ত্বক মাখনের মত নরম করার সহজ পদ্ধতি – Smooth Skin Tips & Guide in Bangla

Smooth and Perfect Skin Tips in Bangla | Beauty Tips & Guide in Bangla

সুন্দর ত্বক পেতে কে না চায়? আর ত্বক যদি বাচ্চাদের ত্বকের মত নরম ও সিল্কি হয় তাহলে তো সেটা সবচেয়ে কাঙ্ক্ষিত আমাদের কাছে।

কিন্তু নরম কোমল ও মাখনের মত ত্বক পেতে আসলে কি করা প্রয়োজন? অনেকেই মাখনের মত ত্বক পেতে বাজারে প্রচলিত লোশন, ক্রিম, প্যাক, উপটান এগুলো ব্যবহার করেন, কিন্তু এগুলো অনেকের ত্বকেই স্যুট করেনা।

ফলে ত্বক মাখনের মত না হয়ে উল্টা ত্বক কালো, অনুজ্জ্বল এবং শুষ্ক হয়ে যায়। এই সমস্যা দূর করতে চাইলে ঘরোয়া উপাদানের সাহায্য নিতে পারেন।

Smooth Skin Tips and Guide in Bangla
Smooth Skin Tips and Guide in Bangla

তবে বাজারে প্রচলিত বিউটি প্রোডাক্টসই হোক, বা ঘরে তৈরি রেমিডিই হোক, ত্বক সুন্দর এবং মাখনের মত করলে নিয়মিত কিছু কাজ করতে হবে৷

আমাদের আজকের আয়োজনে আমরা আলোচনা করব কিভাবে মাখনের মত সুন্দর ত্বক পাবেন, এরজন্য কি কি কাজ করতে হবে। চলুন দেরী না করে জেনে যাক।

 

মাখনের মত সুন্দর ত্বক পেতে যে কাজগুলো করবেন

 

১. নিয়মিত স্ক্রাবিং

ত্বক শুষ্ক ও অমসৃণ হওয়ার প্রধান কারণ ত্বকে জমে থাকা ধুলা-ময়লা ও মৃতকোষ। এগুলো সঠিকভাবে নিয়মিত পরিষ্কার না করা হলে ত্বক সুন্দর ও নরম হবেনা।

এজন্য সপ্তাহে ২-৩ দিন মুখ, হাত, পা এবং সম্ভব হলে শরীরের অন্যান্য অংশে স্ক্রাবিং করুন। এরজন্য বাজারে প্রচলিত ফেস স্ক্রাবার এবং বডির জন্য বাথিং সল্ট ব্যবহার করতে পারেন।

আর যদি কেমিক্যাল ব্যবহারে অসুবিধা থাকে সেক্ষেত্রে বাসায় স্ক্রাব বানিয়ে ব্যবহার করতে পারেন। যেমন বেসন, টকদই, মসুর ডাল ও চিনি মিশিয়ে পুরো বডিতে ব্যবহার করতে পারেন।

এতে ত্বকের ময়লা দূর হবে, ত্বক নরম থাকবে।

 

২. বিউটি প্যাক ব্যবহার

স্ক্রাবিং করার পর ত্বক কালচে এবং কিছুটা শুষ্ক হয়ে যায়, এটা ময়লা দূর করে কিন্তু আদ্রতা কেড়ে নেয়।

এজন্য স্ক্রাবিং এরপর ভাল বিউটি প্যাক ব্যবহার করা উচিত। আপনি চাইলে বাজারে প্রচলিত যেকোন ভাল উপটান প্যাক হিসেবে ব্যবহার করতে পারেন।

অথবা বাড়িতেই প্যাক বানিয়ে নিতে পারেন। বাড়িতে প্যাক তৈরি করতে পারেন কাচা দুধ, হলুদ আর মধু দিয়ে। অথবা বেসন আর টকদই দিয়ে।

মুখসহ সারা শরীরে মেখে ১০-১৫ মিনিট রেখে ঠান্ডা জল দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

এতে ত্বকের আদ্রতা ফিরে আসবে, কালচে ভাব কেটে গিয়ে ত্বক উজ্জ্বল ও মসৃণ হবে।

 

 

৩. ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার

স্ক্রাবিং এবং প্যাক ব্যবহার করার পর যখন ত্বক টাওয়েল দিয়ে মুছবেন, এরপর আবারও স্বাভাবিক আদ্রতা চলে যাবে।

এই আদ্রতা ধরে রাখার জন্য চাই ভাল মানের ময়েশ্চারাইজার। সবচেয়ে ভাল হয় মুখের জন্য ত্বকের ধরন বুঝে ভাল মানের ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করা।

