গুড়ি পাদওয়া 2023 তারিখ ও সময় | Gudi Padwa 2023 Date & Muhurat

গুড়ি পাদওয়া 2023 তিথি ও সময় ভারতীয় সময় অনুসারে। কবে পড়েছে এবছরের গুড়ি পাদওয়া 2023? গুড়ি পাদওয়ার শুভ সময় কখন? জানুন 2023 গুড়ি পাদওয়ার মুহূর্ত ও কেনাকাটার শুভ মুহূর্ত এবং তাৎপর্য। এই বছরের কবে গুড়ি পাদওয়া? জেনে নিন কেনাকাটার পাশাপাশি উৎসবের শুভ সময় ও মুহূর্ত। এছাড়াও গুড়ি পাদওয়ার তাৎপর্য, পূজা বিধি এবং এই সময় কি কাজ করা উচিৎ ও কি না করা উচিৎ জানুন সবকিছু।

গুড়ি পাদওয়া তারিখ ও সময় | Gudi Padwa Date & Muhurat
গুড়ি পাদওয়া 2023 তারিখ ও সময় | Gudi Padwa 2023 Date & Muhurat

গুড়ি পাদওয়া 2023 (Gudi Padwa 2023): এই উৎসবের দিন মারাঠিরা তাদের ঘরবাড়ি পরিষ্কার করে সম্পূর্ণ ভাবে সুন্দর করে গুছিয়ে রাখেন। তারপর আবির দিয়ে রঙ্গোলি তৈরি করেন। এটা একটি রীতি বলে মনে করা হয়। যেটা এই উৎসবের সাথে জড়িত। এই দিন আমের পাতা দিয়ে মালা তৈরি করা হয় যেটা ঘরের দরজায় চৌকাঠে ঝুলিয়ে রাখা হয়।

এই বছর গুড়ি পাদওয়া 2023 কবে?

Gudi Padwa
22 March 2023
Wednesday

Pratipada Muhurat Start
10:50 PM on 21 March 2023
Pratipada Muhurat End
8:25 PM on March 2023

গুড়ি পাদওয়ার বাংলায় তারিখ

গুড়ি পাদওয়া
২২ মার্চ ২০২৩
বুধবার

প্রতিপদ মুহূর্ত শুরু
২১ মার্চ ২০২৩, রাত্রি ১০ঃ৫০ টায়
প্রতিপদ মুহূর্ত শেষ
২২ মার্চ ২০২৩, রাত্রি ৮ঃ২৫ টায়

 

গুড়ি পাদওয়া উৎসবের বিশেষ স্মৃতি হল পুরান পোলি এই দিন পুরান পোলি তৈরি করে থাকেন সকলেই, বাড়ির মহিলারা গুড়ি পাদওয়া উৎসব উপলক্ষে থালি প্রস্তুত করে থাকেন। যেখানে মিষ্টি, রুটি, গুড়, নিম, নুন, তেতুল থাকে আর একেই বলা হয় পুরান পোলি। আর এই রীতি বহুদিন আগে থেকে চলে আসছে।

গুড়ি পাদওয়া উৎসবের তাৎপর্য 2023:

এই উৎসবের দিন বাড়ি কেনা, গাড়ি কেনা, সোনার গয়না কেনা এগুলোকে শুভ বলে মনে করা হয়। এই দিনটি নতুন বছরের সূচনার সাথে সাথে সংসারের আয়, উন্নতি, ধনবৃদ্ধি করে থাকে। দিনটির রয়েছে বিশেষ গুরুত্ব। প্রচলিত আছে এই দিনে গাড়ি, বাড়ি, সোনা কিনলে মা লক্ষ্মীর কৃপা পাওয়া যায়, এতে সংসারে সুখ সমৃদ্ধি ঘটে, আর্থিক অবস্থার উন্নতি ঘটে।

প্রতিবছর চৈত্র মাসে পালিত হয় এই উৎসব। সংসারের সুখ সমৃদ্ধি বৃদ্ধির জন্য বাড়ির মহিলারা থালি সাজিয়ে গুড়ি পাদওয়া উৎসব পালন করে থাকেন। প্রতিটি বাড়ির প্রতিটি কোণ আনাচ কানাজ সেজে ওঠে রঙিন আবিরের রঙ্গোলিতে, আর আম পাতা, গাঁদা ফুল ইত্যাদির মালা দিয়ে ঘরকে সুন্দর করে সুসজ্জিত করা হয়।

এই উৎসবের জন্য অনেক দিন আগে থেকে কেনাকাটা ও করে থাকেন অনেকেই। যেমন ধরুন নতুন জামা কাপড়, গাড়ি, বাড়ি, সোনার অলংকার এবং ছোট ছোট বাচ্চাদের জন্য উপহার।

মারাঠিদের কাছে এই গুড়ি পাদওয়া উৎসব নতুন বছরের সুচনার সাথে সাথে অশুভ কে সরিয়ে শুভ কে স্বাগত জানানো। জীবনকে আরও বেশি উন্নত করার লক্ষ্যে এই উৎসব মারাঠি দের মধ্যে বিশেষ ভাবে জনপ্রিয়। বিভিন্ন রকমের মিষ্টি এবং আরও অন্যান্য ঘরোয়া খাবার তৈরিতে ব্যস্ত থাকেন বাড়ির মহিলারা।

বিশেষ করে বয়স্ক মহিলারা এই সমস্ত খাবার তৈরি করতে ব্যস্ত থাকেন। বড়দের সাথে সাথে বাচ্চাদের আনন্দ এই উৎসবে চোখে পড়ার মতো। নিজেদের ঘরবাড়ির সাথে সাথে আশেপাশের পরিবেশকেও সাজিয়ে তোলা হয় ফুল, আম পাতা এবং আরও অন্যান্য সাজসজ্জার সরঞ্জাম দিয়ে।

তবে যাই হোক না কেন, নিষ্ঠা ভরে এই উৎসব পালন করা, পূজা-অর্চনা করা, সব কিছুর মধ্যে দিয়ে সংসারের উন্নতি সাধন করার আকাঙ্ক্ষা নিয়ে বাড়ির মহিলারা এই উৎসব পালন করে থাকেন। তার জন্য সকাল থেকে থালি সাজিয়ে, নিজেরাও সুসজ্জিত হয়ে এই উৎসবে শামিল হয়ে থাকেন। তবে পুরুষও কিন্তু বাদ পড়েন না, তারাও সমান ভাবে এই উৎসবে অংশগ্রহণ করেন।

Leave a Comment