LIC Jeevan Lakshya Policy কি? কি লাভ এই পলিসি নিলে?

আমরা লাইফ ইন্স্যুরেন্স করার সময় অনেক সময় পুরোনো ও বৃহৎ লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানী খুঁজে থাকি। LIC বা লাইফ ইন্স্যুরেন্স করপোরেশন অফ ইন্ডিয়া তেমন একটি স্বনামধন্য ইন্স্যুরেন্স কোম্পানী।

লাইফ ইন্স্যুরেন্স করপোরেশন অফ ইন্ডিয়ার অনেকগুলি গ্রাহকপ্রিয় ইন্স্যুরেন্স প্ল্যান রয়েছে।

আমরা অনেকেই বিভিন্ন প্ল্যান সম্পর্কে না জানার কারনে ইন্স্যুরেন্স পলিসি নেয়ার সময় ঠিক বুঝতে পারিনা, কোন প্ল্যানটি নেয়া উচিত বা আমার জন্য কোন প্ল্যানটি সুবিধাজনক হবে।

তাই আমাদের পাঠকদের কথা ভেবে আমরা বিভিন্ন সময় নানা লাইফ ইন্স্যুরেন্স প্ল্যান নিয়ে আপনাদের সাথে আলোচনা করবো,

LIC Jeevan Lakshya Policy - Know Features, Benefits & Details
LIC Jeevan Lakshya Policy – Know Features, Benefits & Details

তারই ধারাবাহিকতায় আজ আমরা LIC Jeevan Lakshya Plan নিয়ে আলোচনা করবো।

আমরা জানার চেষ্টা করবো এই LIC Jeevan Lakshya Plan কি? এই LIC Jeevan Lakshya Plan পলিসি নিলে কিভাবে লাভবান হওয়া যায়?

LIC Jeevan Lakshya Plan কি ?

পরিবারের ও শিশুদের আর্থিক নিরাপত্তার কথা চিন্তা করলে LIC Jeevan Lakshya Plan সবচেয়ে ভালো ইন্স্যুরেন্স প্ল্যান।

এটা একটা সঞ্চয় এবং সেই সাথে ঝুঁকি বহন করে থাকে। ২০১৫ সালের মার্চ মাসে এই পলিসির শুরু হয়।

কোন কারনে এই পলিসির গ্রাহক মৃত্যুবরন করলে ইন্স্যুরেন্স পলিসি অনুযায়ী গ্রাহকের উত্তরাধিকারীকে বার্ষিক অথবা মাসিক আয়ের ব্যবস্থা করে দেবে যার ফলে মৃত্যুবরনকারী গ্রাহকের পরিবার আর্থিক সুবিধা লাভ করবে।

পলিসির গ্রাহক পলিসির মেয়াদকালীন সময় শেষ হলে এককালীন টাকাও পেয়ে থাকে। এই পলিসি অনলাইনে গ্রহন করা যায়না।

তাই গ্রাহককে ইন্স্যুরেন্স এজেন্টদের মাধ্যমেই এই পলিসি নিতে হয়, তবে গ্রাহক সরাসরি ব্রাঞ্চে গিয়ে ইন্সুরেন্স কর্মকর্তার মাধ্যমেও এই পলিসি নিতে পারেন।

LIC Jeevan Lakshya Plan এর বৈশিষ্ট্যঃ

আসুন দেখে নি Jeevan Lakshya Plan এর প্রধান প্রধান বৈশিষ্ট্য কি কি।

১) এই পলিসি নূন্যতম ১ লক্ষ টাকার করা যায় এবং সর্বোচ্চ কোন সীমা নেই। তবে এই পলিসির অংক হবে ১০ হাজার টাকার গুনিতক।

২) এই LIC Jeevan Lakshya Plan এর মেয়াদকাল হয় ১৩ বছর হতে ২৫ বছর পর্যন্ত। এই পলিসির প্রিমিয়াম মাসিক, ত্রৈমাসিক, ৬ মাসের বা বার্ষিক হতে পারে।

