সেরা 10টি বিবাহ সম্পর্কিত ব্যবসার আইডিয়া, দারুন ইনকাম | 2022 Best Wedding Business Ideas in Bengali

Best Wedding Business Ideas 2022 (বিবাহ সম্পর্কিত ব্যবসার আইডিয়া 2022): Best Wedding Business Ideas in India | Best Wedding Business Ideas in Bengali | Best Wedding Business Plan in Bengali. জানুন বিবাহ সম্পর্কিত ব্যবসার আইডিয়াগুলি যা থেকে অধিক উপার্জন করতে পারবেন।

“ব্যবসা করা মুখের কথা নয়”, এমন কথা অনেকের মুখেই শোনা যায়। তবে একটা ব্যবসা শুরু করতে গেলে প্রথমে এটা ভাবতে হবে যে, সেই ব্যবসার সাথে সম্পর্কিত আরও যা যা ব্যবসা আছে সেগুলি সম্পর্কে সম্পূর্ণরূপে তথ্য সংগ্রহ করা, এবং সে গুলোকে নিজের মধ্যে ভালোভাবে আয়ত্তে নিয়ে আসা। আর এটাই একমাত্র কারণ “ব্যবসা মুখের কথা নয়”।

এমন মানুষ আছে যারা একটা ব্যবসা করতে গিয়ে সেই ব্যবসা সম্পর্কিত আরও যা যা পার্শ্ববর্তী ব্যবসা রয়েছে সেগুলিকেও নিজের ব্যবসার আয়ত্তের মধ্যে নিয়ে এসেছেন।

Best Wedding Business Ideas - বিবাহ সম্পর্কিত ব্যবসার আইডিয়া
Best Wedding Business Ideas – বিবাহ সম্পর্কিত ব্যবসার আইডিয়া

সাকসেসফুল বিজনেস আইডিয়া এমনিতে তো পাওয়া যায় না, কিন্তু আজকের এই আর্টিকেলে এমন কিছু ব্যবসার আইডিয়া সম্পর্কে জানব, যা আপনার অনেক সাহায্যে আসতে পারে। তবে আপনি যদি ওয়েডিং অথবা বিবাহ সম্পর্কিত কোন ব্যবসা করে থাকেন, আপনার প্রতি বছর এই ব্যবসা দ্বিগুণ গতিতে বাড়বে।

ওয়েডিং অথবা বিবাহ সম্পর্কিত কিছু ব্যবসা সম্পর্কে জানা যাক যা থেকে ভালো পরিমাণ টাকা উপার্জন করতে পারবেন আপনি।

১) ওয়েডিং ইভেন্ট প্লানার ব্যবসা (Wedding Event Planner Business):

আমরা সবাই জানি যে বিয়ে জীবনে একটি বারই হয়, তাই সবাই বিয়েটাকে খুব ধুমধাম ভাবে করতে পছন্দ করেন। তবে বর্তমান সময়ে বিয়ে এর সাথে সাথে বিভিন্ন রকমের রীতি নীতি মেনে, যেমন ধরুন মেহেন্দি, সংগীত, গায়ে হলুদ, এবং বিভিন্ন রকমের অনুষ্ঠান বিয়ের মধ্যে অবস্থিত এর জন্য ওয়েডিং ইভেন্ট প্লানার এগুলি ডেকোরেশন এর মাধ্যমে বিয়ের প্রথম থেকে একেবারে শেষ পর্যন্ত সঙ্গীত, ম্যানেজমেন্ট, সবকিছু দেখভাল এর মধ্যে দিয়ে বিয়ে কমপ্লিট হয়ে যাওয়া পর্যন্ত সবকিছু মেইন্টেন করে থাকে।

আর একটা কথা বলাই বাহুল্য যে, আপনার যদি বিয়ে বাড়িতে যাওয়া এবং সেখানে এই ধরনের কাজ করা আপনার যদি পছন্দ হয়ে থাকে তাহলে অনায়াসেই আপনি এই ব্যবসাটি করতে পারবেন, এক্ষেত্রে কিন্তু আপনার বুদ্ধিটা লাগবে একটু বেশি, ইনভেস্টমেন্ট একেবারেই কম। কেননা আপনি যেখানে এই কাজের জন্য যাবেন সেখান থেকে আপনি কাজের জন্য অ্যাডভান্স পেয়ে যাবেন।

২) ক্যাটারিং ব্যবসা (Catering Business):

