সরকারের বিদ্যা লক্ষ্মী শিক্ষা লোণ – ছাত্রছাত্রীদের ভবিষ্যতের জন্য

উচ্চশিক্ষালাভ করা আমাদের সবারই স্বপ্ন থাকে। অনেক মেধাবী ছাত্র সুযোগ পেয়েও শুধুমাত্র দারিদ্রতার কারনে উচ্চশিক্ষা হতে বঞ্চিত হয়। Education Loan পাবার নিয়ম থাকলেও অনেক কাগজপত্র, শর্ত আর নিয়মের বেড়াজাল থাকায় চাইলেও সহজে অনেকেই Education Loan নিতে পারে না। এই সমস্যা হতে সমাধানে এগিয়ে এসেছে Vidya Lakshmi Education Loan।

এই লোন ব্যবহার করে কোন দরিদ্র ছাত্র তার শিক্ষাব্যয় মেটাতে পারে।প্রচলিত Education Loan এর চাইতে এই লোন নেয়া তুলনামূলক কম শর্তে এবং সুবিধাজনক হওয়ায় এই লোন নেয়া ছাত্রদের জন্য উপকারী।

আসুন দেখে নিই, Vidya Lakshmi Education Loan কি? এই Education Loan এর কি কি বৈশিষ্ট্য আছে ? কিভাবে এই Vidya Lakshmi Education Loan এর জন্য আবেদন করা যায় ? আর কি কি আছে এই Vidya Lakshmi Education Loan এ?

 

Vidya Lakshmi Education Loan কি ?

ছাত্রছাত্রীদের শিক্ষা ঋনের জন্য Vidya Lakshmi Education Loan একটি বিশেষভাবে তৈরি লোন পোর্টাল। যার মাধ্যমে ছাত্রছাত্রীরা যেকোন সময়, যেকোন স্থান হতে, বিভিন্ন ব্যাংকে তাদের শিক্ষা ঋনের জন্য আবেদন করতে পারে, আবেদনের তথ্য দেখতে পারে।

এই Vidya Lakshmi Education Loan টি ভারতীয় সরকারের National Scholarship Portal এর সাথে সংযোগ করা আছে। এই Vidya Lakshmi Education Loan টি ৩ টি বিভাগের সমন্নয়ে গঠিত হয়েছে।
Department of Financial Service (Ministry of Finance)
Department of Higher Education (Ministry of Human Resource Development)
Indian Bank Association (IBA)

 

Vidya Lakshmi Education Loan এর বৈশিষ্ট্যঃ

নিচে Vidya Lakshmi Education Loan এর কিছু বৈশিষ্ট্য দেওয়া হয়েছে।
১) ব্যাংকের Education Loan এর তথ্য।
২) ছাত্রছাত্রীদের জন্য বিভিন্ন প্রকার Education  Loan  এর ফর্ম।
৩) Education  Loan এর জন্য কয়েকটি ব্যাংকে আবেদন করার সুযোগ।
৪) ব্যাংকের কর্তারা ছাত্রদের জমা দেয়া Education  Loan এর আবেদন দেখতে ও ডাউনলোড করতে পারে।
৫) ব্যাংকের কর্তারা ছাত্রদের আবেদনের অবস্থা পোর্টালে জানাতে পারে।
৬) ছাত্রছাত্রীদের জন্য মেইলে Education  Loan এর ব্যাপারে কিছু জানতে চাওয়া বা প্রশ্ন করার সুযোগ।
৭) National Scholarship Portal এবং অন্যান্য সরকারী স্কলারশীপের সাথে সংযোগ করার ব্যবস্থা আছে।

Vidya Lakshmi Education Loan Portal এর মাধ্যমে কিভাবে Education Loan এর জন্য আবেদন করা যায়?
এই পোর্টালের মাধ্যমে Education  Loan এর জন্য আবেদন নিম্নলিখিত ধাপে সম্পন্য করতে হয়।

১) আবেদনকারীকে Vidya Lakshmi Portal এ রেজিস্ট্রেশন এবং লগইন করে দরকারী সব তথ্য প্রদান করে আবেদনপত্র সম্পূর্ন করতে হবে। Vidya Lakshmi Portal →

২) আবেদনপত্র পূরন করার পর আবেদনকারী তার পছন্দের এবং তার যোগ্যতা অনুযায়ী Education  Loan খুজতে পারবে এবং আবেদন করতে পারবে।

Common Educational Loan Application Form (CELAF) কি?

Common Educational Loan Application Form (CELAF) হচ্ছে একটি আবেদন ফর্ম, যার মাধ্যমে একজন ছাত্র কয়েকটি ব্যাংকে Education Loan এর জন্য আবেদন করতে পারে। এই CELAF তৈরি হয়েছে Indian Bank Association (IBA) এর পরামর্শমতে এবং ভারতের সকল ব্যাংকই এই আবেদন ফর্ম গ্রহন করে। এই ফর্ম Vidya Lakshmi Portal এ সকল ছাত্রছাত্রীদের Education Loan এর আবেদনের জন্য ব্যবহার করা হয়।

 

এই পোর্টালের মাধ্যমে কয়টি ব্যাংকে আবেদন করা যায়?
এই Vidya Lakshmi Portal এর মাধ্যমে CELAF ফর্ম ব্যবহার করে একজন ছাত্রছাত্রী সর্বোচ্চ ৩ টি ব্যাংকে Education Loan এর জন্য আবেদন করতে পারে।

 

একজন ছাত্র বা ছাত্রী কিভাবে বুঝতে পারে তার আবেদন স্বীকার হয়েছে কিনা? 
ব্যাংক কর্তৃপক্ষ ছাত্রছাত্রীদের আবেদনের স্থিতি পোর্টালে প্রকাশ করে থাকে। তাই ছাত্রছাত্রীরা পোর্টালের ড্যাশবোর্ডে নজর রাখলে তাদের আবেদনের স্থিতি জানতে পারে।

কোন কোন ব্যাংকে এই পোর্টালের মাধ্যমে Education Loan এর জন্য আবেদন করা যায়?

এখন পর্যন্ত টোটাল ৪২ টি ব্যাংক এই পোর্টালের সাথে সংযুক্ত হয়েছে। ভারতের প্রায় সমস্ত নামি ব্যাংকগুলি এই পোর্টালে যুক্ত আছে।

 

আমরা এই আলোচনার মাধ্যমে Vidya Lakshmi Education Loan এর নানা বৈশিষ্ট্য ও আবেদনের ধাপগুলি জানতে পারলাম। আগামীতে আমরা এই Vidya Lakshmi Education Loan নিয়ে আরো বিস্তারিত আলোচনা করবো।

Leave a Comment