দুয়ারে ত্রাণ প্রকল্প 2022: আবেদন এবং যোগ্যতা | Duare Tran Scheme 2022: Eligibility & Apply

Duare Tran Scheme 2022: Duare Tran Scheme Apply Online Form 2022-23 – পশ্চিমবঙ্গের দুয়ারে ত্রাণ প্রকল্প আবেদন পদ্ধতি (দুয়ারে ত্রাণ প্রকল্প 2022: বিপর্যস্ত মানুষের সহায়তায়), West Bengal Duare Tran Scheme Registration 2022 | Duare Tran Scheme Documents and Eligibility.

প্রকৃতির শক্তির কাছে আমার কোন কিছুই নই। বিভিন্ন রকমের বিপর্যয় এর জন্য মানুষের অনেক ক্ষয়ক্ষতি হয়ে যায়। হয়তো সেরকম পরিস্থিতি আগের মত ফিরিয়ে আনা সম্ভব নয়, তবুও কিছুটা চেষ্টা ও ইচ্ছার মধ্যে দিয়ে সেই পরিস্থিতি অনেকটা ভালো তো করা যায়, তাই না! ইয়াসের দাপটে অনেক কিছু ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। তার সাথে সাথে সাধারণ মানুষের বেঁচে থাকার সম্বল টুকু কেড়ে নিয়েছে এই ইয়াস। কত মানুষের স্বপ্নগুলো ভেসে গিয়েছে বন্যার জলের সাথে।

ইয়াসের ক্ষতিপূরণ ও ত্রাণ বন্টন এর জন্য নিজের হাতেই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সাধারণ মানুষের মধ্যে ত্রাণ তুলে দেওয়ার চেষ্টা করছেন। ঘূর্ণিঝড় ইয়াসের জেরে ১৫ হাজার কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে প্রমাণ হয়েছে হিসাব অনুসারে।

ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ অনুসারে ত্রাণ দেওয়া হবে এমনটাই জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আর এই প্রকল্পের নাম দেওয়া হয়েছে “দুয়ারে ত্রাণ (Duare Tran Scheme)” ইতিমধ্যেই দুয়ারে রেশন প্রকল্প শুরু হয়েছে। দুয়ারে সরকার, তারপরে দুয়ারে রেশন (Duare Ration)।

Duare Tran Scheme Eligibility & Apply Process
Duare Tran Scheme Eligibility & Apply Process

আর এই দুয়ারে রেশন এর মতই দুয়ারে ত্রাণ বিলি করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ক্ষতিগ্রস্তদের কাছ থেকে সরাসরি ক্ষতির হিসাব নেবেন সহকারী অফিসার রা। তারপর সেই হিসাব অনুসারে ক্ষতিপূরণের টাকা যাবে সরাসরি ক্ষতিগ্রস্তদের ব্যাংক একাউন্টে।

ক্ষতিগ্রস্তদের আবেদন নেওয়ার মধ্যে দিয়ে তাদের যতটুকু ক্ষতি হয়েছে ততটুকুই দেওয়া হবে এবং আবেদনকারী যেনো ততটুকুই বলেন, যতটুকু সেই আবেদনকারী ক্ষতি হয়েছে ইয়াস ঝড়ে। কৃষি জমির ক্ষতি হয়েছে অনেকখানি, বলতে গেলে ১.১৬ লক্ষ হেক্টর কৃষিজমির ক্ষতি হয়েছে এই ইয়াসের কারণে।

তাছাড়া বিভিন্ন জায়গায় টর্নেডোর জন্য প্রচুর বাড়ির ক্ষতি হয়েছে, ভেঙে গিয়েছে একাধিক কাঁচাবাড়ি। তাদের ক্ষতিপূরণ দেয়া হবে বলে জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। চাষের জমি অথবা ফসলের ক্ষয় ক্ষতি হয়েছে, তারা ক্ষতিপূরণের আবেদন করতে পারবেন, নিজেই আবেদন করতে পারবেন এই ত্রাণ পাওয়ার এর জন্য।

দুয়ারে ত্রাণ প্রকল্প কি?

রাজ্য সরকারের আরো অন্যান্য প্রকল্পের মত সবেমাত্র ঘোষণা হওয়া প্রকল্প টি হল দুয়ারে ত্রাণ প্রকল্প (Duare Tran Scheme)। ঘূর্ণিঝড় বা সাইক্লোন এর ক্ষতিপূরণের জন্য ১০০ কোটি টাকা বরাদ্দ করা হয়েছিল।

সেই অর্থ প্রকল্পের মাধ্যমে সরকার ক্ষতিপূরণ হিসেবে যাদের অথবা ঘূর্ণিঝড় এর মধ্যে দিয়ে বিভিন্ন রকমের ক্ষতি হয়েছে সেগুলোর কিছুটা হলেও পরিপূরণ করতে পারা যাবে। সে ক্ষেত্রে এই ত্রাণ আবেদনকারীর ব্যাংক একাউন্টের সরাসরি জমা হয়ে যাবে। তার জন্য আগে এই দুয়ারে ত্রাণ প্রকল্পের জন্য আবেদন করতে হবে।

দুয়ারে ত্রাণ প্রকল্পে ক্ষতি অনুসারে কাদের কত টাকা দেওয়া হতে পারে?

