2022 ট্রান্সপোর্টের ব্যবসা শুরু করবেন কিভাবে | 2022 Transport Business Idea in Bengali

Transport Business Idea 2022 (ট্রান্সপোর্টের ব্যবসা 2022): How to Start Transport Business in India? | Transport Business Idea in Bengali | Transport Business Plan in Bengali. জানুন ট্রান্সপোর্টের ব্যবসা শুরু করার সম্পূর্ণ পদ্ধতি এবং লাভ ও ইনভেস্টমেন্ট

ট্রান্সপোর্টের ব্যবসা -Transport Business Idea in Bengali
ট্রান্সপোর্টের ব্যবসা -Transport Business Idea in Bengali

ভারতের ট্রান্সপোর্টের ব্যবসা বেশ ভালোভাবে চলে, আপনি চাইলে এই ব্যবসাটি খুব অল্প টাকা ইনভেস্ট করে শুরু করতে পারেন। এই ব্যবসাটি শুরু করতে গেলে এবং ভালোভাবে চালিয়ে নিয়ে যেতে গেলে আপনাকে কি কি করতে হতে পারে চলুন জানা যাক:-

ট্রান্সপোর্ট ব্যবসার জন্য রেজিস্ট্রেশন:

ট্রান্সপোর্টের ব্যবসা এমন একটি ব্যবসা, যে ব্যবসা শুরু করার প্রথম থেকে আইনত ভাবে আপনাকে শুরু করতে হবে। আপনার ব্যবসার জন্য রেজিস্ট্রেশন সরকারের তরফ থেকে করতে পারবেন। তাছাড়া শপঅ্যাক্ট লাইসেন্স, উদ্যোগ আধার অর্থাৎ জিএসটি নাম্বার থাকতে হবে আপনার।

ট্রান্সপোর্টের ব্যবসা শুরু করার পদ্ধতি:

১) পার্সেল সার্ভিস অথবা ট্রান্সপোর্ট:

ট্রান্সপোর্টের এই ব্যবসাটি আপনি খুব মজার সাথে এবং খুব সহজভাবে ১০,০০০ টাকা ইনভেস্ট করে শুরু করতে পারেন অনায়াসে।

কিভাবে শুরু করবেন:

জাস্ট ডায়েল ডটকম একটি লোকাল সার্চ ইঞ্জিন। এখানে ফোন করে শহরের লোক বিভিন্ন রকমের সার্ভিস, বিভিন্ন রকমের বিষয়ের তথ্য পেয়ে থাকেন। আপনাকে ট্রান্সপোর্টের ফর্ম এখানে রেজিস্ট্রেশন করানো অবশ্যই প্রয়োজন।

আপনি এই জায়গাতে ফর্মটি রেজিস্ট্রেশন করিয়ে ব্যবসাটি শুরু করতে পারেন। সে ক্ষেত্রে রেজিস্ট্রেশন করার জন্য ৪ হাজার টাকা এখানে দিতে হতে পারে। জাস্ট ডায়েল ডটকম এর সাহায্যে ব্যবসা করার জন্য লিডস অথবা প্রয়োজনীয় তথ্য সংগ্রহ করতে পারবেন।

ট্রান্সপোর্ট কোড:

আপনার নিজের শহরে লজিস্টিকস কোম্পানি থেকে ট্রান্সপোর্ট কোড তৈরি করতে হবে, আপনাকে আপনার ট্রান্সপোর্ট ব্যবসার জন্য এরকম লজিস্টিকস কোম্পানির সহযোগিতা একান্ত প্রয়োজনীয়।

এবার আপনি মনে করুন যে জাস্ট ডায়েল এর তরফ থেকে একটা অর্ডার আপনার কাছে আসলো, যেখানে ১০০ কিলোগ্রাম জিনিসপত্র ট্রান্সপোর্ট করতে হবে, এছাড়াও আপনাকে অন্য লজিস্টিকস কোম্পানির সাথে কথা বলাটাও অবশ্যই প্রয়োজন।

সেক্ষেত্রে আপনি তাদের চাহিদা অথবা দাম জানতে পারবেন এবং তার সাথে আপনি আপনার লাভটা ও জুড়তে পারবেন এবং টোটাল যে খরচ হবে সেটা সোজাসুজি গ্রাহকদের বলে দেওয়া হয়, এমনভাবে গ্রাহক এবং লজিস্টিক কোম্পানির মধ্যে যে লাভটা থাকে সেটা আপনার কাছে আসে।

ফুল লোড ট্রান্সপোর্ট:

একটি ট্রাক সম্পূর্ণ ফুল অথবা পরিপূর্ণ জিনিসপত্রের ট্রান্সপোর্ট করাটা বেশ লাভজনক একটি ব্যবসা, যে ব্যবসাটি শুরু করতে গেলে আপনাকে এভাবে শুরু করতে হবে:-

