু শেখার করার চেষ্টা করুন

মানুষের সবচেয়ে বড় শক্তি হচ্ছে তার জ্ঞান, তার কর্মদক্ষতা। যে যত কাজে পারদর্শী, তার আত্নবিশ্বাস তত বেশী। এজন্য সবসময় নতুন কিছু শেখার চেষ্টা করুন। আর শেখার বিষয়বস্তু আপনার আগ্রহ এবং জানা না জানার উপরই নির্ভর করবে।

যেমন আপনি যদি ভাল ছবি আকতে পারেন, অথবা ছবি আঁকায় উৎসাহ থেকে থাকে তাহলে সহজে বিভিন্ন ভ্যারাইটিজ ছবি আকার জন্য বিভিন্ন ভিডিও দেখতে পারেন। এখানে খুব সহজে চমৎকার ছবি আকার ট্রিকস দেখানো হয়।

আপনি যদি রান্না করতে ভালবাসেন তাহলে নতুন কোন রান্না শিখে নিজে খেতে পারেন, পরিবারের মানুষকে খাওয়াতে পারেন। এমন ভাবে সাজগোজ, সেলাই, ঘর সাজানো, মানবসেবা বা যেকোন কাজের নতুন কিছু শিখে সেগুলো নিজের জীবনে অথবা পরিচিত কাউকে শেখানোর কাজে ব্যবহার করতে পারেন।

যখন নিজের জ্ঞান আপনার এবং আপনার পরিচিতদের কাজে আসবে তখনি এটা আপনার মনোবল বাড়িয়ে দেবে আর মনও ভাল রাখবে।

৫. বয়োজ্যেষ্ঠদের সাথে সময় কাটান

আমাদের পরিবারে বা পরিচিতদের ম মধ্যে যারা বৃদ্ধ হয়েছেন তাদের চিন্তাভাবনার সাথে অনেক সময় আমাদের মেলে না বলে আমরা তাদেএ এড়িয়ে চলতে চাই।

কিন্তু তারা আমাদের চেয়ে শুধু বয়সে নয় অভিজ্ঞতায়ও বড়। তারা সমস্যার সমাধান এবং জীবনকে কিভাবে সহজ করে দেখতে হয় তা সম্পর্কে আমাদের চেয়ে অনেক বেশী জানেন। তাই সময় পেলেই তাদের সাথে সময় কাটান, তাদের জীবনের গল্প শুনুন, সেখান থেকে কিছু শেখার চেষ্টা করুন।

কারণ বৃদ্ধ একসময় আমরাও হব, আর তরুণরা তখনও আমাদের সেকেলে মনে করবে। কিন্তু নিজেদের মধ্যে যদি বয়োজ্যেষ্ঠদের সম্মান করা ও মেনে চলার অভ্যাস থাকে তাহলে পরিবার ও পরিচিতদের মধ্যেও সেই অভ্যাস গড়ে উঠবে।

আর এরকম ভাল কাজের সাথে থাকলে মনও সবসময় ভাল থাকবে।

৬. নিজেকে সময় দিন

সারাদিন কাজ, পড়া, সংসারের কাজের চাপে নিজেকে দেওয়ার মত সময়ের অভাব হয়ে যায়। দিনের পর দিন নিজের যত্ন না নিলে নতুন কিছু না শিখলে, নিজের পছন্দের কাজ না করলে নিজের আত্নবিশ্বাস আর আনন্দ হারিয়ে যেতে বসে।

এজন্য যত কাজই থাক প্রতিদিন কমপক্ষে ১-২ ঘন্টা সময় নিজের জন্য বরাদ্দ রাখুন। এ সময়ে শরীরচর্চা করুন। রুপচর্চা, গান শোনা, আয়নার সামনে নিজেকে দেখা বা নিজের একান্ত পছন্দের যেকোন কাজ করুন।

এগুলো আপনার মন ভাল রাখবে। নিজেকে সময় না দিতে পারলে শুধু দায়িত্ব-কর্তব্য করতে থাকলে কখনোই মন ভাল থাকবে না। স্থায়ী বিষন্নতায় ভুগতে হবে। তাই নিজেকে অবশ্যই সময় দিন।

উপসংহার

মন ভাল থাকলে সব কাজ করতেই ভাল লাগে। আর মন যদি ভাল না থাকে তবে কোন কাজ করতেই ভাল লাগেনা।

আপনি যদি নিজের মন ভাল রাখার বিষয়টি নিশ্চিত করতে পারেন, তাহলে যেকোন কাজেই দ্রুত সফল হবেন। মনোযোগ এবং উদ্যমেও আপনি এগিয়ে থাকবেন।

তাই উপরিউক্ত উপায় ছাড়াও আপনার আগ্রহ আছে এমন যেকোন কাজে মনোনিবেশ করে মন ভাল রাখতে পারেন সবসময়।

আশা করি পোস্টটি মন ভাল রাখতে আপনাদের জন্য সহায়ক হবে। এ বিষয়ে বিস্তারিত জানার অথবা কোন মতামত দেওয়ার থাকলে কমেন্ট করে আমাদের জানাতে পারেন।

আমরা আপনার মতামত গুরুত্বসহকারে নিয়ে অবশ্যই দ্রুত উত্তর দেওয়ার চেষ্টা করব। আজকের মত এখানেই শেষ করছি।

ধন্যবাদ সবাইকে।

Leave a Comment