১) সম্পূর্ণরূপে যাদের বাসস্থান অথবা বাড়ি ভেঙে গিয়েছে, এমন ক্ষতি গ্রস্থ মানুষদের জন্য তাদের কুড়ি হাজার (২০,০০০) টাকা করে দেওয়া হবে।

২) আবার যাদের অল্প ক্ষতি হয়েছে তাদের ৫০০০ টাকা দেওয়া হতে পারে।

৩) যাদের ফসল নষ্ট হয়েছে তাদের ১০০০ টাকা থেকে আড়াই হাজার টাকা (২,৫০০) দেওয়া হবে।

৪) ছাগল, ভেড়া, এই সমস্ত পালিত পশু মারা গেলে বা তারা বন্যার জলে ভেসে গিয়েছে, সেই ক্ষতিপূরণ হিসেবে ৩,০০০ টাকা দেওয়া হবে।

৫) এছাড়া পালিত পশু হিসেবে গরু অথবা মহিষ এর মৃত্যু হলে সাইক্লোন ঝড়ের কারণে, সে ক্ষেত্রে কিন্তু ৩০ হাজার টাকা পর্যন্ত ক্ষতিপূরণ পেতে পারেন সেই আবেদনকারী।

৬) জেলেদের ক্ষেত্রে অর্থাৎ যারা মৎস্যজীবী যাদের মাছ নষ্ট হয়েছে এবং ভেসে গিয়েছে তাদের নৌকা ভেঙে গিয়েছে সেই নৌকার মেরামতি করতে পাঁচ হাজার টাকা করে দেয়া হবে।

৭) যারা পানচাষি তাদের পান বরজের ক্ষতি হয়েছে ব্যাপক মাত্রায়, সে ক্ষেত্রে ৫,০০০ টাকা দেওয়া হবে।

৮) জেলে অথবা মৎস্যজীবীদের মধ্যে যাদের নৌকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে খুবই সামান্য, তাদের ৫০০ টাকা দেয়া হবে, আর জাল কেনার জন্য আলাদা করে ২,৬০০ টাকা দেওয়া হবে।

৯) তাঁতি সম্প্রদায় যারা রয়েছেন যাদের একমাত্র রুটি-রুজির ভরসা হচ্ছে তাঁত বোনা, তাদের জন্য যন্ত্রপাতি কেনার ক্ষেত্রে বা মেরামতি করার জন্য ৪,১০০ টাকা করে ক্ষতিপূরণ বাবদ দেয়া হবে।

১০) বাছুরের জন্য ১৬,০০০ টাকা

১১) গুদাম ঘরের ক্ষতি মেরামতির জন্য ১০,০০০ টাকা।

দুয়ারে ত্রাণ প্রকল্পের ক্ষতিপূরণের টাকা কিভাবে পাওয়া যাবে?

দুয়ারে ত্রাণ প্রকল্পের ক্ষতিপূরণ হিসেবে যে টাকা দেওয়া হবে, সেটি আবেদনকারীর ব্যাংক একাউন্টে সরাসরি জমা করা হবে। তবে সে ক্ষেত্রে আবেদনকারীর অবশ্যই ব্যাংক একাউন্ট থাকতে হবে।

দুয়ারে ত্রাণ প্রকল্পের আবেদন পদ্ধতি: 

দুয়ারে ত্রাণ প্রকল্পের জন্য এই প্রকল্পের অফিশিয়াল ওয়েবসাইট (https://excise.wb.gov.in) থেকে অ্যাপ্লিকেশন ফর্ম ডাউনলোড করতে পারবেন ডাউনলোড অপশন থেকে। তার সাথে পি ডি এফ (PDF) ফাইল ডাউনলোড করার পাশাপাশি প্রিন্ট আউট এর মাধ্যমে সেই অ্যাপ্লিকেশন ফর্ম বের করতে পারবেন।

Duare Tran Scheme Application Form
Duare Tran Scheme Application Form
দুয়ারে ত্রাণ প্রকল্পের অ্যাপ্লিকেশন ফর্ম ডাউনলোড করুন
Duare Tran Scheme Application Form Download

