এই ৫ টি জব – অনলাইনে ফুলটাইম করতে পারবেন

অনলাইনে এখন ঘরে বসেই বিভিন্ন কাজ করে আপনি অর্থ আয় করতে পারবেন। এই অনলাইন ইনকাম বিষয়টি সম্পর্কে আমরা অনেকেই এখন জানি। কিন্তু সবাই এটাই ভাবে যে, এটা শুধুমাত্র পার্টটাইম কাজের জন্য। এর মাধ্যমে ফুলটাইম অর্থ আয়ের কোন ব্যবস্থা করা যায়না, বা কাজগুলো সবসময় থাকেনা। এটা একটি ভুল ধারনা।

বর্তমানে প্রযুক্তি ছাড়া আমাদের চলেই না। আগে যে সব কাজ আমরা সশরীরে উপস্থিত থেকে করতাম সেটা এখন আমরা অনলাইনে বসেই করতে পারি। যেমন অনলাইনে টিচিং, প্রোডাক্ট সেল, পেজ ম্যানেজমেন্ট, ট্রান্সক্রিপশন ইত্যাদি। এই কাজগুলি খুঁজে পাবেন জব পোর্টালে সার্চ দিয়ে। এখানে বিভিন্ন কোম্পানি তাদের অনলাইন কাজের জন্য পার্টটাইম এবং ফুলটাইম ইমপ্লোয়ী নিয়োগ দিয়ে থাকে।

আপনাকে এসব কোম্পানিতে জব করতে হলে তাদের জব সাইটগুলো সার্চ দিয়ে তাদের পোস্ট অনুযায়ী এপ্লাই করতে হবে। সুপ্রিয় পাঠক, আমাদের আজকের পোস্টে থাকছে এমন কিছু অনলাইন জব সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা যা আপনি ফুল টাইম জব হিসেবে করতে পারবেন। চলুন দেরী না করে আলোচনা শুরু করা যাক।

 

ফুলটাইম ৫ টি অনলাইন জব সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নিন

 

১. প্রোডাক্ট রিসেলিং

অনলাইনে বিভিন্ন কোম্পানি তাদের পণ্য বিক্রয়ের জন্য বিজ্ঞাপন দিয়ে থাকে। তাদের পণ্য বিক্রয়ের জন্য তারা বিভিন্ন ব্যক্তিকে নিয়োগ দিয়ে থাকে। আপনি বিভিন্ন ব্যক্তির কাছে, আপনার পরিচিত বা অপরিচিত বিভিন্ন সেলিং গ্রুপে পণ্যগুলির বিজ্ঞাপন দিতে পারেন।

এগুলোর ক্রয়মূল্যের চেয়ে আপনি বেশীমূল্যে বিক্রয়ের জন্য পোস্ট দিতে পারবেন। যেমন ৫০০ টাকার পণ্য ৬০০ টাকায় বিক্রয় করে বাড়তি ১০০ টাকা আপনার লাভ হবে। এছাড়া ডেলিভারি চার্জ কোম্পানি বহন করবে।

এই অনলাইন কাজটি করে অনেকেই প্রচুর টাকা রোজগার করছেন বর্তমানে। মানসম্মত পণ্য অনলাইন থেকে কিনতে সবাই আগ্রহী এখন। তাই আপনি ফুল টাইম  জব হিসেবে কাজটি করতে পারেন।

এ কাজে লাভ হবে মাসিক ২০০০০-২৫০০০০ টাকা। তবে আপনার বিক্রয় দক্ষতা, পণ্য বা সেবার ছবি পোস্টের ধরন, কোন কোন গ্রুপ বা মানুষের কাছে এগুলো বিক্র‍য়ের চেষ্টা করছেন তার উপর আয়ের পরিমাণ কম বা বেশী হবে। যেকোন কাজেই বেশী আয় করতে হলে বেশী পরিশ্রম করতে হবে।

 

২. বিভিন্ন কোম্পানির ভার্চুয়াল অ্যাসিস্টেন্ট

বিভিন্ন অনলাইন পণ্য বা সেবা কোম্পানি তাদের অনলাইন কাজগুলো করিয়ে নেওয়ার জন্য পার্টটাইম বা ফুলটাইম ইমপ্লোয়ী নিয়োগ দিয়ে থাকে। এখানে আপনার কাজ হবে, কোম্পানির পণ্য ও সেবার জন্য কন্টেন্ট লেখা, বিভিন্ন ব্লগ লেখা, গ্রাহকদের ম্যাসেজের রিপ্লাই, তাদের অভিযোগের সুরাহা, পেজ শেয়ার, প্রোমোশন, কমেন্টের রিপ্লাই, ইমেইল এর রিপ্লাই ইত্যাদি।

এই কাজগুলো করতে তেমন কোন পূর্ব অভিজ্ঞতা প্রয়োজন হবেনা। ইন্টারনেট সম্পর্কে বেসিক জ্ঞান থাকলে এবং ইংলিশ জানলেই কাজ করা সহজ হবে। এর জন্য মাসিক ১৫০০০ আয় করা সম্ভব। চাইলে একসাথে দুইটা সাইটের কাজও নিতে পারেন, যেহেতু আপনাকে ফিজিক্যালি প্রেজেন্ট হতে হবেনা।  

