গুরু পূর্ণিমা 2024 তারিখ ও সময় | Guru Purnima 2024 Date & Muhurat

গুরু পূর্ণিমা 2024 তিথি ও সময় ভারতীয় সময় অনুসারে। কবে পড়েছে এবছরের গুরু পূর্ণিমা 2024? গুরু পূর্ণিমার শুভ সময় কখন? জানুন 2024 গুরু পূর্ণিমার মুহূর্ত ও কেনাকাটার শুভ মুহূর্ত এবং তাৎপর্য। এই বছরের কবে গুরু পূর্ণিমা? জেনে নিন কেনাকাটার পাশাপাশি উৎসবের শুভ সময় ও মুহূর্ত। এছাড়াও গুরু পূর্ণিমার তাৎপর্য, পূজা বিধি এবং এই সময় কি কাজ করা উচিৎ ও কি না করা উচিৎ জানুন সবকিছু।

গুরু পূর্ণিমা তারিখ ও সময় | Guru Purnima Date & Muhurat
গুরু পূর্ণিমা 2024 তারিখ ও সময় | Guru Purnima 2024 Date & Muhurat

গুরু পূর্ণিমা 2024 (Guru Purnima 2024): হিন্দু এবং বৌদ্ধ ধর্মে গুরু পূর্ণিমার বিশেষ তাৎপর্য রয়েছে। হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের বিশ্বাস অনুসারে এই তিথিতে মনি পরাশর ও সত্যবতীর ঘরে মহাভারতের রচয়িতা মহর্ষি বেদ জন্মগ্রহণ করেছিলেন। তাই এই দিনে বেদ ব্যাসের জন্ম জয়ন্তী হিসেবেও পালন করা হয়

এই বছর গুরু পূর্ণিমা 2024 কবে?

Guru Purnima
21 July 2024
Sunday

Purnima Muhurat Start
5:50 PM on 20 July 2024
Purnima Muhurat End
3:50 PM on 21 July 2024

গুরু পূর্ণিমার বাংলায় তারিখ

গুরু পূর্ণিমা
২১ জুলাই ২০২৪
রবিবার

পূর্ণিমা মুহূর্ত শুরু
২০ জুলাই ২০২৪, বিকাল ৫ঃ৫০ টায়
পূর্ণিমা মুহূর্ত শেষ
২১ জুলাই ২০২৪, বিকাল ৩ঃ৫০ টায়

 

গুরু পূর্ণিমার উৎপত্তি বৈদিক যুগে পাওয়া যায়, এই অনুষ্ঠানটি হিন্দু, জৈন এবং বৌদ্ধরা গুরুদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করার জন্য একটি দিন হিসেবে পালন করে থাকেন। গুরু পূর্ণিমাকে বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বীদের জন্য একটি শুভ উপলক্ষ্য হিসেবে বিবেচনা করা হয়। বিশ্বাস করা হয় যে, এই দিনে ভগবান বুদ্ধদেব উপদেশ দিয়েছিলেন। কারণ এই দিনেই মহাভারতের লেখক বেদ ব্যাস জন্মগ্রহণ করেছিলেন।

গুরু পূর্ণিমার পূজার পদ্ধতি 2024:

প্রতিটি পূজার জন্য কোন রীতিনীতি মেনে পূজা করতে হয়। তেমনি এই গুরু পূর্ণিমার দিন যদি আপনি পূজা অর্চনা করতে চান, তাহলে নিচে দেওয়া এই সমস্ত রীতিনীতি গুলি মেনে আপনাকে পূজা করতে হবে:-

  • গুরু পূর্ণিমার দিন খুবই ভোরে উঠে ঘরবাড়ি পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন করে স্নান সেরে নতুন এবং পরিষ্কার কাপড় পড়তে হবে।
  • একটি পরিষ্কার জায়গায় অথবা উপাসনালয় তে একটি সাদা কাপড় বিছিয়ে একটি ব্যাস পীঠ তৈরি করুন।
  • বেদ ব্যাস এর একটি মূর্তি অথবা ছবি সেখানে রাখুন, এরপর চন্দন, ফুল, ফল এবং প্রসাদ নিবেদন করুন।
  • এই দিনে বেদ ব্যাস এর সঙ্গে শুক্র দেব এবং শংকরাচার্যের মতো গুরুদেবেরও আবাহন করার যেতে পারে। তাই আপনি এটা করতেও ভুলবেন না।
  • শুধুমাত্র গুরুদেবই নয়, পরিবারের যারা বড় হয়েছেন যেমন বাবা, মা, ভাই, বোন যারা আপনাকে গুরু হিসেবে উপদেশ দিয়ে থাকেন ভালো কাজে, তাদেরকেও আপনি সম্মান জানাতে পারেন এবং তাদের থেকে আশীর্বাদ নিতে পারেন।

হিন্দুদের মত অনুসারে বেদ ব্যাস যিনি মহাভারত বেদ এবং পুরান রচনাগ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছিলেন তিনি আষাঢ় মাসে পূর্ণিমা তিথিতে জন্মগ্রহণ করেন। বেদ কে চারটি বিভাগের বিভক্ত করার জন্য ও পরিচিত, যেমন ধরুন ঋকবেদ, সামবেদ, যজুর্বেদ এবং অথর্ববেদ।

এই কারণেই বেদ ব্যাস কে হিন্দুদের দ্বারা জ্ঞানের প্রতীক এবং অন্যতম সেরা গুরু হিসেবে মনে করা হয়। উদাহরণ স্বরূপ বলা যেতে পারে, ভগবান শিব হিন্দু ভক্তদের দ্বারা মহাবীর এবং ইন্দ্রভুতি গৌতম কে জৈন ধর্মের অনুসারীরা এবং বৌদ্ধদের দ্বারা গৌতম বুদ্ধকে সম্মান করা হয় গুরু হিসেবে।

Leave a Comment