অ্যাপ্লিকেশন ফর্ম টি ডাউনলোড করার পর যেগুলো আপনাকে লিখতে হবে:- 

  • আবেদনকারীর নাম।
  • আবেদনকারী পুরুষ অথবা মহিলা সেটা লিখতে হবে।
  • সহকারি আবেদনকারীর নাম, যদি সহকারি আবেদনকারী থেকে থাকে।
  • আবেদনকারীর মোবাইল নাম্বার
  • বয়স্ক ভাতা অথবা বার্ধক্য ভাতার প্রমাণপত্র
  • ক্যাটাগরি এ সি (SC), এস টি (ST) অথবা জেনারেল (General)
  • আবেদনকারীর সম্পূর্ণ ঠিকানা (গ্রাম, অঞ্চল, জেলা ও ব্লক, পিন কোড নাম্বার ইত্যাদি)।
  • আবেদনকারী আধার নাম্বার।
  • খাদ্যসাথী নাম্বার।
  • কৃষক বন্ধু নাম্বার।
  • জব কার্ড নাম্বার এবং
  • যারা মাছ চাষী তাদের জন্য কার্ড নাম্বার।

একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো যদি এই অ্যাপ্লিকেশন ফর্ম অথবা দুয়ারের ত্রাণ অ্যাপ্লিকেশন ফর্ম ফিলাপ করার জন্য সেই জায়গায় কোন কিছু তথ্য দেওয়ার জন্য আপনার কাছে যদি পর্যাপ্ত পরিমাণ কাগজপত্র না থেকে থাকে তাহলে সেই জায়গাটি ফাঁকা রাখুন।

এবার দ্বিতীয় ধাপে ব্যাংক একাউন্ট ডিটেলস দিতে হবে:- 

  • ব্যাংকের নাম
  • ব্রাঞ্চের নাম
  • অ্যাকাউন্ট নাম্বার

জমির পরিমাণ হিসাবে

  • এক একর এর কম, তার সাথে
  • এক একর এর বেশি
  •  আপনার যতটুকু জমি রয়েছে সেটাই চিহ্নিত করতে হবে।
  • ক্ষতির পরিমাণ জানানোর জন্য আংশিক (Partically) অথবা সম্পূর্ণ (Fully) এই লেখার পাশে টিক চিহ্ন দিতে হবে।

এছাড়া ইয়াস ঝড়ে আপনার আরো যে সমস্ত ক্ষতি হয়েছে এবং কত গুলো ক্ষতি হয়েছে সে গুলির নাম এবং সংখ্যা লেখুন:- 

  • Cow
  • Goat
  • Sheep
  • Buffalo
  • Calf
  • Pig
  • Duck
  • Poultry
  • এছাড়া যারা পানচাষি, পান বরজের কতটা ক্ষতি হয়েছে সেটাও উল্লেখ করতে হবে।

দুয়ারে ত্রাণ প্রকল্পের ফরম ফিলাপ করার জন্য আরো যে সমস্ত ডকুমেন্টস অথবা কাগজপত্র আপনার প্রয়োজন পড়তে পারে সেগুলি হল:- 

  • আবেদনকারীর আধার কার্ড
  • আবেদনকারীর পাসপোর্ট সাইজ ফটোগ্রাফ।
  • খাদ্য সাথী কার্ড ফটোকপি।
  • ঠিকানার প্রমাণপত্র
  • প্যান কার্ড
  • ভোটার আইডি কার্ড এবং
  • অন্যান্য যেকোন ঠিকানার প্রমাণপত্র
  • ব্যাংক অ্যাকাউন্ট স্টেটমেন্ট
  • পাসবুক ফটোকপি
  • মৎস্যজীবীদের জন্য কার্ড ফটোকপি
  • কৃষক বন্ধু কার্ড ফটোকপি।

হেল্পলাইন নাম্বার: ০৩৩ ২২৫০ ১১৯৩ 

দুয়ারে ত্রাণ প্রকল্পের আবেদন পত্র কোথায় জমা দেবেন:

দুয়ারে ত্রাণ প্রকল্পের অ্যাপ্লিকেশন ফর্ম বা আবেদন পত্র ভালোভাবে ফিলাপ করার পর গ্রাম পঞ্চায়েত অথবা বিডিও অফিসে বা যে দুয়ারে ত্রাণ (Duare Tran Scheme) শিবির হবে, সেখানে সরাসরি গিয়েও জমা দিতে পারেন।

আর এই ইয়াস ঝড়ে যাদের ক্ষতি হয়েছে তাদের ক্ষতির পরিমাণ অনুসারে ক্ষতিপূরণ এর টাকা দুয়ারে ত্রাণ প্রকল্পের মধ্যে দিয়ে সরাসরি আবেদনকারীর ব্যাংক একাউন্টে জমা হয়ে যাবে। তবে তার জন্য আবেদনকারীর নামে অবশ্যই ব্যাংক একাউন্ট থাকতে হবে।

Home Click here
Official Website Click here

Leave a Comment