এই ব্যবসাটিও কিন্তু বিয়ের সাথে সম্পর্কিত বিয়েতে সবকিছু ডেকোরেশন হলো কিন্তু খাওয়া-দাওয়া টা ক্যাটারিং এর উপরে ছেড়ে দিতে হয়। প্রতিবছর কত লাখ বিয়ে হয় এবং সেই বিয়েতে ক্যাটারিং এর প্রয়োজনীয়তা অবশ্যই থাকে।

তাহলে আপনি যদি খুব সুন্দর খাবার তৈরি করতে পারেন এবং ভালো পরিবেশন করতে পারেন এবং আপনার যদি এমন কোন টিম অথবা গ্রুপ থাকে তারা খুব সহজেই এই ব্যবসাটি আপনি করতে পারেন।

এতেও কিন্তু অনেক কম ইনভেস্টমেন্ট আপনার লাগবে। যদি আপনি এই ব্যবসাটা কে অনেক তাড়াতাড়ি বড় করতে চান তাহলে ম্যারেজ প্যালেস এর কর্মকর্তাদের সাথে যোগাযোগ করে তাদেরকে কিছু কমিশন দিয়ে আরো অনেক বেশি বিয়ের ক্যাটারিং এর অর্ডার আপনি নিতে পারেন।

৩) ম্যারেজ প্যালেস ব্যবসা (Marriage Palace Business):

বিয়ের সাথে সম্পর্কিত এটাও কিন্তু একটি দারুণ ব্যবসা এবং আরো বেশি উপার্জন করার সুযোগ রয়েছে যদি আপনার কাছে একটি ভালোমতো পুঁজি থাকে তাহলে আপনি একটি ম্যারেজ প্যালেস বানাতে পারেন।

তাছাড়া এক বছরের জন্য আপনি কন্ট্রাক্ট হিসেবে নিতে পারেন এমন জায়গা, যেখানে বিয়ের অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। যেখানে অনেক মানুষ এক জায়গায় হতে পারবেন এবং বিয়ের অনুষ্ঠানে শামিল হয়ে আনন্দ উপভোগ করতে পারবেন।

তা থেকেও কিন্তু আপনি ভালোমতো একটা উপার্জন করতে পারবেন এবং আপনার নিজস্ব কোন জায়গা থেকে থাকে তাহলে আপনার খরচাও অনেক কম হয়ে যাবে। জায়গা নিয়ে নেওয়ার পর সেটাকে ভালো করে সাজানো, কিছু মার্কেটিং করা তারপরে সেই ম্যারেজ প্যালেসের বিজ্ঞাপন দেওয়ার মাধ্যমে আপনার ব্যবসা তরতরিয়ে বাড়বে।

৪) ওয়েডিং ডিজে ব্যবসা (Wedding DJ Business):

যেকোনো বিয়েতে যান না কেন, ডিজে তো অবশ্যই প্রয়োজন। তাহলে বুঝতেই পারছেন বিয়ের মরসুমে আপনার ডিজে ব্যবসাটি কতটা পরিমাণে চলবে। তাছাড়া এই ডিজে ব্যবসা ১২ মাস চলে। শুধুমাত্র বিয়েতে নয়, সারা বছর কোন না কোন অনুষ্ঠানে, প্রচারে, আপনার ডিজে ব্যবসা একেবারে রমরমিয়ে চলবে।

যেকোনো আনন্দের মুহূর্তে মানুষ ডিজে নিয়ে আসতে পছন্দ করেন। সে ক্ষেত্রে আপনি এই ব্যবসা করে প্রতিমাসে লাখ টাকারও বেশি উপার্জন করতে পারেন। তো সে ক্ষেত্রে এখানে ইনভেস্টমেন্টের কথা যদি বলা হয়, তাহলে কিন্তু প্রায় ৩ লাখ টাকা পর্যন্ত আপনার ইনভেস্ট করতে হতে পারে। তবে সেই টাকাটি খুব তাড়াতাড়ি আপনি রিকভার করে ফেলবেন।

৫) পাত্র-পাত্রীর পোশাকের ব্যবসা (Bridal Dresses Business):

আপনারা নিশ্চয়ই ভালোভাবেই জানেন যে বিয়ের বর হোক অথবা কনে, বিয়ের আগে ভালো করে নিজেকে সাজিয়ে নেওয়াটাই সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। সে ক্ষেত্রে সুন্দর পাত্র-পাত্রীর পোশাকের সাথে সাথে পাত্রীর গয়না, বিউটি পার্লার থেকে সেজে গুজে আসতে হয় বিয়ের কনেকে।

