Biswa Bangla Sharad Samman 2021 Registration | বিশ্ববাংলা শারদ সম্মান ২০২১ রেজিস্ট্রেশন

অন্যান্য বছরের মতো এ বছরও রাজ্য সরকার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন “বিশ্ববাংলা শারদ সম্মান” (Biswa Bangla Sharad Samman 2021) পুরস্কার দেওয়ার। শুরুটা হয়েছিল ২০১৩ সালে আর সেখান থেকেই রাজ্য সরকার পুরস্কৃত করছেন শহরের সেরা পুজো উদ্যোক্তাদের। এ বছরও তার কোন ব্যতিক্রম হয়নি।

বিশ্ববাংলা শারদ সম্মান কি?

২০১৩ সাল থেকে রাজ্য সরকার শহরের সেরা পুজো উদ্যোক্তাদের পুরস্কৃত করছেন। আগামীতে আরো বেশি মনোরম এবং সুন্দর পুজোর আয়োজন, প্যান্ডেল, প্রতিমা, এবং দর্শনার্থীদের সুবিধা-অসুবিধা বোঝা, সচেতনতার দিক থেকে আরো বেশি উন্নত হওয়ার আহ্বান জানিয়ে রাজ্য সরকার এই সম্মান চালু করেছেন।

Biswa Bangla Sharad Samman 2021 Registration & Form Download
Biswa Bangla Sharad Samman 2021 Registration & Form Download

শহরের সেরা পুজো উদ্যোক্তাদের বিশ্ববাংলা সম্মানে ভূষিত করা হয় রাজ্য সরকারের তরফ থেকে।

বিশ্ববাংলা শারদ সম্মান এর উদ্দেশ্য

শহরের পুজো কমিটি গুলির পাশে থাকার পাশাপাশি তাদের আরো বেশি উৎসাহিত করার উদ্দেশ্যে এই সম্মান দেওয়া হয় পুজো উদ্যোক্তাদের।

বাঙালির শ্রেষ্ঠ উৎসব দুর্গোৎসব। সবচেয়ে বড় এবং জাঁকজমকপূর্ণ ভাবে পালিত করা হয় এই পুজো। সারা বছর এই পুজোতে আনন্দ করার জন্য সবাই অপেক্ষা করে থাকেন।

তাই তাদেরকে আরও বেশি উৎসাহিত করা হয় যারা দুর্গোৎসবকে মনোরম ও সুন্দর ভাবে প্রতিস্থাপন করেন। সবচেয়ে বেশি আকর্ষণীয়, সবদিক থেকে সুবিধাজনক ভাবে পুজো কাটানোর ক্ষেত্রে উদ্যোক্তাদের অনেক বেশি পরিশ্রম করতে হয়, সে ক্ষেত্রে তাদের এই সম্মান প্রাপ্য। যারা পূজার কটা দিন কে সবাইকে সুন্দরভাবে উপহার দিতে পারেন।

কিভাবে রেজিস্ট্রেশন করবেন

“বিশ্ববাংলা শারদ সম্মান” পেতে রেজিস্ট্রেশন অথবা অংশগ্রহণ করার জন্য নির্দিষ্ট ফর্ম – www.egiye Bangla.gov.in, www.bbss.wb.gov.in অথবা www.wb.gov.in এই তিনটি ওয়েবসাইট থেকে ডাউনলোড করে নিতে পারবেন।

তাছাড়া প্রয়োজন হলে জেলা ও মহাকুমা দপ্তর গুলি থেকে এই ফর্ম ডাউনলোড করে পুজো কমিটি গুলিকে সহযোগিতা করা যেতে পারে। আমাদের ওয়েবসাইট থেকেউ ফর্ম ডাউনলোড করতে পারেন যা নিচে দেওয়া আছে।

PDF আবেদন ফর্ম ডাউনলোড করুনঃ

বিশ্ব বাংলা শারদ সম্মান আবেদন ফর্ম ২০২১ইংরাজি ফর্ম ডাউনলোড
বিশ্ব বাংলা শারদ সম্মান আবেদন ফরম ফর্ম ২০২১বাংলা ফর্ম ডাউনলোড

এছাড়া আপনারা bbss.wb.gov.in এই ওয়েবসাইটে গিয়ে অনলাইন রেজিস্ট্রেশান করতে পারেন।

১. এর জন্য ওয়েবসাইটে গিয়ে “Registration” সেক্সানে ক্লিক করতে হবে।

২. “Registration” পেজে একটি ফর্ম দেখতে পাবে যেখানে সমস্ত তথ্য দিতে হবে।

৩. সকল তথ্য দেওয়ার পর সাবমিট করতে হবে।

এইভাবে অনলাইনের মাধ্যমে অনায়াসে Biswa Bangla Sharad Samman Registration করে নিতে পারবেন।

তবে আর একটা গুরুত্বপূর্ণ কথা, হলো ফর্ম জমা দেওয়ার শেষ তারিখ ৫ অক্টোবর ২০২১, বিকেল ৫ টা পর্যন্ত। তবে জেলার ক্ষেত্রে এই ফর্ম পুজো কমিটি গুলির জেলার নির্দিষ্ট ই-মেইল তেও জমা দিতে পারেন।

৫ ই অক্টোবর ২০২১, বিকেল ৫ টা পর্যন্ত নির্ধারিত সময় দেওয়া হয়েছে, এরপরে আর কোন আবেদন পত্র জমা নেয়া হবে না। ওয়েবসাইট গুলিতে আবেদনের সমস্ত বিষয় দেওয়া রয়েছে।

নিয়মাবলী

এই প্রতিযোগিতাকে সর্বাঙ্গীন সুন্দর ও সুদক্ষ, সুচারুভাবে সম্পন্ন করার জন্য আপনাকে কিছু  নিয়মাবলী ও পদক্ষেপ গ্রহণ করতে হবে, সেগুলি হল –

