হনুমান জয়ন্তী 2023 তারিখ ও সময় | Hanuman Jayanti 2023 Date & Muhurat

হনুমান জয়ন্তী 2023 তিথি ও সময় ভারতীয় সময় অনুসারে। কবে পড়েছে এবছরের হনুমান জয়ন্তী 2023? হনুমান জয়ন্তীর শুভ সময় কখন? জানুন 2023 হনুমান জয়ন্তীর মুহূর্ত ও কেনাকাটার শুভ মুহূর্ত এবং তাৎপর্য। এই বছরের কবে হনুমান জয়ন্তী? জেনে নিন কেনাকাটার পাশাপাশি উৎসবের শুভ সময় ও মুহূর্ত। এছাড়াও হনুমান জয়ন্তীর তাৎপর্য, পূজা বিধি এবং এই সময় কি কাজ করা উচিৎ ও কি না করা উচিৎ জানুন সবকিছু।

হনুমান জয়ন্তী তারিখ ও সময় | Hanuman Jayanti Date & Muhurat
হনুমান জয়ন্তী 2023 তারিখ ও সময় | Hanuman Jayanti 2023 Date & Muhurat

হনুমান জয়ন্তী 2023 (Hanuman Jayanti 2023): আমরা সকলেই জানি যে, হনুমান হলেন রামচন্দ্রের সবথেকে কাছের একজন, রামায়ণের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ চরিত্র। যাকে ভগবান শিবের একাদশ তম অবতার বলে মনে করা হয় তিনি হলেন হনুমান। চৈত্র মাসে বলতে গেলে হনুমান জয়ন্তী উৎসব পালন করা হয়।

এই বছর হনুমান জয়ন্তী 2023 কবে?

Hanuman Jayanti Puja
6 April 2023
Thursday

Purnima Muhurat Start
9:10 AM on 5 April 2023
Purnima Muhurat End
10:08 AM on 6 April 2023

হানুমান জয়ন্তীর বাংলায় তারিখ

হানুমান জয়ন্তী পূজা
৬ এপ্রিল ২০২৩
বৃহস্পতিবার

পূর্ণিমা মুহূর্ত শুরু
৫ এপ্রিল ২০২৩, সকাল ৯ঃ১০ টায়
পূর্ণিমা মুহূর্ত শেষ
৬ এপ্রিল ২০২৩, সকাল ১০ঃ০৮ টায়

 

রামায়ণে রামচন্দ্রের সাথে সীতাকে উদ্ধার করার জন্য ভগবান হনুমান কতটা দায়িত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছিলেন সেটা আমাদের সকলেরই জানা। তবে এই হনুমান জয়ন্তী পালন করার মধ্যে দিয়ে পূজা, উপবাস এবং বজরংবলীর আশীর্বাদ লাভ করা যায় এবং বিভিন্ন রকম সংকট থেকে মুক্তি পাওয়া যায়।

হনুমান জয়ন্তীর তাৎপর্য 2023: 

যে কোনো উপবাস যে কোনো উৎসব কোনো না কোনো তাৎপর্য বহন করে। তেমনি এই হনুমান জয়ন্তীর দিনে পুজো ও উপবাস করলে বজরংবলীর আশীর্বাদ লাভ করা যায় এবং সমস্ত সংকট থেকে মুক্তি পাওয়া যায় বলে ধারণা করা হয়।

বজরংবলির পূজা করলে মানুষের শারীরিক এবং আর্থিক সমস্যা থেকে মুক্তি লাভ সম্ভব হয় সেটা অনেকেই মনে করেন এবং এই ভেবেই হনুমান জয়ন্তী পালনের মধ্যে দিয়ে অনেকেই তাদের মনের ইচ্ছা ভগবান হনুমানের কাছে জানিয়ে থাকেন।

এমনকি সমস্ত স্বপ্ন পূরণ করার উদ্দেশ্যে সংকট মোচন করার জন্য হনুমান জয়ন্তীতে অনেকেই নিষ্ঠা ভরে পূজা, উপবাস, ব্রত, হনুমান চল্লিশা পাঠ এই সবকিছু করে থাকেন।

বানর রাজ কেশরী ও অঞ্জনার পুত্র যেহেতু হনুমান তাই হিন্দু পুরান মতে হনুমানের মাতা অঞ্জনার তপস্যায় মহাদেব সন্তুষ্ট হয়ে বর দিয়েছিলেন, হনুমানের রূপ ধরে তিনিই জন্মগ্রহণ করবেন তার গর্ভে। আর সেই কারণে হনুমানকে শিবের অবতারও বলা হয়। আবার কেউ কেউ তাকে পবন পুত্র নামেও চেনেন।

হনুমানের ভক্তরা এই দিনটিতে কঠোর উপবাস ও ধ্যান করে থাকেন, তার জন্য বিশেষ পূজার আয়োজন করা হয় প্রায় ঘরেই। হনুমান চল্লিশা জপ করার মানে হল বিশ্বাস অনুযায়ী এটা ইতিবাচক শক্তি দিয়ে সমস্ত রকম সংকটকে দূরে সরিয়ে দিতে পারে। এবং যারা ব্রহ্মচারী, কুস্তিগীর, এবং যারা ব্যায়াম করেন তাদের জন্য হনুমান জয়ন্তী একটি বিশেষ পূজা ও উৎসব।

হনুমান পূজার বিধি 2023: 

হনুমান জয়ন্তীর দিন একেবারে ভোরবেলা ঘুম থেকে উঠে তড়িঘড়ি স্নান সেরে নতুন পরিষ্কার কাপড় পড়তে হবে। তারপর যদি কোন ভক্ত উপবাস রাখতে পারেন তাহলে রাখবেন, যদি না পারেন তাহলে কোন অসুবিধা নেই। এবং লাল কাপড় নিবেদন করে ভগবান হনুমানের পূজা করা হয়।

প্রসাদ হিসেবে তার প্রিয় মিষ্টি হল ব্যাসনের লাড্ডু এবং মতিচুরের লাড্ডু। যেগুলি নিবেদন করে আপনি হনুমানের পূজা করতে পারেন। তার সাথে সাথে হনুমান চালিশা পড়া এবং আরতি করা এগুলো তো রয়েছেই।

দুই ধরনের লাড্ডু ছাড়াও হালুয়া ও কলা হনুমানের প্রিয় খাবার হিসেবে আমরা সবাই জানি। তাছাড়া গঙ্গাজল, ফল, ফুল ও পুজোর ব্যবহৃত আরো অন্যান্য পবিত্র জিনিস দিয়ে ভগবান হনুমানের উপাসনা করা হয়।

Leave a Comment