Atal Pension Yojana 2022: Eligibility, Registration & Benefits

Atal Pension Yojana – APY Online Scheme – Eligibility & Benefits

নাগরিকের উন্নতির জন্য সরকার বিভিন্ন প্রকল্প সরবরাহ করছেন। দেশের বার্ধক্যজনিত নাগরিকদের জন্য একটি ভালো ভবিষ্যত রচনা করার জন্য সরকার বিভিন্ন মানদণ্ড এবং উদ্দেশ্যগুলি প্রকল্পায়িত করেছেন।

এই প্রকল্প সকল ভারতের নাগরিকের উদ্দেশ্যে। অবসর গ্রহণের পরেও অর্থ উপার্জনের রাস্তা তৈরি করার লক্ষ্যে এই প্রকল্পের উদ্ভাবন।

অসংগঠিত অংশে কাজ করা লোকদের আয়ের একটি নির্দিষ্ট উৎস তৈরি করে এই প্রকল্প।

অসংগঠিত কর্মক্ষেত্রে যুক্ত ১৮-৪০ বছরের মধ্যে যে কোনো ভারতীয় বাসিন্দা অটল পেনশন যোজনার মধ্যে দিয়ে নির্ভরযোগ্য ও নির্দিষ্ট একটি টাকার ব্যবস্থা করতে পারেন।

Atal Pension Yojana - APY Online Scheme - Eligibility & Benefits
Atal Pension Yojana – APY Online Scheme – Eligibility & Benefits

বিশেষত অবসরকালীন সময়ে সাধারণ মানুষের পেনশনের সুবিধা পাওয়ার জন্য ভারত সরকার এই যোজনার কথা উল্লেখ করেন ২০১৫ সালে।

জেনে নেওয়া যাক অটল পেনশন যোজনা বা APY এর সুযোগ সুবিধা।

এই যোজনার নিয়ন্ত্রক সংস্থা হল পেনশন রেগুলেটরি অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট অথরিটি (PFRDA)। যোজনায় নাম নথিভুক্তকারী উপভোক্তাদের মাসিক পেনশনের পরিমাণ ১০০০-৫০০০ টাকা পর্যন্ত।

অটল পেনশন প্রকল্পের আওতায় গ্রাহকরা ৬০ বছর বয়সের পরে একটি স্থির পেনশনের পরিমাণ পাবেন।

১. অটল পেনশন যোজনা থেকে কী কী সুবিধা পাওয়া যাবে:

  • APY-য়ের আওতায় গ্রাহকগণের জন্য ফিক্সড মাসিক পেনশনের পরিমাণ 1000 টাকা, 2000 টাকা, 3000 টাকা, 4000 টাকা এবং 5000 টাকা
  • যাঁরা ২০১৫ সালের ডিসেম্বর মাস শেষ হওয়ার আগে এই স্কিমে যোগ দিয়েছিলেন, তাদের জন্য বিশেষ সুবিধা দিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার। সেক্ষেত্রে
    মোট জমা টাকার ৫০ শতাংশ বা বার্ষিক ১০০০ টাকা পর্যন্ত যুক্ত করার কথা জানানো হয়েছে।
  • এই যোজনায় অন্তর্ভুক্ত ব্যক্তিরা ভারত থেকে সরকার দ্বারা গ্যারান্টিযুক্ত একটি নির্দিষ্ট পেনশনের পরিমাণ অর্জন করতে পারে।বছরে একবার, ব্যক্তিরা তাদের বিনিয়োগকালীন সময়ে তাদের পেনশনের পরিমাণ বাড়াতে বা হ্রাস করতে পারে।
  • অটল পেনশন যোজনায় সরকার পেনশন স্কিম হিসাবে বিজ্ঞপ্তি বিবেচনা করেছেন। ফলে বিনিয়োগকারী আয়কর আইন, ১৯৬১-এর অধীনে ৮০ সিসিডি (১) ধারায় কর ছাড়ের সুবিধা গ্রহণ করতে পারেন।
  • একজন অটল পেনশন যোজনায় অন্তর্ভুক্ত ব্যক্তির মৃত্যুর পরে তাঁর স্ত্রী বা স্বামীর জন্য পেনশনের টাকা পেতে পারে।যদি সেই ব্যক্তির ৬০ বছরের পূর্বে মৃত্যু ঘটে তবে স্রী বা স্বামীর এই যোজনা চালু বা বন্ধ করার সম্পূর্ণ অধিকার রয়েছে।
  • ১৮ বছর বয়স থেকেই এই স্কিমের আওতায় আসতে পারবেন গ্রাহকরা। তবে সেক্ষেত্রে মাসে ২১০ টাকা করে জমা দিতে হবে, অর্থাৎ প্রতিদিন ৭ টাকা করে রাখলেই ৬০ বছর বয়সের পর থেকে ৫০০০ টাকা করে নিজের ব্যাংক অ্যাকাউন্টে পেয়ে যাবেন গ্রাহকেরা।
  • প্রকল্পের আওতায় গ্রাহকরা সঞ্চয়ের পর্যায়ে বছরে একবার পেনশনের পরিমাণ বাড়াতে বা হ্রাস করতে পারবেন।
  • আপনি যে পরিমাণ পেনশন পাবেন তার উপর আপনি আয়কর ছাড় পেতে পারেন।
  • অ্যাকাউন্টের ভারসাম্য, অবদানের ক্রেডিট ইত্যাদির বিষয়ে গ্রাহকদের পর্যায়ক্রমিক তথ্য এসএমএস সতর্কতাগুলির মাধ্যমে APY সাবস্ক্রাইবারদের সরবারহ করা হবে।
Atal Pension Yojana-APY
Atal Pension Yojana-APY

