জগদ্ধাত্রী পূজা 2023 তারিখ ও সময় | Jagaddhatri Puja 2023 Date & Muhurat

জগদ্ধাত্রী পূজা 2023 তিথি ও সময় ভারতীয় সময় অনুসারে। কবে পড়েছে এবছরের জগদ্ধাত্রী পূজা? জগদ্ধাত্রী পুজার শুভ সময় কখন? জানুন জগদ্ধাত্রী পুজো মুহূর্ত ও কেনাকাটার শুভ মুহূর্ত এবং তাৎপর্য।

জগদ্ধাত্রী পূজা 2023 (Jagaddhatri Puja 2023): প্রায় আড়াইশো বছর আগে কৃষ্ণনগর রাজবাড়ির পূজা দেখে মুগ্ধ হয়ে ইন্দ্রনারায়ন চন্দননগরের লক্ষীগঞ্জ চাউল পট্টি নিচুপাটি জগদ্ধাত্রী পূজার প্রচলন করেন।

জগদ্ধাত্রী পূজা তারিখ ও সময় | Jagaddhatri Puja Date & Muhurat
জগদ্ধাত্রী পূজা 2023 তারিখ ও সময় | Jagaddhatri Puja 2023 Date & Muhurat

লক্ষীগঞ্জ প্রতিষ্ঠান কিছুকাল পরেই এই পূজার সূচনা। এই পূজার চন্দননগরে আদি পুজা নামেও পরিচিত।

এই বছর জগদ্ধাত্রী পূজা 2023 কবে?

Maa Jagaddhatri Puja
21 November 2023
(Tuesday)

Navami Muhurat Start
3:11 AM on 21 November 2023
Navami Muhurat End
91:03 AM on 22 November 2023

 

মা জগদ্ধাত্রী পূজা
21 নভেম্বর 2023
(মঙ্গলবার)

নবমী মুহুর্ত শুরু
21 নভেম্বর 2023 সকাল 3:11 টা
নবমী মুহুর্ত শেষ
22 নভেম্বর 2023 সকাল 91:03 টা

জগদ্ধাত্রী পূজার ইতিহাস:

দুর্গা ঠাকুরের বিসর্জনের সঙ্গে সঙ্গে বাংলার আকাশে-বাতাসে নেমে আসে বিষাদের সুর।

তার কিছুদিন পরে লক্ষ্মী পুজোতে কিছুটা হলেও মন খারাপ কেটে যায়, আবার সামনে আসে কালীপূজা, একের পর এক পূজা কেটে যাওয়ার পর মানুষের মন থেকে বিষাদ যেন কাটতেই চায় না।

এক মা নিজের শ্বশুরবাড়িতে চলে যাওয়ার পর আরেক মাকে বরণ করে নেওয়ার জন্য পৃথিবীবাসী অপেক্ষা করে থাকে।

জগদ্ধাত্রী পূজার তাৎপর্য:

নদীয়া জেলার সদর কৃষ্ণনগরে জগদ্ধাত্রী পূজার সূচনা করেন রাজা কৃষ্ণচন্দ্র রায়। কিংবদন্তী অনুসারে নবাব আলীবর্দী রাজত্বকালে কৃষ্ণচন্দ্র রাজার কাছ থেকে ১২ লক্ষ টাকা নজরানা দাবি করেন।

তিনি রাজা কৃষ্ণচন্দ্র কে মুর্শিদাবাদ এ নিয়ে যান। তারপর মুক্তির পর নদীপথে যখন কৃষ্ণনগরে রাজা কৃষ্ণচন্দ্র রায় নিজের রাজ্যে প্রত্যাবর্তন করেন সেই সময় ঘাটে বিজয়া দশমীর বিসর্জনের বাজনা শুনে তিনি বুঝতে পারেন যে তিনি দুর্গাপূজার সময় অতিক্রম করে এসেছেন।

এবছর তিনি দুর্গাপুজো দেখতে পেলেন না, দূর্গা পূজার আয়োজন করতে না পেরে অত্যন্ত দুঃখিত হয়েছিলেন। সেই রাতে দুর্গা জগদ্ধাত্রী রূপে রাজা কে পরবর্তী শুক্লা নবমী তিথিতে জগদ্ধাত্রী দুর্গার পূজা করার আদেশ দিয়েছিলেন। সেই মত কৃষ্ণনগরে রাজা কৃষ্ণচন্দ্র রায় জগদ্ধাত্রী পূজার সূচনা করেন। বলা যায় জগদ্ধাত্রী, দুর্গার আরেক রূপ।

বারো মাসে তেরো পার্বণ, বাঙ্গালীদের এই কথাটা বেশ প্রচলিত। সেই কারণে একের পর এক অনুষ্ঠান বাঙ্গালীদের লেগেই রয়েছে। সেই কারণে সারা বছরজড়ে আনন্দ উৎসবের শেষ নেই।

উৎসব প্রিয় বাঙালি জাতির এই ধর্মীয় সাংস্কৃতিক পার্বণকে আরো বহু যুগ ধরে উৎসাহ-উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে পালিত হোক এই আশা করি। বর্তমান যুগের অতি দ্রুত গতির বস্তুবাদী জীবনযাত্রার মাঝে সুপরিচিত সামাজিক অনুষ্ঠান গুলি একটি জনগোষ্ঠীকে নিজেদের সভ্যতা অতীত এবং দার্শনিক অনুভূতির স্বাদ দিতে পারে।

সৃষ্টির আদি শক্তির প্রতিমূর্তি জগতের রক্ষাকর্ত্রী দেবী জগদ্ধাত্রী, তার আরাধনার শুভলগ্নে ভক্তকুলের উপর তার কৃপা ও আশীর্বাদ বর্ষণ হোক। মায়ের আশীর্বাদে সবাই ভালো থাকুক, সবার মনস্কামনা পূর্ণ হোক।

এই বছরের কবে জগদ্ধাত্রী পূজা? জেনে নিন কেনাকাটার পাশাপাশি পূজার শুভ সময় ও মুহূর্ত। এছাড়াও জগদ্ধাত্রী পুজার তাৎপর্য, পূজা বিধি এবং এই সময় কি কাজ করা উচিৎ ও কি না করা উচিৎ জানুন সবকিছু।

Leave a Comment