৩) এই LIC Jeevan Lakshya Plan এর প্রিমিয়াম Electronic Clearing Service (ECS) সুবিধার মাধ্যমে অনলাইনেও পরিশোধ করা যায়। তাই ব্যাংকে না গিয়েও সুবিধামত সময়ে প্রিমিয়াম পরিশোধ করা যায়।

৪) এই LIC Jeevan Lakshya Plan নূন্যতম ১৮ বছর বয়স হতে গ্রহন করা যায় এবং সর্বোচ্চ বয়স ৫০ বছর। ইন্স্যুরেন্স মেয়াদকাল শেষ হবার সর্বোচ্চ বয়স হবে ৬৫ বছর।

৫) এই LIC Jeevan Lakshya Plan এর সাথে গ্রাহকের জন্য বিভিন্ন প্রকার বোনাস সুবিধা থেকে থাকে।

৬) এই LIC Jeevan Lakshya Plan এর গ্রাহক নূন্যতম ৩ বছর প্রিমিয়াম না দিলে পলিসি অনুযায়ী কোম্পানী যে কোন স্বিদ্ধান্ত নিতে পারে।

৭) এই LIC Jeevan Lakshya Plan এর সাথে ২ টি বাড়তি সেবা নেয়া যায়। তা হলো, দূর্ঘটনাজনিত মৃত্যুকালীন ক্ষতিপূরন এবং অঙ্গহানী জনিত ক্ষতিপূরন।

LIC Jeevan Lakshya Plan এর সুবিধাঃ

আসুন দেখে নিই LIC Jeevan Lakshya Plan এর সুবিধাগুলি কি কি।

১) এই LIC Jeevan Lakshya Plan এর গ্রাহক তার সকল প্রিমিয়াম পরিশোধ করলে এবং মেয়াদকাল শেষে বেচে থাকলে ইন্স্যুরেন্স পলিসি অনুযায়ী তার জমাকৃত টাকা ফেরত পাবে এবং ইন্স্যুরেন্স কোম্পানীর কাছ হতে বোনাস পেতে পারে।

২) এই LIC Jeevan Lakshya Plan এর গ্রাহক মৃত্যুকালীন ক্ষতিপূরনও পেতে পারে। এই পলিসি গ্রহন করা অবস্থায় গ্রাহক মৃত্যুবরন করলে ইন্স্যুরেন্স কোম্পানী আর ক্ষতিপূরন দিতে বাধ্য থাকে।

সেই সাথে এই পলিসি হতে প্রাপ্ত ক্ষতিপূরন ভারতের আয়কর আইনের ১৯৬১ সালের আইন অনুযায়ী আয়কর মুক্ত থাকবে।

এই Plan নিতে কি কি কাগজপত্র দরকার হয়?

১) সঠিকভাবে পূরনকৃত আবেদনপত্র।

২) ঠিকানা প্রমানের জন্য বিদ্যুৎ বিলের কপি

৩) বয়স প্রমানের জন্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্র।

৪) আইডি কার্ড (PAC Card, আধার কার্ড, ভোটার কার্ড)

৫) মেডিকেল পরীক্ষার রিপোর্ট।

আজ আমরা LIC Jeevan Lakshya Plan নিয়ে বিস্তারিত জানতে পারলাম। জানতে পারলাম LIC Jeevan Lakshya Plan কি ? এই LIC Jeevan Lakshya Plan এর বৈশিষ্ট্য কি ? এই LIC Jeevan Lakshya Plan করতে কি কি কাগজপত্র দরকার হয়।

আগামীতে আমারা আরো অনেক লাইফ ইন্স্যুরেন্স পলিসি নিয়ে আলোচনা করবো। ইন্স্যুরেন্স জাতীয় সকল বিষয়াদি জানতে নিয়মিত আমাদের সাইটে চোখ রাখুন।

আমাদের লেখা নিয়ে যে কোন মন্তব্য আমাদের জানান। আপনার নিরাপদ বিনিয়োগই আমাদের একান্ত কাম্য।

Leave a Comment