শহীদ দিবস 2023 তারিখ ও সময় | Shaheed Diwas 2023 Date & Muhurat

শহীদ দিবস 2023 তিথি ও সময় ভারতীয় সময় অনুসারে। কবে পড়েছে এবছরের শহীদ দিবস 2023? শহীদ দিবসর শুভ সময় কখন? জানুন 2023 শহীদ দিবসর মুহূর্ত ও কেনাকাটার শুভ মুহূর্ত এবং তাৎপর্য। এই বছরের কবে শহীদ দিবস? জেনে নিন কেনাকাটার পাশাপাশি উৎসবের শুভ সময় ও মুহূর্ত। এছাড়াও শহীদ দিবসর তাৎপর্য, পূজা বিধি এবং এই সময় কি কাজ করা উচিৎ ও কি না করা উচিৎ জানুন সবকিছু।

শহীদ দিবস তারিখ ও সময় | Shaheed Diwas Date & Muhurat
শহীদ দিবস 2023 তারিখ ও সময় | Shaheed Diwas 2023 Date & Muhurat

শহীদ দিবস 2023 (Shaheed Diwas 2023): ভারতের তিনজন অসাধারন বিপ্লবীর প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে পালিত হয় শহীদ দিবস, যাদের ফাঁসিতে ঝুলিয়ে দেওয়া হয়েছিল। ব্রিটিশরা ভগৎ সিং শিবরাম রাজগুরু এবং সুখদেব থাপার কে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছিল। সেই কারণে তাদের মৃত্যুর দিন কে শহীদ দিবস হিসেবে পালন করা হয়।

এই বছর শহীদ দিবস 2023 কবে?

Shaheed Diwas
23 March 2023
Thursday

শহীদ দিবসের বাংলায় তারিখ

শহীদ দিবস
২৩ মার্চ ২০২৩
বৃহস্পতিবার

 

পাঞ্জাব সরকার ২৩ শে মার্চ একটি সরকারি ছুটি ঘোষণা করেছে, যা কিনা ভগত সিং, সুখদেব থাপার এবং শিবরাম রাজগুরু নামে তিন স্বাধীনতা সংগ্রামীর শহীদ দিবস। পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী  এই উপলক্ষে বলেছেন পাঞ্জাবের মানুষ শহীদ ভগৎ সিংকে তার খটকার কালাম গ্রামে গিয়ে শ্রদ্ধা জানাতে পারেন।

শহীদ দিবস 2023: 

এই দিনটি ১৯৩১ সালে ২৩ শে মার্চ, লাহোর, (পাকিস্তান) ভগৎ সিং, সুখদেব থাপার এবং শিবরাম রাজগুরু মারা যাওয়ায় বছরকে শহীদ দিবস হিসেবে ঘোষণা করা হয়। আর সেই থেকে এই দিনটিকে অর্থাৎ ২৩ শে মার্চ  একটি শহীদ দিবস হিসেবে পরিচিত।

এই তিনজন বীর সন্তান ভারতের তরুণদের অনুপ্রেরণার উৎস, খুবই অল্প বয়সে তারা এগিয়ে এসেছেন স্বাধীনতার জন্য এবং বীরত্বের সাথে যুদ্ধ করেছেন দেশকে স্বাধীন করার লক্ষ্যে। তাই এই তিন বিপ্লবীর প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে ২৩ শে মার্চ এই দিনটিতে পালিত হয় শহীদ দিবস।

আমাদের মাতৃভূমি ভারতবর্ষকে স্বাধীন করার জন্য অনেক বীর সন্তান জীবনকে বলিদান দিয়েছেন। শহীদ দিবস ভারতের বেশ কয়েকটি তারিখে পালন করা হয়। কোন একটি নির্দিষ্ট দিনে শহীদ দিবস পালন করা হয় না, ভারতের শহীদ দিবস হিসেবে আলাদা আলাদা ছয়টি দিবস কে ঘোষণা করা হয়েছে। যারা জাতির জন্য নিজের জীবন কে উৎসর্গ করেছেন তাদের শহীদ  হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়া হয়।

দেশের বীর সন্তানরা এবং বীরাঙ্গনারা তাদের অমূল্য জীবন ভারতকে স্বাধীন করার জন্য উৎসর্গ করে গিয়েছেন। তাদের উৎস্বর্গীকৃত জীবনের উদ্দেশ্যে শ্রদ্ধা জানানোর জন্য এই শহীদ দিবস পালন করা হয়। তাদেরকে শ্রদ্ধা জানানোর জন্য আমরা কিই বা করতে পারি ! সেই কারণে তাদের আত্ম বলিদান দেওয়ার দিনকে শহীদ দিবস হিসেবে পালন করে,  তাদেরকে স্মরণ করে থাকি এবং সশ্রদ্ধ প্রণাম জানিয়ে থাকি।

Leave a Comment