2023 স্কুল শিক্ষকদের জন্য দারুন কিছু সাইড বিজনেস আইডিয়া

স্কুল শিক্ষকদের জন্য দারুন কিছু সাইড বিজনেস আইডিয়া: শিক্ষকতা একটি সম্মানীয় কাজ, আর সব সময় শিক্ষকদের সম্মানের চোখে দেখা হয়। শিক্ষক পৃথিবীতে এমন এক ব্যক্তি যিনি অজ্ঞানী ব্যক্তির মধ্যে নিজের জ্ঞান দান করার মধ্যে দিয়ে সেই অজ্ঞানী ব্যক্তির মধ্যে জ্ঞানের বিস্তার ঘটাতে পারেন। শিক্ষক হওয়ার জন্য বিভিন্ন রকমের পরীক্ষাতে পাস করতে হয়। তারপর এ গিয়ে একজন ভালো শিক্ষক হওয়া যায়।

স্কুল শিক্ষকদের জন্য দারুন কিছু সাইড বিজনেস আইডিয়া
স্কুল শিক্ষকদের জন্য দারুন কিছু সাইড বিজনেস আইডিয়া

যদি আপনি একজন শিক্ষক বা শিক্ষিকা হয়ে থাকেন শিক্ষকতা ছাড়াও পার্ট টাইম বিজনেস করার যদি ইচ্ছে থাকে তাহলে, আজকের এই আর্টিকেলটি আপনার ভীষণ ভালো লাগবে, আশা করা যায়। যেগুলি আপনি খুব সহজেই অনায়াসেই করতে পারবেন এবং তা থেকে বেশ ভালো মত একটা উপার্জন করতে পারবেন।

চলুন জানা যাক এমন কি কি কাজ যেগুলো পার্ট টাইম হিসেবে আপনি করতে পারবেন শিক্ষক বা শিক্ষিকা হিসেবে:

১) টিউশান ক্লাস:

আপনি চাইলে ২ অথবা ৪ ঘন্টা সময় বার করে কোচিং ক্লাস শুরু করতে পারেন। অথবা বাচ্চাদের ঘরে গিয়ে ও টিউশান ক্লাস করতে পারেন আপনি যে বিষয়ের উপরে খুব ভালো বোঝাতে পারেন এবং যে বিষয়টি আপনার খুব ভালো লাগে সেই বিষয়ের উপরে ছাত্রদের কোচিং ক্লাস শুরু করে এভাবে আপনার একটি সাইড বিজনেস তৈরি হয়ে যাবে, যা কিনা আপনাকে এক্সট্রা ইনকাম এনে দেবে।

এখান থেকে কম করে আপনি প্রতি মাসে ১৫ থেকে ২০ হাজার টাকা ইনকাম করতে পারবেন, তাছাড়া যদি আরেকটু সময় বের করে দুটো তিনটে সেকশন ভাগ করে টিউশন পড়াতে পারেন তাহলে আরো বেশি পরিমাণে ইনকাম করতে পারবেন।

কোচিং সেন্টার ব্যাবসা শুরু করবেন কিভাবে?

২) স্কুল অথবা কলেজের পরীক্ষার খাতা চেক করার কাজ:

আজকাল সরকারি হোক অথবা বেসরকারি, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বড় বড় ক্লাস এর পরীক্ষার খাতা চেক করার জন্য একজন ভালো শিক্ষক অথবা শিক্ষিকার প্রয়োজন পড়ে। তার বদলে ভালোমতো একটা টাকা দেওয়া হয় সেই সমস্ত শিক্ষক-শিক্ষিকাদের।

যদি আপনি একজন ভালো শিক্ষক বা শিক্ষিকা হয়ে থাকেন এবং আপনার মধ্যে সমস্ত রকমের জ্ঞানের পাশাপাশি পরীক্ষার খাতা দেখার ধারনাটাও যদি ভালোমতো থাকে তাহলে বড় বড় ক্লাসের পরীক্ষার খাতা চেক করার কাজ করতে পারেন।