২. অটল পেনশন যোজনাতে আবেদন করার যোগ্যতা:

  • আপনাকে ভারতীয় নাগরিক হতে হবে
  • আপনার বৈধ আধার কার্ড বা ভোটার কার্ড থাকা বাঞ্ছনীয়
  • আপনার একটি বৈধ ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট থাকা দরকার
  • আপনার বয়স ১৮-৪০ বছর র মধ্যে হতে হবে।

৩. আবেদন করার জন্য কী কী তথ্য প্রমাণের প্রয়োজন:

  • আবেদনকারীর আধার কার্ড
  • মোবাইল নম্বর
  • পরিচয়পত্র
  • স্থায়ী ঠিকানার প্রমাণ
  • পাসপোর্ট সাইজের ছবি

৪. এই প্রকল্পে কারা আবেদন করতে পারবেন না?

যে কোনও বিধিবদ্ধ সামাজিক সুরক্ষা স্কিমের সুবিধাভোগী, APYয়ের আওতায় সরকারী সহযোগীতার সুবিধা পাওয়ার যোগ্য নয়। যেমন নিম্নে কিছু আইনের কথা বলা হয়েছে:

  • কর্মচারীদের প্রভিডেন্ট ফান্ড এবং বিবিধ বিধান আইন ১৯৫২।
  • কয়লা খনি প্রভিডেন্ট ফান্ড এবং বিবিধ বিধান আইন ১৯৪৮।
  • আসাম চা বাগানের প্রভিডেন্ট ফান্ড এবং বিবিধ বিধান, ১৯৫৫।
  • জম্মু কাশ্মীর কর্মচারীদের ‘প্রভিডেন্ট ফান্ড এবং বিবিধ বিধান আইন, ১৯৬১।
  • Seamen প্রভিডেন্ট ফান্ড আইন, ১৯৬৬।
  • অন্য যে কোনও বিধিবদ্ধ সামাজিক সুরক্ষা স্কিমের আওতায় কোনো সুবিধাভোগী এই প্রকল্পের আওতায় আসতে পারবেন না।

৫. এই প্রকল্পে আবেদন করবেন কীভাবে?

