West Bengal Digital Ration Card 2022: Online Apply & Registration

West Bengal Digital Ration Card: সবকিছু ডিজিটাল হওয়ার সাথে সাথে রেশন কার্ডও কিন্তু ডিজিটাল হচ্ছে। সে ক্ষেত্রে জনসাধারনের অনেকটাই সুবিধা হবে। এছাড়া পশ্চিমবঙ্গ সরকার ও বাজারের অর্ধেক দামে ৫০ লক্ষ মানুষের জন্য রেশন উপলব্ধ করেছে।

আপনি যদি পশ্চিমবঙ্গ ডিজিটাল রেশন কার্ড অথবা খাদ্য সাথী প্রকল্পের জন্য আবেদন করতে চান তাহলে কটি সহজ পদক্ষেপের মাধ্যমে আপনি নিজে থেকেই অনলাইনে আবেদন করে নিতে পারবেন।

ডিজিটাল রেশন কার্ডের সম্পর্কে বিশেষ কিছু তথ্য:

এক্ষেত্রে একটু বলে রাখা ভালো যে, পশ্চিমবঙ্গ ডিজিটাল রেশন কার্ড (West Bengal Digital Ration Card) সুবিধা গুলি পাওয়ার জন্য এই প্রকল্পের যোগ্য হতে হবে আবেদনকারীকে। সেই যোগ্যতার মানদণ্ড গুলি কিকি চলুন তাহলে জেনে নেওয়া যাক:

West Bengal Digital Ration Card: Online Apply & Registration
West Bengal Digital Ration Card: Online Apply & Registration

#১) প্রথমত আবেদনকারীকে পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের  আইনত ভাবে এবং স্থায়ী বাসিন্দা হতে হবে।

#২) আবেদনকারীর অবশ্যই রেশন কার্ড থাকাটা জরুরি নয়।

#৩) যে আবেদনকারী অস্থায়ী রেশন কার্ড এবং তার রেশন কার্ডের জন্য আবেদন করছেন সেই রেশন কার্ডের মেয়াদ শেষ হয়ে গেছে। তার পরেও তিনি এই প্রকল্পের অধীনে ডিজিটাল রেশন কার্ডের জন্য আবেদন করতে পারেন।

#৪) নবদম্পতিরাও এই প্রকল্পের আওতায় নতুন ডিজিটাল রেশন কার্ডের জন্য আবেদন করতে পারেন।

আবেদনকারীর প্রয়োজনীয় ডকুমেন্টস:

#১) বৈধতা যাচাই করার জন্য আবেদনকারীর মোবাইল নাম্বার।

#২) সনাক্তকরণ অথবা পরিচয় পত্রের জন্য আধার কার্ড/ভোটার আইডি/ ই পি আই সি।

#৩) প্যান কার্ড।

#৪) email-id।

#৫) পুরনো রেশন কার্ড (প্রযোজ্য হিসেবে)

#৬) আবেদনকারীর বয়সের প্রমাণপত্র।

#৭) পাসপোর্ট

#৮) হেলথ কার্ড।

#৯) ড্রাইভিং লাইসেন্স।

#১০) ঠিকানার প্রমাণপত্র।

#১১) পাসপোর্ট সাইজের ফটো।

ডিজিটাল রেশন কার্ড তৈরি করার জন্য কি কি শর্ত মানতে হবে:

#১) প্রথমত আবেদনকারী ব্যক্তির কাছে অন্য কোন রাজ্যের রেশন কার্ড থাকলে হবে না।

#২) যে ব্যক্তির নামে রেশন কার্ড তৈরি করা হবে সেই ব্যক্তির বয়স যেন ১৮ বছরের উপরে হয়।

#৩) ১৮ বছর এর  কম বয়সের বাচ্চাদের নাম তাদের বাবা-মায়ের রেশন কার্ডে যুক্ত করা হয়।

রেশন কার্ড এর প্রকারভেদ:

রেশন কার্ড প্রধানত তিন প্রকারের হয়।

#১) দারিদ্র্যসীমার নিচে (BPL)

#২) দারিদ্র্যসীমার উপরে (APL)

#৩) অন্তর্দয় ক্যাটাগরি।

রেশন কার্ডের ক্যাটাগরি যেকোনো ব্যক্তির বার্ষিক পারিবারিক আয় এর উপর নির্ভর করে। তাছাড়া অন্তর্দয় ক্যাটাগরিতেই বিপুল সংখ্যক গরীব পরিবার রয়েছে।

ডিজিটাল রেশন কার্ড অনলাইন আবেদন প্রক্রিয়া:

ঘরে বসেই আপনি আপনার স্মার্ট ফোন দিয়ে ডিজিটাল রেশন কার্ডের জন্য আবেদন করতে পারেন। চলুন তাহলে জেনে নেওয়া যাক:

#১) প্রথমত আপনাকে পশ্চিমবঙ্গ ডিজিটাল রেশন কার্ড এর অফিিশয়াল ওয়েবসাইট এ যেতে হবে: https://wbpds.wb.gov.in অথবা www.wbpds.gov.in

West Bengal Digital Ration Card Online Apply
West Bengal Digital Ration Card Online Apply

