যদি আপনার কার্ড ATM মেশিনে আটকে যায় তাহলে কি করবেন?

কখনো যদি এমন হয় যে আপনি ATM টাকা বের করতে গেছেন আর আপনার কার্ডটি ATM মেশিনে আটকে যায় তাহলে কি করবেন ? কোথায় যাবেন ? তার থেকে বেশি ভয় যে যদি কোনো ভুল লোকের হাতে কার্ডটি চলে যাই তাহলে কি করবেন।

আপনি হয়তো কিছুক্ষন অপেক্ষা করবেন অথবা ATM-এর গার্ডকে জিজ্ঞেসা করবেন যে কি করা যায় কিন্তু এইভাবে আপনি আপনার কার্ডটি ফেরত পাবেন না। তাহলে কি করবেন ? আসুন জেনে নিন সব কিছু

আগে এটা জানা প্রয়োজন যে কেন আটকে যায় কার্ড ATM মেশিনে ?

এর জন্য প্রধান যেই কারণটি হলো লিংক ফেল হয়ে যাওয়া, যদি লেনদেন করার সময় লিংক ফেল হয়ে যাই তাহলে কার্ড মেশিনের ভেতরে আটকে যাই।

What to do if your card gets stuck in an ATM
What to do if your card gets stuck in an ATM

আরেকটি কারণ হলো মেশিনে কার্ডটি দেবার পরে টাকা বা পিন ভরতে দেরি করা হয় তাহলে কার্ড আটকে যাই। এছাড়া যদি লেনদেন করতে করতে হটাৎ করে মেশিনের পাওয়ার সাপ্লাই বন্ধ হয়ে যাই তাহলে মেশিনে কার্ডটি আটকে যাই।

যদি কখনো এমন পরিস্থিতিতে পড়েন তাহলে সবার আগে মাথা ঠান্ডা রেখে কাজ করতে হবে। এই রকম প্রবলেম হলে আগে নিজের ব্যাংকের কাস্টমার কেয়ারে ফোন করতে হবে এবং যেই ATM-এ আছেন তার লোকেশন এবং কিভাবে কার্ডটি আটকেছে তা কাস্টমার কেয়ার কে জানাতে হবে।

কাস্টমার কেয়ার আপনাকে দুইটি অপসেন দেবে আপনার কার্ডটি ব্লক করার জন্য আর কার্ডটি ফেরত পাবার জন্য। যদি আপনার মনে হয় যে আপনার কার্ডটি কোনো ভুল হাতে পড়তে পারে তাহলে তাহলে কার্ডটি ব্লক করিয়ে দিন।

এই ক্ষেত্রে ব্যাঙ্ক ১০ দিনের মধ্যে আপনার বাড়ির ঠিকানায় নতুন কার্ড পাঠিয়ে দেবে আর যদি আপনাকে নতুন কার্ডের দরকার হয় তাহলে আপনি ব্যাংকে গিয়ে নতুন কার্ড পেয়ে যাবেন।

(এখন ব্যাঙ্ক থেকে নতুন ATM Card এক দিনের মধ্যেই পাওয়া যায় যদি ব্যাংকের কাছে কার্ডের স্টক থাকে তাহলে) সুরক্ষার দৃষ্টিতে দেখতে গেলে এই কাজ করা বেশি ভালো।

কার্ড আটকে গেলে কি করবেন?

যদি আপনি আটকে যাওয়া কার্ডটি ফেরত পেতে চান তাহলে সবার আগে আপনাকে ব্যাংকে এই সমন্ধে জানাতে হবে যা আপনি ফোনের মাধ্যমে জানাতে পারবেন।

যদি আপনার নিজস্য ব্যাংকের ATM-এ কার্ডটি আটকে থাকে তাহলে কার্ডটি তাড়াতাড়ি পেয়ে যাবেন আর যদি অন্য কোনো ব্যাংকের ATM-এ কার্ডটি আটকে থাকে তাহলে কার্ডটি ফেরত পেতে একটু সময় লাগবে।

আসলে মেশিনে আটকে থাকা কোনো কার্ড সবার আগে ভেন্ডার অর্থাৎ যারা ATM মেশিনে টাকা ভরে তারা পেয়ে থাকে তারা ওই কার্ডটি সেই ব্যাংকে জমা করে যেই ব্যাংকের ATM.

এর পর এই কার্ডটি ওই ব্যাংকে পাঠানো হয় যেই ব্যাংকার কার্ড তারপর ওই ব্যাঙ্ক খোঁজ নেয় যে এই কার্ড সম্পর্কে কোনো অভিযোগ বা রিকুয়েস্ট আছে কি নেই যদি তারা রিকুয়েস্ট পায় তাহলে যার কার্ড তাকে দিয়ে দেওয়া হয়।

যদি কার্ড আর ATM মেশিন একই ব্যাংকের থাকে তাহলে তাড়াতাড়ি কার্ডটি ফেরত পাওয়া যায়।

কার্ডের সুরক্ষার উপায়

এই প্রসেস Debit Card হোক বা Credit Card হোক দুটিতেই একই ভাবে করা হয়। ব্যাঙ্ক সর্বদা গ্রাহকদের কার্ড ব্যবহার করার জন্য বিভিন্ন রকম সুরক্ষার কথা বলে যেমন কার্ডের পিন ও CCV কোড কারো সাথে শেয়ার করা উচিত নয়।

প্রত্যেক 180 দিনে কার্ডের পিন বদলে দেওয়া দরকার। যদি কোনো ফোন আসে এবং ব্যাংকের নাম নিয়ে ATM পিন OTP চাইবে সেই রকম ফোন থেকে দূরে থাকা প্রয়োজন এবং ওই ফোন নাম্বারটির অভিযোগ ব্যাংকে করা দরকার।

এছাড়া সুরক্ষার দিক থেকে ATM মেশিনে এক জনের বেশি লোক থাকায় ATM ব্যবহার করা উচিত নয়, যদি কেউ আপনার পেছনে দাঁড়িয়ে থাকে তাহলে আগে তাকে বেরিয়ে যেতে বলুন তারপর লেনদেন করুন। এই ধরণের কিছু বিষয়গুলি খেয়াল করে চললে আপনার ব্যাঙ্ক একাউন্ট সুরক্ষিত থাকবে।

আশা করি আমাদের এই তথ্য আপনাদের সাহায্য করবে, যদি আমাদের এই তথ্য আপনাদের ভালো লেগে থাকে তাহলে অবশ্যই সকলের সাথে শেয়ার করবেন এবং এই ধরণের আরো নতুন নতুন তথ্য পাবার জন্য আমাদের ওয়েবসাইটে নজর রাখুন।নতুন নতুন আপডেট পাবার জন্য আমাদের Facebook Page লাইক ও ফলো করুন।

Leave a Comment