ব্র‍্যান্ড প্রোমোটিং কি? অনলাইনে ব্র‍্যান্ড প্রোমোটার হবেন কিভাব

বর্তমানে কাজের ক্ষেত্র অনেক প্রসারিত হচ্ছে। আগে যেখানে পণ্য ও সেবা শুধু দোকান বা মার্কেটেই পাওয়া যেত, এখন ইন্টারনেটের যুগে অনলাইনেই সেগুলো কেনা সম্ভব হচ্ছে।

কোন দোকানে গেলে দোকানদার বা সেলসম্যান আমাদের পণ্য সম্পর্কে বিস্তারিত জানান, পণ্যের গুণাগুণ,  দাম, কোয়ালিটি, আর কি কি রংয়ের পণ্য আছে, কিভাবে পরলে ভাল লাগবে, কাদের পরলে বেশী ভাল লাগবে ইত্যাদি সম্পর্কে বিস্তারিত জানিয়ে থাকে।

কিন্তু দোকানে গেলে একটা সমস্যা হয়, অনেক সময় অনেকগুলো জিনিস দেখার পরেও আমাদের পছন্দ হয়না, কিন্তু সেলসম্যানদের খাটুনি হয়েছে বিধায় আমরা পণ্যটি কিনে ফেলি। এই অসুবিধা দূর করেছে অনলাইন ব্র‍্যান্ড প্রোমোটাররা।

ব্যান্ড প্রোমোটিং কি?

ব্র‍্যান্ড প্রোমোটিং হচ্ছে কোন পণ্য বা সেবার মার্কেটিং করা। আর ব্র‍্যান্ড প্রোমোটার হিসেবে বোঝায় তাদেরকে যারা অনলাইনে লাইভে এসে পণ্যের প্রোমোশন করে থাকে, পণ্যের গুণাগুণ, দাম, কালার, কম্বিনেশন, ইত্যাদি আমাদের জানিয়ে থাকে।

এখানে পণ্য পছন্দ হলেই কেবল আপনি অর্ডার কনফার্ম করবেন, নাহলে এটা চিন্তা করতে হবেনা যে, অনেক পণ্য দেখেছেন, আর কিভাবে দেখবেন। ব্র‍্যান্ড প্রোমোটারদের কাজ হচ্ছে নিজের প্রতিষ্ঠানের পণ্য বা সেবা বিক্রয়ের উদ্দেশ্য লাইভে সকলের সামনে উপস্থাপন করা। সেই সাথে পণ্য সম্পর্কে যাবতীয় তথ্য প্রদান করা।

লাইভ চলাকালে কমেন্ট দেখে বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর করা। যাতে ক্রেতা দোকানে গিয়ে দেখার মতই পণ্য দেখতে পারেন। ব্র‍্যান্ড প্রোমোটার কি এটা জানা হল। এবার আমরা জানব কিভাবে ব্র‍্যান্ড প্রোমোটার হওয়া যায়। চলুন প্রিয় পাঠক জেনে নেওয়া যাক।

ব্র‍্যান্ড প্রোমোটার কিভাবে হবেন জেনে নিন

১. পণ্য সম্পর্কে বিস্তারিত ধারণা

কোন বিষয় নিয়ে অন্যদেরকে তখনই বলতে পারবেন যখন সেটা আপনি ভালভাবে জানবেন। তাই পণ্য সম্পর্কে প্রোমোট করার আগে পণ্য সম্পর্কে ভালভাবে জেনে নিন।

যাতে লাইভে পণ্য সম্পর্কে খুটিনাটি আপনি বলতে পারেন। কারণ লাইভে কমেন্ট আসলে পণ্য সম্পর্কে অনেক কিছুই সুন্দরভাবে আপনাকে জানাতে হবে।

২. চটপটে ও স্মার্ট হতে হবে

পণ্যের লাইভে এসে সবার সামনে কথা বলতে গেলে অবশ্যই আপনাকে চটপটে হতে হবে। কারণ আপনাকে একই সাথে অডিয়েন্সদের স্বাগতম জানাতে হবে, তাদের সাথে গল্প করতে হবে, পণ্য দেখাতে হবে, কমেন্ট এর উত্তর কথার মাধ্যমে দিতে হবে এবং পণ্যগুলো দেখাতে হবে।

তাই আপনি ধীরস্থির হলে লাইভের স্বল্প সময়ে এতকিছু করতে পারবেন না। আর অবশ্যই সবার সামনে আপনাকে স্মার্টলি নিজেকে প্রেজেন্ট করতে হবে। স্বভাবে বা কথায়, আচার-আচরণে জড়তা থাকলে অন্যরা সময় ব্যয় করে আপনার লাইভ দেখবে না।

৩. গুছিয়ে কথা বলতে হবে

আপনি যদি কথাবার্তায় গোছালো না হন, তাহলে পণ্য সম্পর্কে এতকিছু বলা আপনার পক্ষে সম্ভব হবেনা, আর বললেও অডিয়েন্সরা সেটা বুঝবে না।