বোর্ড পরীক্ষার খাতা চেক করার জন্য আপনাকে ভালো একটা টাকা তারা দিয়ে থাকবে। এটা কিন্তু আপনি একটা এক্সট্রা ইনকাম হিসেবে উপার্জন করতে পারবেন। ক্লাস অনুযায়ী এবং কতগুলি খাতা আপনি দেখছেন তার ওপরই নির্ভর করবে আপনার ইনকাম।

৩) সামার ক্যাম্প করার কাজ:

আজকের বর্তমান সময়ে লোক নিজেদের স্কুলের বাচ্চাদের সামার ক্যাম্পে নিয়ে যাওয়ার পরিকল্পনা করে থাকেন। সামার ক্যাম্পের আয়োজন কোন শিক্ষক নিজের দায়িত্বে করে থাকেন, আর এটি গরমের কাছাকাছি দু মাস পর্যন্ত আলাদা আলাদা স্কুলে করা হয়ে থাকে।

যদি আপনি ফ্রি থাকেন এবং দু মাস পর্যন্ত আলাদা আলাদা স্কুলে গিয়ে সামার ক্যাম্পের আয়োজন করতে পারেন পার্ট টাইম হিসেবে, তাহলে এ থেকে আপনি একটা ভালোমতো এক্সট্রা ইনকাম করতে পারবেন।

সামার সিজেন এ সামার ক্যাম্প করে দুই মাসে কম করে ৩০ থেকে ৪০ হাজার টাকা উপার্জন করা খুবই সাধারণ বিষয়।

অনলাইনে ফ্রিল্যান্সিং করে কিভাবে উপার্জন করবেন?

৪) সফট স্কিল ট্রেনিং দেওয়ার কাজ:

আধুনিক যুগে পড়াশোনার পাশাপাশি ছাত্ররা অনেক কিছু শিখে থাকে। তাছাড়া শিক্ষার সাথে সাথে যে কোন ব্যাক্তির ভিতর সফট স্কিল থাকাটা ভীষণ প্রয়োজনীয়। এটা একটা ব্যক্তিত্বের পরিচয় বলতে পারেন।

সফট স্কিল আপনার পার্সোনালিটি, ব্যবহার এবং সঠিকভাবে প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার মত ক্ষমতা, এই সমস্ত বিষয় সম্পর্কে শেখানো হয়ে থাকে। যদি আপনি এই রকমের কাজও করতে পারেন তাহলে এই বিষয়টি খুবই সহজ সরল মনে হবে এবং এ থেকে কাউকে ট্রেনিং দেয়ার মাধ্যমে উপার্জনও করতে পারবেন।

এই ট্রেনিং দেওয়ার মধ্যে দিয়ে প্রতিমাসে কম করে ৫ থেকে ৬ হাজার টাকা ইনকাম করা এমন কিছু কঠিন কাজ নয়।

৫) এক্সট্রা স্কিল প্রদান করার কাজ:

যদি আপনি একজন শিক্ষক অথবা শিক্ষিকা হয়ে থাকেন এবং তার সাথে সাথে এক্সট্রা স্কিল এর অন্তর্গত স্পোর্টস, সংগীত, ডান্স, বাদ্যযন্ত্র সম্পর্কিত জ্ঞান এবং আরো অন্যান্য বিষয়ে পারদর্শী হয়ে থাকেন সে ক্ষেত্রে বাচ্চাদের আলাদাভাবে এর ক্লাস নিয়ে তা থেকেও এক্সট্রা ইনকাম করতে পারেন।

এর থেকেও প্রতি মাসে কম করে ৬ থেকে ৭ হাজার টাকা  ইনকাম করতে পারবেন।

লেখাপড়া না জানা মানুষ এই ব্যাবসা করে 10-12000 টাকা উপার্জন করুন

৬) যোগা ক্লাস বিজনেস:

আজকের দিনে এমন কোনো ব্যক্তিকে খুঁজে পাওয়া যাবে না যে কিনা যোগা সম্পর্কে জানেন না, এটি এমন একটি মাধ্যম যার মাধ্যমে বিভিন্ন রকমের রোগ থেকে বাঁচা যায় এবং নিজের শরীরটাকে ফিট রাখা যায়। তাছাড়া স্লিম ফিগার পাওয়ার জন্য পুরো পৃথিবীটা একেবারে পাগলপ্রায় অবস্থা।