অটল পেনশন যোজনা (APY) অ্যাকাউন্টের জন্য আবেদন করতে, আবেদনকারীকে একটি সহজ পদ্ধতি অনুসরণ করতে হবে।

  • যে ব্যাংকের শাখায় আবেদনকারীর সঞ্চয় অ্যাকাউন্টটি রাখা আছে সেখানে যান। যদি আবেদনকারীর কোনও অ্যাকাউন্ট না থাকে তবে তাকে একটি অ্যাকাউন্ট খুলতে হবে আধার কার্ডের মাধ্যমে লিঙ্ক করে।
  • APY আবেদন ফর্ম পূরণ করুন আধার কার্ড / মোবাইল নম্বর দিয়ে।
  • এছাড়া অন্যান্য প্রয়োজনীয় তথ্য পূরণ করতে হবে।
  • অ্যাকাউন্টটি খোলার পরে, গ্রাহককে অবশ্যই নিশ্চিত করতে হবে যে এই প্রকল্পের জন্য মাসিক অবদানের জন্য অ্যাকাউন্টে ন্যূনতম প্রয়োজনীয় ব্যালেন্স রয়েছে।
  • আবেদনকারীরা APY রেজিস্ট্রেশন ফর্ম পূরণ করতে নেট ব্যাংকিং ব্যবহার করে তাদের নাম তালিকাভুক্ত করতে পারেন।গ্রাহকরা তার নিজের নামে অ্যাকাউন্ট খুলতে পারবেন।আবেদনের সময় গ্রাহকরা APY অ্যাকাউন্টে প্রযোজ্য নমিনির বিবরণ প্রদান বাধ্যতামূলক এছাড়াও আধার কার্ডের বিবরণও তাদের সরবরাহ করতে হবে।
  • আবেদনের প্রক্রিয়া সম্পন্ন হলে একটি এস এম এস গ্রাহকের ফোনে চলে যাবে।

৬. অটল পেনশন যোজনার পেনশন উইড্রোল করতে পারবেন কীভাবে:

যে আবেদনকারী এই প্রকল্পটি বন্ধ করতে চান তারা নিম্নলিখিত শর্তাদি উল্লেখ করতে হবে যা APY প্রত্যাহারের জন্য পর্যাপ্ত বিশদ সরবরাহ করা জরুরী যে তিনি ৬০ বছরে অবতীর্ণ হয়েছেন।

  • গ্রাহকরা ৬০ বছর পূর্ণ হওয়ার পরে APY থেকে প্রস্থান করতে পারবেন।
  • গ্রাহকের মৃত্যুর ক্ষেত্রে পেনশনের রিটার্ন স্বামী / স্ত্রীকে সরবরাহ করা হবে। এবং উভয় গ্রাহক মারা গেলে পেনশনের পরিমাণ মনোনীতকে দেওয়া হবে।
  • 60 বছর বয়সের আগে স্বেচ্ছাসেবী অবসর নিতে চাইলে তা APYয়ের আওতায় অনুমোদিত। APYতে গ্রাহক কর্তৃক প্রদত্ত অবদান গণনা করা হবে এবং সেই পরিমাণের মূল সুদ আবেদনকারীকে সরবরাহ করা হবে।

৮.অটল পেনশন যোজনার মোবাইল অ্যাপ:

APY মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন

মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন সংস্করণ যা APY সম্পর্কিত সমস্ত তথ্য ওখানে পেয়ে যাবেন।

মোবাইল অ্যাপ্লিকেশনটিতে এখন অতিরিক্ত বৈশিষ্ট্য যোগ করা হয়েছে যার মধ্যে APY, APY তথ্য / পরিষেবা, APY পেনশন ক্যালকুলেটর, APY কি ,কোথায় অন্তর্ভুক্ত রয়েছে সমস্ত তথ্য এখানে রয়েছে।

মোবাইল সংস্করণটি নিয়মিত পদ্ধতিতে APY পোর্টাল সম্পর্কে আরও অনেক তথ্য সরবরাহ করে থাকে।এই অ্যাপটি গুগল প্লে স্টোর থেকে ডাউনলোড করতে পারবেন খুব সহজেই।

Bangla Guide for Atal Pension Yojana (APY)

কেন্দ্র সরকারের সমস্ত যোজনাClick Here
পশ্চিমবঙ্গের সমস্ত প্রকল্পClick Here
বাংলাভুমি হোমClick Here

Leave a Comment

You cannot copy content of this page