বিভিন্ন শহরে ট্রান্সপোর্ট থাকে, এই জায়গাতে আপনি আপনার ব্যবসাটি শুরু করতে গেলে কম করে দু মাস একভাবে আপনাকে কঠোর পরিশ্রম করতে হবে এবং এখানে আপনার ভিজিটিং কার্ড এর প্রয়োজনীয়তা হবে, সেই কারণে আপনার কাছে ভিজিটিং কার্ড থাকাটা অনিবার্য।

এখান থেকে আপনি ট্রান্সপোর্ট সম্পর্কিত একটি মোটা বই অথবা ট্রান্সপোর্ট ডাইরেক্টরি নিয়ে রাখতে হবে। এই বইয়ের মধ্যে বিভিন্ন রকম ট্রান্সপোর্ট কোম্পানী গুলির কন্টাক্ট এবং সম্পূর্ণ তথ্য দেওয়া থাকে। আপনি খুব সহজেই এগুলিকে কাজে লাগিয়ে সেইসব কোম্পানী গুলির সঙ্গে যোগাযোগ স্থাপন করতে পারেন।

এছাড়াও আপনি যে জায়গা থেকে জিনিসপত্র ট্রান্সপোর্টের জন্য গাড়িতে তোলেন সেই জায়গাটিকে ট্রান্সপোর্ট কোম্পানি গুলি তথ্য নেওয়ার মধ্যে দিয়ে আপনার ব্যবসার আগে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য সহায়তা করতে পারে।

বুকিং এর জন্য আপনাকে কমিশন এজেন্ট এর সাথে কথা বলতে হবে। আপনি যে ট্রান্সপোর্ট কোম্পানি কে সেট করতে চাইছেন সেই কোম্পানির কমিশন এজেন্ট এর সাথে আপনাকে কথা বলতে হবে।

ট্রান্সপোর্টের ব্যবসা তে আপনাকে জিনিসপত্র লোডিং এবং আনলোডিং এই বিষয়টাও আপনি আপনার গ্রাহকদের থেকে অবশ্যই জেনে নেবেন। যদি গ্রাহক লোডিং এবং আনলোডিং এর কাজ আপনাকে দিয়ে থাকে তাহলে এখানেও কিন্তু আপনি টাকা উপার্জনের একটি সুযোগ পাবেন।

ট্রান্সপোর্ট এর সাথে জড়িত অনন্য উদ্যোগ:

১) অ্যাপ্লিকেশনের মাধ্যমে ট্যাক্সি পরিষেবা:

আজকাল এই ব্যবসা প্রচুর পরিমাণে চলছে। ট্রান্সপোর্ট এর মধ্যে অ্যাপ্লিকেশনের মাধ্যমে ট্যাক্সি পরিষেবা অনেকদিন আগে থেকেই চলছে এবং বেশ প্রতিস্ঠিতও বটে। এখন মানুষ কোথাও যাওয়ার আগে নিজের স্মার্টফোনের মাধ্যমে ওলা অথবা উবের এর ট্যাক্সি বুক করে থাকেন। যা কিনা খুব তাড়াতাড়ি তাদের কাছে পৌঁছে যায় এবং তার সাথে সাথে গ্রাহকদের ট্রিপ দেয়ার মধ্যে দিয়ে টাকা উপার্জন করে থাকে।

আপনি আপনার নিজস্ব গাড়িও এই ব্যবসার মধ্যে যুক্ত করে অনায়াসেই এরকম ব্যবসা করতে পারেন। আপনি যদি চান আপনার কাছে যদি গাড়ি থেকে থাকে তাহলে একটা নয় এক এর বেশি গাড়িও আপনি এমন ব্যবসার সাথে যুক্ত করতে পারেন। তাছাড়া যদি আপনার কাছে গাড়ি না থাকে তাহলে এই গাড়ি কেনার জন্য আপনি খুব সহজে লোন অথবা ঋণ নিতে পারবেন।

২) গাড়ি ভাড়া নিয়ে ব্যবসা:

এমন মানুষ অনেক আছেন যারা গাড়ি ভাড়া নিয়ে সেই গাড়ি গুলিকে কোন শহর বা কোন পর্যটন স্থানে চালিয়ে তা থেকে ভালো মত একটা উপার্জন করে থাকেন। তার থেকে কিছু পরিমাণ গাড়ি ভাড়া বাবদ দিয়ে বাকিটা নিজের লাভ রেখে দেন অর্থাৎ টাকা দিয়ে অথবা লোন নিয়ে গাড়ি কিনতে হচ্ছে না কারো কাছ থেকে গাড়ি ভাড়া নিয়ে সেই গাড়ি চালিয়ে ব্যবসা করা বেশ অনেকদিন আগে থেকেই চলে আসছে।