এই জবগুলো পাবেন ফ্রিল্যান্সারদের মার্কেটপ্লেস এ। Fiverr, Upwork এ সার্চ দিয়ে জবগুলো পেতে পারেন।

 

৩. ট্রান্সক্রিপশনিস্ট

বিভিন্ন মুভি, সিরিয়াল বা অন্যান্য ভিডিওতে যেসব সাবটাইটেল থাকে এগুলো তৈরির কাজকে ট্রান্সক্রিপশনিস্ট বলা হয়। আপনাকে যেকোন অডিও বা ভিডিও দেখে সেটাকে ভাষা দিয়ে টেক্সট এ রূপান্তর করতে হবে, যা মুভি, সিরিয়াল বা বিভিন্ন ভিডিওর সাবটাইটেল হিসেবে ব্যবহৃত হবে। এরকম কাজ বিভিন্ন লোকের সাহায্যে করিয়ে নেন, এরকম বহু কোম্পানি রয়েছে।

আপনি মুভি রিলেটেড সাইট, মার্কেটপ্লেস এবং TranscribeMe তে এ সকল জব অফার পাবেন। এগুলোতে এপ্লাই করুন। প্রতি ঘন্টায় ১০-১৫ ডলার আয় করতে পারবেন। অথবা মাসিক মোটা অংকের অর্থ আয় করতে পারবেন।

 

৪. কন্টেন্ট রাইটার

বিভিন্ন কোম্পানি তাদের ওয়েবসাইটের জন্য বিভিন্ন আকর্ষণীয় কন্টেন্ট তৈরি করে থাকে। আর এগুলো লেখানোর জন্য বিভিন্ন ব্যক্তিকে কন্টেন্ট রাইটার হিসেবে নিয়োগ দিয়ে থাকে। কন্টেন্ট রাইটারদের কাজ হয়, কোম্পানির পণ্য ও সেবা সম্বন্ধে  লেখা যা পড়ে গ্রাহক পণ্য ও সেবা কিনতে আগ্রহী হবে।

এছাড়া অনলাইন নিউজ, রিভিউ, অনুবাদ ইত্যাদি সাইটে লিখেও প্রচুর টাকা আয় করা সম্ভব। তবে লেখার হাত ভাল হতে হবে, ইংরেজিতে দক্ষ হতে হবে। তাহলেই ঘন্টায় ১০ ডলার অনায়াসে আয় করতে পারবেন।

এই কাজগুলো পেতে বিভিন্ন নিউজ পোর্টাল সার্চ দিতে হবে অথবা ফ্রিল্যান্সারদের মার্কেটপ্লেস এ একাউন্ট খুলে বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী আবেদন করতে হবে।

৫. অনলাইন টিউটর

এখন আর কোন বিদেশী টিউটর থেকে কিছু শেখার জন্য বিদেশে যাওয়ার প্রয়োজন নেই। অনলাইনেই যেকোন দেশের যেকোন বিষয়ের প্রশিক্ষন নিতে পারবেন। আপনি যদি কোন বিষয়ে দক্ষ হন, এবং শিক্ষকতা করার অভিজ্ঞতা থাকে তাহলে নিজের শিক্ষাদানের ভিডিও করুন এবং পেইড কোর্স চালু করুন।

এই ভিডিওগুলো অর্থের বিনিময়ে বিক্রয় করতে পারেন। এতে করে যত স্টুডেন্ট ক্লাস করবে বা ভিডিও কিনবে তত বেশী আপনি আয় করতে পারবেন। আপনার শিক্ষাদান ক্ষমতা ভাল হলে, আপনার কাছে প্রচুর শিক্ষার্থী ক্লাস করবে অনলাইনে। ফলে মাসে প্রচুর অর্থ আয় করার সুযোগ পাবেন, যা ফুলটাইম জবের মতই সুবিধা দেবে।

 

উপসংহার

এখন আর শুধু পার্টটাইম জব করে নিজের হাতখরচ নয়, ফুলটাইম জব করে নিজের ক্যারিয়ারও অনলাইন জবের মাধ্যমেই গড়ে তোলা সম্ভব। চাকরির সীমিত বাজারে হতাশ হয়ে না ছুটে অনলাইন ক্যারিয়ারে কিছু বেসিক জ্ঞান, যোগাযোগ দক্ষতা, ইংরেজি বলা ও লেখার দক্ষতা, ইন্টারনেট সম্পর্কে জ্ঞান থাকলে খুব সহজেই মাসে এত বেশী আয় করা সম্ভব যা যেকোন বড় কোম্পানি জবের আয়ের সমান বা তারচেয়ে বেশী।

তাহলে আপনি অনলাইন জবে ক্যারিয়ার গড়তে চাইলে আজই সার্চ করুন জব পোর্টালের আর হয়ে উঠুন সাবলম্বী। পোস্টটি পড়ে উপকৃত হয়েছেন আশা করি। ভাল লাগলে লাইক, কমেন্ট করতে পারেন, এবং বেশী ভাল লাগলে শেয়ার করবেন পোস্টটি। আজকের মত এখানেই শেষ করছি।

ধন্যবাদ সবাইকে।

Leave a Comment