যদি সেনসিটিভ ত্বক হয়, তাহলে ওয়াটার বেজড ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করুন। অথবা ত্বক ভেজা থাকতে হালকা করে ভ্যাসলিন মাখতে পারেন।

এতে আদ্রতা বজায় থাকবে, র‍্যাস বা এলার্জি হবেনা। আর বডির জন্য ভাল মানের লোশন,  গ্লিসারিন, অলিভ অয়েল, আমন্ড অয়েল, বা ভ্যাসলিন ব্যবহার করতে পারেন।

স্নানের পর এবং ঘুমানোর আগে সারা শরীরে অয়েল বা লোশন মাখুন। এতে ত্বক আদ্র ও মাখনের মত নরম থাকবে।

 

৪. পর্যাপ্ত জল পান

এতক্ষন আমরা বাহ্যিক যত্নের কথা জানলাম, কিন্তু যদি শরীরের ভিতর জল না থাকে তাহলে ত্বকের উপর যতই ঘষামাজা করা হোক, কখনোই তা উজ্জ্বল ও নরম দেখাবে না।

ত্বক ভিতর থেকে পরিষ্কার রাখতে প্রতিদিন ৮-৯ গ্লাস জল পান করুন। পারলে তার চেয়ে বেশী জল পান করুন।

তাহলে ত্বকের দূষিত পদার্থ বের হয়ে যাবে এবং ত্বক উজ্জ্বল ও নরম দেখাবে।

 

৫. ফল ও সবজী খান

ফলে রয়েছেন ভিটামিন সি, ভিটামিন এ, ভিটামিন ই, যা ত্বক সুন্দর ও তারুণ্যদীপ্ত রাখতে সাহায্য করে।

তাই প্রতিদিন অন্তত দুই ধরনের ফল খান। আর প্রতিবেলার খাবারে হালকা তেল মশলায় রান্না করা সবজি রাখুন, সবজী সহজে হজম করা যায়, এবং ত্বকের জন্য খুবই ভাল।

সবচেয়ে ভাল হয়, যখন কোন কাচা ফল বা সবজী খাবেন তখন খাওয়ার পর শেষ অংশ দিয়ে ত্বকে ঘষে নিন।

এতে খাবারের মাধ্যমেও পুষ্টি পাবেন, বাহ্যিকভাবেও ত্বক পুষ্টি পাবে। এতে করে ত্বকের জেল্লা বাড়বে, ত্বক নরম হয়ে উঠবে।

 

৬. বাড়তি যত্ন

ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়াতে ও মাখনের মত নরম করতে ত্বকে মাখন মাখতে পারেন। এটা ত্বক টলটলে করতে সাহায্য করে।

এছাড়া রাইস ক্রিম, আইস কিউব এবং টকদইয়ের প্যাক ব্যবহার করুন মাঝেমাঝে। এটা ত্বকে বাড়তি নরম ভাব এনে দেবে।

৭. যা বর্জন করবেন

ত্বকের নরম ভাব অভ্যাসের উপরও নির্ভরশীল।

আপনি যদি খাবারে অনিয়ম করেন, রাতে না ঘুমান, বেশী তেল-মশলাজাতীয় খাবার খান, তাহলে তা ত্বকের ক্ষতি করবে।

ত্বক খসখসে হতে থাকবে, এবং কোন নরমভাব থাকবে না। তাই খারাপ অভ্যাস ত্যাগ করুন।রুটিন হিসাবে জীবন-যাপন করুন। ত্বক সুন্দর থাকবে।

 

উপসংহার

সবাই ই চায় মাখনের মত সুন্দর, পেলব ত্বক পেতে। কিন্তু তারজন্য যে কাজগুলো করা উচিত তা করতে চান না সবাই।

কিন্তু নিয়মিত যত্ন আর অভ্যাসের পরিবর্তনই আপনাকে আপনার কাঙ্ক্ষিত নরম ত্বক পেতে সাহায্য করবে।

এজন্য নিয়মিত স্বাস্থ্যকর খাবার, ত্বকের পরিচর্যা ও সু-অভ্যাস গড়ে তুলুন। তাহলেই আপনিও পেতে পারেন মাখনের মত মোয়ায়েম ত্বক।

সুপ্রিয় পাঠক আশা করি মাখনের মত নরম ত্বক পেতে কি কি কাজ করা উচিত সে সম্পর্কে ধারণা দিতে সক্ষম হয়েছি।

এ বিষয়ে বিস্তারিত জানার অথবা কোন মতামত দেওয়ার থাকলে কমেন্ট করে আমাদের জানাতে পারেন।

আমরা আপনার মতামত গুরুত্বসহকারে নিয়ে অবশ্যই দ্রুত উত্তর দেওয়ার চেষ্টা করব। আজকের মত এখানেই শেষ করছি।

ধন্যবাদ সবাইকে।

Leave a Comment