আর এই ব্যবসাটি বেশ লাভ দায়কও বটে। এই ব্যবসার জন্য কিন্তু ঋণ অথবা লোনের ব্যবস্থা আছে। আপনি চাইলে সেটাও করতে পারেন। সে ক্ষেত্রে কিন্তু আপনার কাছে গাড়ি চালানোর লাইসেন্স থাকতে হবে এবং দেশের নাগরিকতার প্রমাণপত্র থাকতে হবে, ভোটার আইডি থাকাটাও জরুরী।

৩) কোল্ড চেইন সার্ভিস:

আপনি কোল্ড চেইন সার্ভিস অথবা পরিষেবার মধ্যে দিয়েও ভালোমতো একটা উপার্জন করতে পারবেন। এই পরিষেবাতে এমন জিনিস পত্রের ট্রান্সপোর্ট করা হয় যা কিনা তাপমাত্রার তারতম্যের জন্য খুব সহজে এবং খুব তাড়াতাড়ি খারাপ হয়ে যেতে পারে।

আর সেই ক্ষেত্রে এই ব্যবসা শুরু করতে গেলে প্রথমত আপনার যথেষ্ট পুঁজি থাকার প্রয়োজন আছে কিন্তু এই ব্যবসাতে ইনকাম করতে পারবেন আপনি অনেকটাই। তাছাড়া এ ব্যবসাতে কাজে আসবে এমন ট্রান্সপোর্টে সেই রকম ব্যবস্থা করা হয়েছে যা কিনা তাপমাত্রা মেইন্টেন করতে পারবে।

৪) লজিস্টিক কোম্পানি:

আপনি নিজেই নিজের একটি নিজস্ব লজিস্টিক কোম্পানি তৈরি করতে পারেন। দেশে বিভিন্ন রকম এবং অনেক লজিস্টিক কোম্পানি তাদের কাজ করছে আর তার সাথে সাথে প্রচুর টাকা ইনকাম করছে। যদিও এই ব্যবসাটি অনেক বড় ব্যবসা কিন্তু আরম্ভটা কিন্তু আপনি একটি গাড়ির সাহায্য নিয়ে করতে পারবেন অনায়াসেই।

৫) লাক্সারি বাস রেন্টাল:

ভারত এমন একটি দেশ যেখানে ভ্রমণ করার জায়গা এবং পর্যটকদের ভিড় জমার মত স্থান এর কমতি নেই। সারাবছর কত মানুষ কত জায়গাতে ঘুরতে যান, আপনার ট্রান্সপোর্টের ব্যবসাটি এই পর্যটনকেন্দ্র অথবা ভ্রমণের দিকটাতে ঘোরাতে পারেন।

দেশের মহত্বপূর্ণ পর্যটন জায়গাগুলিতে লাক্সারি বাস চালিয়ে উপার্জন করতে পারবেন খুব ভালো মত। এই ব্যবসার জন্য আপনাকে একটু বেশি পরিমাণে ইনভেস্টমেন্ট করতে হতে পারে, আবার আপনি আপনার ব্যবসার জন্য প্যাকেজিং টুর এর ব্যবসাও করতে পারেন। লাক্সারি বাসে কত মানুষ কত জায়গায় ঘুরতে যাওয়ার পরিকল্পনা করে থাকেন, আর তাই এই ব্যবসাটি জোরকদমে চলবে তাতে কোন সন্দেহ নেই।

৬) প্যাকার্স এবং মুভার্স:

অর্থাৎ এক জায়গা থেকে আরেক জায়গায় জিনিসপত্র প্যাকিং করে নিয়ে যাওয়া এবং সেখানে নিয়ে গিয়ে সেই জিনিস গুলো কে হস্তান্তর করা। অর্থাৎ এক জায়গা থেকে জিনিসপত্র তুলে নিয়ে গিয়ে আরেক জায়গায় নিয়ে যাওয়া। এমন কাজ শহরে হাজার প্যাকার্স এবং মুভার্স করে থাকে। ট্রান্সপোর্টের ব্যবসার সাথে সম্পর্কিত এই ব্যবসাটি আপনি খুব কম পুজি নিয়ে আপনার শহরে শুরু করতে পারেন।

যদিও ট্রান্সপোর্টের ব্যবসা একটা অধিক লাভ দায়ক একটি ব্যবসা। তবে তার জন্য কঠোর পরিশ্রম, একটু বেশি পরিমাণে ইনভেস্টমেন্ট এবং আপনার লাগাতার বুদ্ধি ও পরিশ্রম কে কাজে লাগিয়ে ব্যবসা থেকে চালানোর পরিবর্তে আপনি প্রচুর টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

শুরুতে হয়তো ১০ থেকে ১৫ হাজার আপনি প্রতিমাসে ইনকাম করতে পারবেন, তবে যতই আপনার ব্যবসাটি বাড়তে থাকবে তখন কিন্তু এই ব্যবসা থেকে কয়েক লক্ষ টাকা ইনকাম করতে পারবেন প্রতিমাসে।

Leave a Comment