অনেক ক্ষেত্রে কনের ব্রাইডাল পোশাক এবং গয়না কনের নিজস্ব হয়ে থাকে। কিন্তু আজকাল ভাড়ায় সবকিছু পাওয়া যায়। এমন পরিস্থিতিতে আপনি পাত্র-পাত্রীর পোশাকের ব্যবসা করতে পারেন।

অথবা ব্রাইডাল পোশাকের ব্যবসা করতে পারেন। আপনি এমন কাপড়ের কালেকশন রাখুন এবং তার সাথে সাথে ম্যাচিং গয়না ও রাখতে পারেন। এগুলো কে আপনি ভাড়া ও দিতে পারেন। আপনার একটাই ইনভেস্টমেন্ট লাগবে এই ব্যবসার জন্য এবং সারা বছর এটা থেকে আপনি উপার্জন করতে পারবেন।

৬) বিয়েতে গাড়ি ভাড়া দেওয়া ব্যবসা (Wedding Car rental Business):

ছেলের বিয়ে হোক অথবা মেয়ের বিয়ে, বরযাত্রী হোক বা কন্যাযাত্রী, সবক্ষেত্রে কিন্তু এক জায়গায় শামিল হতে গেলে গাড়ির প্রয়োজন হয়। সবার তো আর নিজস্ব গাড়ি থাকে না! তাই সবাই একসাথে গাড়িতে করে বিয়ের অনুষ্ঠানে যাওয়ার জন্য গাড়ি ভাড়া নিয়ে থাকেন।

আপনি কিন্তু এই গাড়ি ভাড়া দেওয়ার ব্যবসাটি করতে পারেন। আপনার কাছে যদি ভালো সুন্দর গাড়ির কালেকশান থাকে, তো আপনার কাছে এমন কাস্টমার অবশ্যই আসবে।

তাছাড়া ভারতে গাড়ি ভাড়া দেওয়ার ব্যবসাটি অনেক আগে থেকেই বেশ সফলতার সাথে চলে আসছে। এ থেকেও কিন্তু আপনি ভালোমতোই রোজগার করতে পারবেন। প্রতিমাসে কম করে ৩০ থেকে ৪০ হাজার টাকা উপার্জন করতে পারবেন। তবে শুধুমাত্র বিয়েতে নয় অন্যান্য কাজেও আপনার গাড়ি ভাড়া দিতে পারেন।

৭) বিয়ের জন্য টেন্ট হাউস ব্যবসা (Wedding Tent house Business):

যে কোন বিয়েতে আপনি যান না কেন, সেখানে দেখবেন টেন্ট অথবা পর্দা টাইপের কিছু লাগানো থাকে। এটাও কিন্তু বিয়ের সাথে জড়িত একটি ব্যবসা। এগুলি বিয়ের মন্ডপ কে আরো বেশি সুন্দর ও আকর্ষণীয় করে তোলে।

আপনি বিভিন্ন রকমের সুন্দর টেন্ট এর কালেকশন নিয়ে সেগুলিকে ভাড়া দিতে পারেন। যেকোন প্রোগ্রাম, বিয়ে বাড়ি, প্রত্যেকটি প্রগ্রামে আপনি ১০ থেকে ৫০ হাজার টাকা পর্যন্ত উপার্জন করতে পারবেন। তবে এই ব্যবসা করতে গেলে আপনাকে হয়তো ৭ থেকে ৮ লাখ টাকা পর্যন্ত ইনভেস্ট করতে হতে পারে।

৮) বিয়ের মেকআপ ব্যবসা (Wedding makeup Business):

বিয়ে মানেই সুন্দর সাজগোজ, তাই মেকআপটা ও বিয়েতে একটি অতিপ্রয়োজনীয় জিনিস। তাছাড়া সাধারণ জীবন যাপনে একজন মহিলা মাসে একবার হলেও বিউটি পার্লারে গিয়ে থাকেন।

তাহলে ভাবুন একটি বিয়েতে সবাই শামিল হতে গেলে বিয়ের কনে থেকে শুরু করে সমস্ত মহিলাদের মেকআপ কতটা প্রয়োজনীয়। এমন পরিস্থিতিতে আপনি কিন্তু মেকআপ আর্টিস্ট  হয়ে যেতে পারেন। আর তার সাথে সাথে এই ব্যবসাটি ও জোরকদমে চালিয়ে যেতে পারেন।

এর জন্য আপনাকে শুধু কাস্টমার খুঁজতে হবে। যারা এই কাজগুলো করবে এবং আপনি তাদের বেতন দেবেন তার মাধ্যমে আপনি কিন্তু ভালো মত একটা উপার্জন করতে পারবেন। তবে একটা কথা গুরুত্বপূর্ণ যে আপনার কাছে সুদক্ষ মেকআপ আর্টিস্ট থাকাটা জরুরী। এর কারণে কিন্তু আপনি প্রচুর পরিমাণে অর্ডার পাবেন। প্রতি অনুষ্ঠানে কম করে ১০ থেকে ২০ হাজার টাকা উপার্জন করা যায়।