এমন পরিস্থিতিতে আপনি যদি যোগা ক্লাস করতে পারেন শিক্ষকতার পাশাপাশি তাহলে এ থেকে ভালো মত একটা উপার্জন আসবে আপনার। কেননা আশেপাশে প্রশিক্ষিত যোগা টিচার খুঁজতে খুঁজতে মানুষ হাঁপিয়ে উঠেছে।

সে ক্ষেত্রে আপনি যদি এমন ক্লাস দিয়ে থাকেন অনায়াসেই এই ক্লাসে অনেকেই যোগ দেবেন। তার সাথে সাথে আপনার ইনকাম আরো বাড়বে তরতরিয়ে। শিক্ষকতার পাশাপাশি কয়েক ঘন্টা সময় বের করে এই কাজটি করতে পারলে আপনার এক্সট্রা ইনকাম একেবারে আপনার হাতেই।

আর এই যোগা ক্লাস এর চাহিদা কতখানি সেটা আর আপনাদের নতুন করে বলে দেওয়ার প্রয়োজন নেই। যোগা ক্লাস থেকে প্রতিমাসে কম করে ১৫ থেকে ২০ হাজার টাকা ইনকাম করা যায়।

৭) ব্লগিং:

বর্তমান সময়ে ব্লগ একটি জনপ্রিয় মাধ্যম যার মধ্যে দিয়ে এক্সট্রা কিছু ইনকাম করা একেবারেই সহজ সাধ্য ব্যাপার। আপনি যদি শিক্ষক-শিক্ষিকা হয়ে থাকেন তাহলে আপনার মধ্যে লেখার প্রবণতা বেশি থাকবে এবং লেখার জ্ঞান তো আছেই। সেক্ষেত্রে আপনার পছন্দমত কোন বিষয়ের উপরে ব্লগিং করে কারো উপকার করতে পারেন এবং তার মধ্যে দিয়ে নিজের এক্সট্রা একটা ইনকাম তৈরি করতে পারেন।

সারাদিনের মধ্যে যেকোনো সময় আপনি ২ থেকে ৩ ঘন্টা সময় বের করে এই কাজটি অনায়াসেই করতে পারবেন, যেকোন সময় যেকোন জায়গা থেকে। আর সেই কারণে কোন রকম অসুবিধা ছাড়াই এই কাজটি কে আপনি একটি সাইড বিজনেস ও বলতে পারেন।

ব্লগিং করে প্রচুর টাকা ইনকাম করা যায় তবে সেটা একদিনে কিংবা এক দুই মাসেও সম্ভব নয়। তার জন্য আপনাকে প্রতিনিয়ত ভাল ভাল কনটেন্ট লিখে ব্লগিং করতে হবে এবং একটা সময়ের পর এখান থেকে আপনি ভালোমতো একটা উপার্জন পেতে পারেন।

এমনিতে তো এমন অনেক মানুষ আছেন যারা কিনা শুধুমাত্র ব্লগিং করে মাসে কয়েক লাখ টাকা উপার্জন করে থাকেন। তবে প্রতি মাসে ১০ থেকে ১৫ হাজার টাকা ইনকাম করা ব্লগিংয়ে খুবই সাধারন ব্যাপার।

অতিরিক্ত উপার্জনের জন্য সাইড বিজনেসের আইডিয়া

এই ছিল এমন কিছু পার্ট টাইম বিজনেস আইডিয়া শিক্ষক-শিক্ষিকাদের জন্য, যা খুবই সহজ ভাবে অবসর সময়কে কাজে লাগিয়ে এগুলি করতে পারবেন তার সাথে সাথে এক্সট্রা কিছু ইনকাম বাড়াতে পারবেন। আশা করি আজকের এই আর্টিকেলটি আপনাদের ভীষণ ভালো লেগেছে।

1 thought on “2023 স্কুল শিক্ষকদের জন্য দারুন কিছু সাইড বিজনেস আইডিয়া”

  1. আমরা কোনো সুবিধা পাইনি

    Reply

Leave a Comment