#২) এরপর apply online for ration card এই অপশনটিতে ক্লিক করুন।

#৩) তারপর আপনার মোবাইল নাম্বার দিন।

West Bengal Digital Ration Card Apply Login
West Bengal Digital Ration Card Apply Login

#৪) আপনার রেজিস্টার্ড মোবাইল নাম্বারে একটি ওটিপি আসবে। ওটিপি দিয়ে লগইন করুন। নম্বরটি যাচাই করতে ভেরিফাই অপশনে ক্লিক করুন।

#৫) এরপর আপনার বিকল্পটি নির্বাচন করুন। তারপর একটি নতুন পেজ ওপেন হলে সেখানে আপনার আবেদনপত্রটি পূরণ করুন।

West Bengal Digital Ration Card Apply Online
West Bengal Digital Ration Card Apply Online

#৬) শো মেম্বার এই অপশনে ক্লিক করুন। তারপর দেখবেন আপনার সামনে তথ্যগুলি বিশদে চলে আসবে সেগুলো দেখে নিতে পারেন।

#৭) আদার্স মেম্বার বাটনে ক্লিক করুন। এখানে আবেদনকারী তার পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের যোগ করতে পারেন।

West Bengal Digital Ration Card Apply Online Process
West Bengal Digital Ration Card Apply Online Process

#৮) তারপর সেভ এন্ড কন্টিনিউ করুন। তারপর অ্যাপ্লিকেশন বাটনে ক্লিক করুন।

West Bengal Digital Ration Card Apply Online Form
West Bengal Digital Ration Card Apply Online Form

#৯) তথ্যগুলি আবার ভেরিফাই করুন। তারপর Submit বাটনে ক্লিক করুন। এখানে দেখবেন আপনার অ্যাপ্লিকেশন নাম্বারটি তৈরি হয়ে যাবে।

#১০) এই অ্যাপ্লিকেশন নাম্বারটি আপনি সেভ করে রাখতে পারেন, ভবিষ্যতে আপনার এটি কাজের আসবে।

ডিজিটাল রেশন কার্ডে পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের যোগ করার পদ্ধতি:

#১) প্রথমত আপনাকে এই প্রকল্পের অফিশিয়াল ওয়েবসাইটে যেতে হবে: www.wbpds.gov.in (gov.in)

#২) ওয়েব সাইটের হোম পেজে আপনাকে সিটিজেন অপশনে ক্লিক করতে হবে।

#৩) এখন আপনাকে আপনার পরিবারের সদস্যদের যোগ করার জন্য আপনাকে এপ্লাই অপশনে ক্লিক করতে হবে। তারপর আবার একটি নতুন পেজ ওপেন হবে।

West Bengal Digital Ration Card Add New Member
West Bengal Digital Ration Card Add New Member

#৪) এখানে আপনাকে প্রয়োজনীয় সমস্ত বিবরণ সতর্কতাঃ পূর্ণ ভাবে লিখতে হবে।

West Bengal Digital Ration Card Member Files Upload
West Bengal Digital Ration Card Member Files Upload

#৫) এরপর আপনাকে সাবমিট বাটনে ক্লিক করতে হবে।

অফিশিয়াল ওয়েবসাইট থেকে step-by-step সবকিছু পূরণ করার পর আবেদনপত্রটি জমা করতে হবে।

ডিজিটাল রেশন কার্ডের নাম সংশোধন:

#১) এই প্রকল্পের অফিশিয়াল ওয়েবসাইটে যেতে হবে প্রথমত।

#২) তারপরেই অফিশিয়াল ওয়েব সাইটের হোম পেজে E-citizen ট্যাবে ক্লিক করতে হবে।

#৩) এরপরে আপনাকে Change name or others details in ration card এই অপশনে ক্লিক করতে হবে।

#৪) ক্লিক করার পর আপনার সামনে একটি নতুন পেজ ওপেন হবে। এই পেজে আপনাকে প্রয়োজনীয় বিষয় গুলি পূরণ করতে হবে।

#৫) প্রয়োজনীয় বিষয়গুলো পূরণ করা হয়ে গেলে Submit বাটনে ক্লিক করতে হবে।

নকল রেশন কার্ডের জন্য আবেদন করার পদ্ধতি:

যেকোনো কারণে বা সমস্যার মধ্যে দিয়ে যদি আপনার আসল রেশন কার্ডটি হারিয়ে যায় বা আপনি খুঁজে না পান, তাহলে নকল রেশন কার্ডের জন্য আবেদন করতে পারেন। বেশ কিছু সহজ পদ্ধতিতে আপনি এর আবেদন করতে পারবেন:

#১) প্রথমত অফিশিয়াল ওয়েবসাইটে যান: www.wbpds.gov.in

#২) নতুন একটি পেজ ওপেন হলে সেখানে E-citizen অপশনে ক্লিক করুন।

#৩) তারপর দেখবেন Duplicate Ration Card এই অপশনটি দেখতে পাবেন এখানে ক্লিক করুন।

তাহলে আর দেরি কেন, নিজের স্মার্টফোনের মাধ্যমে ঘরে বসেই আপনার ডিজিটাল রেশন কার্ড এর আবেদন করুন। তার সাথে সাথে বিভিন্ন সংশোধনও করে নিতে পারেন আপনার ফোনের সাহায্যে।

Leave a Comment