৯) বিবাহ প্রতিষ্ঠান ব্যবসা (Marriage Bureau Business):

এই ব্যবসাটি কিন্তু বিয়ের সাথে ওতপ্রোতভাবে জড়িত। বিয়ে হওয়ার আগে প্রথমে দুটো পরিবারের দেখা সাক্ষাত হওয়াটা জরুরী। সম্বন্ধ করার জন্য এমন অনেক লোক আছেন ছেলেমেয়েদের বিয়ে দেওয়ার জন্য ভালো ছেলে মেয়ে খুঁজে পান না। সেক্ষেত্রে আপনি ম্যারেজ ব্যুরো এর কাজ করতে পারেন। এক্ষেত্রে কিন্তু কাস্টমার নিজে থেকেই আপনার কাছে আসবে।

এমন অনেক ক্লায়েন্ট আছে যাদের মাধ্যমে আপনি দুটো পরিবারকে এক করতে পারবেন। তার বিনিময় আপনার কিছু উপার্জন হবে। এছাড়াও আপনি রেজিস্ট্রেশন ফিজও নিতে পারবেন। এই ব্যবসাতে যদি ইনভেস্ট এর কথা বলা হয় তাহলে ৫০ হাজার টাকা পর্যন্ত আপনাকে ইনভেস্ট করতে হতে পারে। অনলাইন, অফলাইন, দুইভাবে এই ব্যবসাটি আপনি করতে পারেন।

১০) হানিমুন প্ল্যানিং ব্যবসা (Honeymoon Planning Business):

এমন অনেক মানুষ আছেন যারা ট্রাভেল বিজনেসে অনেক সফলতা পেয়েছেন। এমন অনেক মানুষ আছেন তাদের সবেমাত্র বিয়ে হয়েছে এবং তারা হানিমুনে যাবেন এমন অবস্থায় আপনি তাদের এমন সার্ভিস দিতে পারেন। তারা যেখানে যেতে চাইছেন সেখানে তাদেরকে নিয়ে যাওয়া, সেখানে নিয়ে গিয়ে তাদের থাকা, খাওয়া, ঘোরা সবকিছুর পার্ফেক্ট ব্যবস্থা করে দেওয়ার দায়িত্ব কিন্তু থাকবে আপনার।

একটি ট্রাভেল বিজনেস এ কি কি থাকতে পারে সেটি আপনাকে বুঝতে হবে। যেমন ধরুন নিয়ে যাওয়া, সেখানে থাকা, খাওয়া, ঘুমানো, ঘোরা, সবকিছু একজন হানিমুন প্লানার করে থাকেন। আপনি কিন্তু এমন ব্যবসাও করতে পারেন। যা কিনা বিয়ের সাথে সম্পর্কিত এবং প্রচুর পরিমাণে উপার্জন করতে পারেন।

একটি ভালো বাজেটের মধ্যে লোকেদের ভালো জায়গাতে হানিমুন করার স্বপ্ন পূরণ করতে পারেন আপনি। এই ব্যবসাতে আপনার সবচেয়ে বেশি ইনভেস্ট করতে হতে পারে মার্কেটিংয়ের ক্ষেত্রে। প্রায় দু’লাখ টাকা পর্যন্ত আপনার এই ব্যবসাটি সাজাতে লাগতে পারে। প্রতি ট্রাভেলে ৫০ থেকে ৮০ হাজার টাকা উপার্জন করতে পারবেন। এর থেকেও বেশি হতে পারে।

এখানে বিয়ের সাথে সম্পর্কিত যে দশটি ব্যবসার আইডিয়া আলোচনা করা হলো, তা থেকে কিন্তু যে কোন ব্যবসা আপনি পছন্দ করে নিজের একটি ব্যবসা শুরু করতে পারেন। খুব কম ইনভেস্টমেন্ট করে বেশি টাকা উপার্জন করার ব্যবসার আইডিয়া আপনার অনেক কাজে আসবে। তাছাড়া আপনি চাইলে বিয়ের সাথে জড়িত এমন অনেক ব্যবসাই আছে, যেগুলি আপনি করতে পারেন। আশা করি আজকের এই আর্টিকেলের ব্যবসার আইডিয়া গুলি আপনাদের ভাল লেগেছে।

Leave a Comment