১) জেলার বিভিন্ন প্রান্ত থেকে সর্বাধিক সংখ্যক পূজা কমিটি এই প্রতিযোগিতায় যাতে অংশ নিতে পারে সেই বিষয়টি যথাসম্ভব সুনিশ্চিত করতে হবে।

২) গত বছর যেসব পুজো কমিটি গুলি এই প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করেছিল এ বছর তাদের অংশগ্রহণ সুনিশ্চিত করার জন্য সংশ্লিষ্ট পূজা কমিটি গুলিকে ইমেইল, মেসেজ অথবা অন্য কোন উপায়ে এ বিষয়ে জানানো যেতে পারে।

৩) হোর্ডিং ও অন্যান্য প্রচার এর বিষয়গুলির সফট কপি ইমেইলে পাঠানো হবে। এটি জেলা এবং মহাকুমার নির্দিষ্ট বিভাগীয় হোর্ডিং এ আগামী ৫ অক্টোবর, ২০২১ এরমধ্যে বিজ্ঞপ্তি করতে হবে।

বিশ্ববাংলা শারদ সম্মান পুরস্কার

শহরের সেরা পুজো উদ্যোক্তাদের এই সম্মানে ভূষিত করা হয়। সে ক্ষেত্রে প্রতিটি জেলায় প্রতিটি বিভাগে ৩ টি করে মোট ১৫ টি পুরস্কার দেয়া হবে। আগে বিশ্ববাংলা শারদ সম্মান দেওয়া হতো তিনটি বিষয়ের উপর ভিত্তি করে। সেরা প্রতিমা, সেরা মন্ডপ ও সেরা পুজোর উপর।

কিন্তু গত বছর করোনার জন্য যুক্ত হয়েছে আরও একটি নতুন পুরস্কার। সেটা হল “কোভিড স্বাস্থ্যবিধি”। আর এই বছর আরও একটি নতুন পুরস্কার সংযোজন হয়েছে সেটা হল “সেরা সচেতনতা”।

অর্থাৎ এবছর সেরা প্রতিমা, সেরা মন্ডপ, সেরা পুজো, কোভিদ স্বাস্থ্য বিধি, এবং সেরা সচেতনতার উপরে পুরস্কার দেওয়া হবে। পুরস্কার হিসেবে জেলার সেরা তিনটি পুজো কমিটিকে ৫০ হাজার করে টাকা এবং স্মারক দেওয়া হবে। “সেরা মন্ডল” হিসেবে তিনটি কমিটিকে ৩০ হাজার টাকা ও স্মারক দেয়া হবে।

কলকাতার জন্য পুরস্কার

সেরার সেরা
সেরা প্রতিমা
সেরা মন্ডপ
সেরা অলোকসোজা
সেরা আবিষ্কর
সেরা ভাবনা
সেরা পোরিবেশ বাঁধব
সেরা কোভিড স্বাস্থ্যবিধি
সেরা শিল্পী
সেরা ঢাকেশ্রী
সেরা বিশ্ব বাংলা ব্র্যান্ডিং
সেরা সচেতনাটা

২২টি জেলার জন্য পুরস্কার

সেরা পুজো
সেরা প্রতিমা
সেরা মন্ডপ
সেরা কোভিড স্বাস্থ্যবিধি
সেরা সচেতনাটা

সেরা প্রতিমা ও “সেরা কোভিড স্বাস্থ্যবিধি”র পুরস্কার পাবে তিনটি কমিটি। প্রতিটি কমিটি পাবে ২০ হাজার করে টাকা তার সাথে স্মারক। তাছাড়া রয়েছে “সেরা সচেতনতা” পুরস্কার হিসেবে তিনটি পূজা কমিটি পাবে ১০ হাজার কোটি টাকা তার সাথে স্মারক।

যোগাযোগ

তথ্য ও সংস্কৃতি দপ্তর সূত্রে জানানো হয়েছে পুজো কমিটি গুলি রাজ্য সরকারের দেওয়া তিনটি ওয়েবসাইট থেকে আবেদনপত্র ডাউনলোড করার পর সরাসরি আবেদন করতে পারবে। অসুবিধা হলে জেলা কিংবা মহাকুমা তথ্য ও সংস্কৃতি দপ্তর এ যোগাযোগ করলে তারাও আবেদনপত্রের ব্যবস্থা করে দেবে।

আবেদনকারীরা সরাসরি জেলার তথ্য ও সংস্কৃতি দপ্তর এ মেইল করে অথবা অফিসে গিয়েও আবেদনপত্র জমা দিতে পারবেন। আবেদনকারীর পূজামণ্ডপগুলোতে ৭ থেকে ১০ ই অক্টোবর তথ্য সংস্কৃতি দপ্তরের আধিকারিকরা যাবেন। সবকিছু ঘুরে দেখার পর তথ্য জমা দেবেন। তারপর ১১ ই অক্টোবর জেলাশাসক ফলাফল ঘোষণা করবেন।

আর কিন্তু বেশি সময় হাতে নেই, ইতিমধ্যেই জেলার বিভিন্ন পূজা কমিটি আবেদনপত্র তোলার কাজ শুরু করে দিয়েছে। তাছাড়া ওয়েবসাইটে আবেদনপত্রের সম্পর্কে সব কিছু তথ্য দেওয়া রয়েছে। তাছাড়া মহাকুমা তথ্য ও সংস্কৃতির দপ্তর থেকেও পুজো কমিটি গুলিকে আবেদনপত্রের সঙ্গে আরো অন্যান্য কি কি কাগজপত্র জমা দিতে হবে তা জানিয়ে দেওয়া হয়েছে।

Leave a Comment