তাই আপনাকে কথাবার্তায় বাকপটু হতে হবে। পণ্যের যাবতীয় গুনাবলি, দাম, কমেন্টের উত্তর,  দর্শকদের সাথে গল্প সমানভাবে চালিয়ে যেতে হবে।

৪. বিনয়ী হতে হবে

অনেক ব্র‍্যান্ড প্রোমোটাররাই এ বিষয়টি মাথায় রাখেন না, যে তাদেরকে পণ্যের প্রোমোশন করতে গেলে অবশ্যই বিনয়ের সাথে করতে হবে। কারণ মানুষ পণ্য কিনতে গেলে প্রশ্ন করবে, অনেক সময় অনেক বাড়তি কথাও বলতে পারে, কিন্ত সেটা বিনয়ের সাথে ম্যানেজ করতে হবে।

আপনি যত বিনয়ী হবেন, তত বেশী জনপ্রিয়তা অর্জন করতে পারবেন। আপনার থেকেই সবাই পণ্য কিনবে। বা আপনার প্রোমোট করা ব্র‍্যান্ড থেকেই কিনবে।

৫. কমেন্টে নেগেটিভ রিয়্যাক্ট করবেন না

সব মানুষ একরকম হয়না। সবাই আপনার ব্যাপারে একই রকম ধারনা করবে না। ব্যক্তিগত সাজগোজ, আচরণ, পণ্য বা অভিব্যক্তি নিয়েও আপনি ট্রলের স্বীকার হতে পারেন। এটাতে যথাসম্ভব রিয়্যাক্ট করা থেকে বিরত থাকুন। ভাল কমেন্টের উত্তর দিন।

আর যদি কমেন্টের রিপ্লাই দিতেই হয়, বিনয়ের সাথে বুঝিয়ে বলুন। যারা ট্রলের বা বুলিংয়ের স্বীকার হয়ে অতিরিক্ত রিয়্যাক্ট করেন তারা ব্র‍্যান্ড প্রোমোটার হিসেবে নাম করতে পারেন না। কারণ প্রোমোটিং মানে শুধুই পণ্য নিয়ে সামনে আসা নয়, পণ্যের ব্যাপারে যাবতীয় বলা, নিজের ইমেজ অভিব্যক্তি দিয়ে পণ্যের ব্যাপারে ক্রেতাদের আগ্রহী করে তোলা।

আপনি যদি বুলিংয়ের স্বীকার হয়েও চুপ থাকেন তাহলে আপনার হয়ে অডিয়েন্সরাই উত্তর দেবে, এবং আপনার জনপ্রিয়তা বাড়তেই থাকবে। অন্যান্য প্রতিষ্ঠানের হয়েও আপনি ব্র‍্যান্ড প্রোমোট করার অফার পাবেন। এতে প্রচুর অর্থ প্রতিমাসে আয়ের সুযোগ পাবেন।

৬. রুচিশীল সাজসজ্জা

ব্র‍্যান্ড প্রোমোটার হতে হলে আপনাকে রুচিশীল পোশাক ও সাজসজ্জা করতে হবে। এতে আপনাকে আকর্ষনীয় লাগবে।

মানুষ সবসময়ই সুন্দর মানুষ বা সুন্দরভাবে সবকিছু উপস্থাপন করা পছন্দ করে। আপনি সুন্দর কিনা সেটা বড় নয়, আপনার উপস্থাপন সুন্দর কিনা, সেটাই মুখ্য বিষয়।

উপসংহার

অনলাইনে ব্র‍্যান্ড প্রোমোটার হওয়া মানেই পণ্য বিক্রয় সংক্রান্ত যাবতীয় কাজ করা। মানুষ অনলাইন থেকে তখনই পণ্য ক্রয়ে আগ্রহী হয়, যখন তারা পণ্যের ব্যাপারে ভালভাবে জানতে পারে। আর এই কাজটিই হচ্ছে ব্র‍্যান্ড প্রোমোটারের।

আপনি যদি নিজের প্রতিষ্ঠানের ব্র‍্যান্ড প্রোমোটিং সুন্দরভাবে করতে পারেন, তাহলে অন্য প্রতিষ্ঠান বা অনলাইন শপ থেকেও অনেক অফার পাবেন। পরিশ্রমী ও বিনয়ী হলে ব্র‍্যান্ড প্রোমোটিং হতে পারে খুবই লাভজনক একটি পেশা।

সুপ্রিয় পাঠক আশা করি, পোস্টটি আপনাদের উপকারে আসবে। এ বিষয়ে কোন মতামত বা প্রশ্ন থাকলে আমাদের কমেন্ট করতে পারেন। আমরা অবশ্যই তথ্য জানিয়ে আপনাকে সাহায্য করার চেষ্টা করব। আজকের মত এখানেই শেষ করছি। ধন্যবাদ সবাইকে।

Leave a Comment